X
বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
১৬ ফাল্গুন ১৪৩০

কুমিল্লার সেই মণ্ডপে উৎসবমুখর পরিবেশে চলছে দুর্গাপূজা

আবদুল্লাহ আল মারুফ, কুমিল্লা
২৩ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:০১আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:০১

শারদীয় দুর্গাপূজার মহাঅষ্টমীর দিন ২০২১ সালে কুমিল্লার নানুয়ারদিঘির উত্তর পাড়ের পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখাকে কেন্দ্র করে হামলা, ভাঙচুরের ঘটনায় পূজা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এতে কান্নায় ভেঙে পড়েন এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। এ বছর উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপন করা হচ্ছে শারদীয় দুর্গাপূজা। উৎসব ঘিরে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে পূজা উদযাপন কমিটি ও জেলা প্রশাসন। এবারের উৎসব সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হবে বলে আশা করছেন সবাই।

৬০ বছরের মোহাম্মদ সেলিম নানুয়ারদিঘির উত্তর পাড়ের বাসিন্দা। ছোটবেলা থেকে বাবা-দাদার সঙ্গে উত্তর পাড়ের পূজামণ্ডপে দুর্গাপূজা দেখে বড় হয়েছেন। ২০২১ সালে মণ্ডপে কোরআন রাখাকে কেন্দ্র করে ঘটে যাওয়া হামলার পর থেকে লজ্জায় মাথা নিচু হয়ে যায় তার। কারণ এত বছর যাদের সঙ্গে খেলাধুলা করে বড় হয়েছেন, তাদের ওপর হামলা এবং বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়েছিল। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হওয়ার এমন ঘটনা আর দেখতে চান না তিনি। সেলিমের মতো উত্তর পাড়ের সব বাসিন্দার প্রত্যাশা পূজা সুন্দরভাবে সম্পন্ন হোক।

রবিবার সরেজমিনে দেখা গেছে, নানুয়ারদিঘির উত্তর পাড়ে ঘাটলা ঘিরে সড়কের গা ঘেঁষেই স্থানীয় দর্পণ সংঘের উদ্যোগে পূজামণ্ডপ তৈরি করা হয়েছে। মণ্ডপে একাধিক প্রতিমা বসানো হয়েছে। দিঘির উত্তর ও পশ্চিম পাড়ের সনাতন ধর্মাবলম্বীরা জানিয়েছেন, এবার শান্তিপূর্ণভাবে পূজা উদযাপন করছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৯৭৩ সালের পর থেকে এ মণ্ডপে পূজা করে আসছেন এলাকার পুণ্যার্থীরা। মণ্ডপের নিরাপত্তা নিয়ে কারও কখনও সংশয় ছিল না। ফলে ২০২১ সালে মণ্ডপে কোরআন রাখাকে কেন্দ্র করে ঘটে যাওয়া হামলার বিষয়টি কারও কল্পনাতেও ছিল না। হামলার পরের বছর থেকে মণ্ডপে পূজা আয়োজনের সঙ্গে বাড়তি নিরাপত্তার বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এবারও সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে জেলা প্রশাসন।

এবারের উৎসব সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হবে বলে আশা করছেন সবাই

নানুয়ারদিঘির পশ্চিম পাড়ের বাসিন্দা মানিক সাহা বলেন, ‘আমার বয়স ৭৩ বছর। জন্ম থেকে দেখে আসছি এখানে পূজো হচ্ছে। ২০২১ সালের ঘটনার আগে ও পরে কখনও কেউ এসে কোনও অভিযোগ দেয়নি। উল্টো আমাদের প্রয়োজনে পাশে থেকেছে পাড়ার সবাই। স্থানীয়দের কারণেই আমরা সুন্দরভাবে পূজা উৎযাপন করতে পারছি। আমরা চাই এভাবেই যুগ যুগ ধরে সম্প্রীতির বন্ধন টিকে থাকুক।’ 

নানুয়ারদিঘির পাড়ে গল্পে মেতেছেন দুই বন্ধু মো. ইয়াছিন ও মো. আবুল কালাম। দুই জনের বয়স ষাটের ওপরে। ঠিক মণ্ডপের সামনে বসেই গল্প করছেন তারা। দুজনেই এই এলাকার বাসিন্দা। আবুল কালাম বলেন, ‘ওই ঘটনা ছিল ভয়াবহ। আমরা চাই না, এমন ঘটনা আর ঘটুক। আমরাও ঘুমাতে পারিনি অনেকদিন। এসব ঘটনা মানুষে মানুষে বিভেদ তৈরি করে। আমরা চাই সম্প্রীতি ও সুন্দর সমাজ।’ 

মো. ইয়াছিন বলেন, ‘কোনোদিন এই এলাকার মানুষকে ধর্ম নিয়ে তর্ক করতে দেখিনি। ওটাই ছিল প্রথম এবং ওটাই যেন শেষ ঘটনা হয়। এখন আমরা সবাই সতর্ক আছি। আশা করছি, ওই জাতীয় কিছু ঘটবে না।’ 

মণ্ডপে হামলার ২ বছর, তদন্ত কতদূর?

২০২১ সালের ১৩ অক্টোবর ভোরে নানুয়াদিঘির উত্তর পাড়ের পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন অবমাননাকে কেন্দ্র করে হামলা, ভাঙচুরের ঘটনায় পূজা বন্ধ হয়ে যায়। ওই দিন নগরীর চারটি মন্দির ও সাতটি মণ্ডপে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এছাড়া সহিংসতা ছড়িয়ে পড়ে সারাদেশে। 

সিআইডি, পিবিআই ও জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গছে, মণ্ডপে হামলার ঘটনায় কুমিল্লায় ১২টি মামলা করা হয়। এর মধ্যে ছয়টি তদন্তের দায়িত্ব পায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), চারটির দায়িত্ব পায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ও দুটি তদন্তের দায়িত্ব পায় কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ।

নানুয়ারদিঘির উত্তর পাড়ে ঘাটলা ঘিরে সড়কের গা ঘেঁষেই স্থানীয় দর্পণ সংঘের উদ্যোগে পূজামণ্ডপ তৈরি

সিআইডির ছয় মামলার মধ্যে মণ্ডপে কোরআন রেখে সহিংসতা ছড়ানোর ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ইকবালসহ মোট পাঁচ জনকে আসামি করে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। এই মামলার বাদী পুলিশ। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির কুমিল্লার পরিদর্শক মো. নুরুল হাকিম বলেন, ‘সিআইডির ছয় মামলার মোট আসামি ১০৯ জন। ছয়টি মামলার একটির তদন্ত আমি করেছি। প্রথমে মামলার অজ্ঞাতনামা আসামি ছিল। ওই মামলাটি হলো মণ্ডপে কোরআন রেখে সহিংসতা ছড়ানোর ঘটনায়। এই মামলায় ২৯৫/২৯৫ ক, ৬ ও ১০-১৪ ধারায় চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। মামলায় অভিযুক্ত পাঁচ জন। ইকবাল ছাড়া বাকি আসামিরা হলেন কোরআন দেখে ৯৯৯ খবর দেওয়া নগরীর মৌলভীপাড়ার ইকরাম হোসেন ওরফে রেজাউল হক, পাশের দারোগাবাড়ির মাজারের সহকারী খাদেম নগরীর উত্তর চর্থা এলাকার বাসিন্দা আশিকুর রহমান ফয়সাল, তার সঙ্গী মো. হুমায়ুন কবির এবং সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর ব্যক্তিগত সহকারী হিসেবে পরিচিত মহিউদ্দিন আহমেদ বাবু।’ 

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) খন্দকার আশফাকুজ্জামান বলেন, ‘পূজামণ্ডপে কোরআন রাখা ও সহিংসতার ঘটনায় জেলার বিভিন্ন থানায় ১২টি মামলা হয়েছিল। পিবিআইয়ের সব মামলার চার্জশিট দেওয়া হয়েছে। কোতোয়ালি থানার সব মামলার চার্জশিট দেওয়া হয়ে গেছে। এখন আদালতে বিচারাধীন আছে সেগুলো। কোনও মামলা জেলা পুলিশের কাছে তদন্তাধীন নেই। সবগুলো রায়ের অপেক্ষায় আছে।’

কে এই ইকবাল, কীভাবে ঘটায় অঘটন

মণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় প্রকাশিত সিসিটিভির ফুটেজে ইকবাল হোসেন নামের এক যুবককে দেখা যায়। পরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নগরীর ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের দ্বিতীয় মুরাদপুর-লস্কর পুকুর এলাকার নূর আহমদ আলমের ছেলে ইকবাল হোসেন। তার বাবা মাছের ব্যবসা করেন। পেশায় রংমিস্ত্রি। সপ্তম শ্রেণি পাস করা ইকবাল বিয়ে করেছেন দুটি। ২০২১ সালের ১৩ অক্টোবর রাতের ঘটনার আশপাশের ১২টি সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা। 

কয়েকটি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, ঘটনার দিন রাত ১১টা ৫৮ মিনিটে দারোগাবাড়ির মাজারসংলগ্ন মসজিদে প্রবেশ করেন ইকবাল। কথা বলেন মসজিদে থাকা হাফেজ হুমায়ুন ও মাজারের খাদেম ফয়সালের সঙ্গে। রাত ১২টায় সেখান থেকে চলে যান। এরপর রাত ২টা ১০ মিনিটে আবার মসজিদে যান। কোরআর হাতে নিয়ে দারোগাবাড়ি মাজার গেট থেকে পুকুরপাড় ধরে এগিয়ে যান ইকবাল। আসেন মণ্ডপের দিকে।

আরেক সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, হনুমানের গদা কাঁধে নিয়ে দিঘিরপাড়ে ঘোরাফেরা করছেন ইকবাল। তখন কোরআন হাতে ছিল না। তবে মণ্ডপে সিসিটিভি না থাকায় কোরআন রাখার চিত্র দেখা যায়নি। এ ঘটনার পর পুলিশ সাংবাদিকদের জানায়, ধারণা করা হচ্ছে কোরআন মন্দিরে রেখে গদা নিয়ে বের হন ইকবাল।

উৎসব ঘিরে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে পূজা উদযাপন কমিটি ও জেলা প্রশাসন

যা বলছেন পূজা উদযাপন কমিটির নেতারা

কুমিল্লায় ৮০৬টি পূজামণ্ডপ রয়েছে। এর মধ্যে কুমিল্লা শহরে আছে ৬৫টি। মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অচিন্ত্য দাস টিটু বলেন, ‘১৯৭৩ সাল থেকে নানুয়ারদিঘির উত্তর পাড়ের মণ্ডপে পূজা হয়। একটা সময় এক ব্যক্তির বাসায় পূজা হতো। পরে সময়ের প্রয়োজনে আমরা নানুয়ারদিঘির পাড়ে অস্থায়ী মণ্ডপ করে পূজা করি। ১৯৭৩ সাল থেকে কখনও কেউ পূজার বিষয়ে আমাদের সঙ্গে কোন কথাও বলতে আসেনি। আমাদের প্রতিবেশীরা যখন নামাজ পড়ে আমরা ঢাকঢোল বন্ধ রাখি। আবার আমাদের পূজাতেও তারা সহযোগিতা করেন। আমাদের বন্ধুত্ব যুগ যুগ ধরে চলা। ২০২১ সালের ঘটনার পরও প্রতিবেশী মুসলিম ভাইয়েরা আমাদের সহযোগিতা করেছেন। বাইরের মানুষ এসে আমাদের ওপর আক্রমণ করেছিল সেদিন। প্রতিবেশী মুসলিম ভাইয়েরা রক্ষা করছেন। এই সম্প্রীতি কখনও নষ্ট হবার নয়। আমরা ওই ঘটনা আর মনে করতে চাই না।’ 

মণ্ডপে হামলার ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবি করে অচিন্ত্য দাস টিটু বলেন, ‘অন্যায়ের যদি শাস্তি না হয়, অন্যায়কারী সাহস পেয়ে আবারও অন্যায় করবে। এই অন্যায় যারা করেছে, সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ঘটনায় জড়িতদের বিচারের দাবি জানাই। আমরা চাই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি।’

পূজামণ্ডপের নিরাপত্তায় এবারও সর্বোচ্চ ব্যবস্থা

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) খন্দকার আশফাকুজ্জামান বলেন, ‘এবারও পূজা উপলক্ষে ওই মণ্ডপে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে। জেলার ৮০৬টি মণ্ডপে এক হাজার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য দায়িত্বে আছেন। পাঁচ হাজারের বেশি আনসার সদস্যকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। শতাধিক মণ্ডপে স্থায়ী পুলিশ ডিউটি দেওয়া হয়েছে। এছাড়া পুলিশ সংকট নিরসনে রেঞ্জ থেকে ৫০ ও এপিবিএনের ২০ সদস্য জেলার বাইরে থেকে যুক্ত করা হয়েছে। মণ্ডপগুলোতে নিরাপত্তার জন্য সাদা পোশাকে সদস্যরা আছেন। সঙ্গে মোবাইল টিম টহল দিচ্ছে। আশা করছি, কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না।’

/এএম/
সম্পর্কিত
সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর শপথ সজীব ওয়াজেদ জয়ের
শুভেচ্ছা জানাতে পূজামণ্ডপে সাইফুদ্দীন মাইজভাণ্ডারী
চোখের জলে মা দুর্গাকে বিদায় (ফটো স্টোরি)
সর্বশেষ খবর
প্রতিবেদন নিয়ে বিতর্ক, তদন্ত করবে উচ্চতর কমিটি
ভিকারুনিসায় যৌন হয়রানি:প্রতিবেদন নিয়ে বিতর্ক, তদন্ত করবে উচ্চতর কমিটি
রাজধানীর বেরাইদে বাবা- ছেলের মরদেহ উদ্ধার
রাজধানীর বেরাইদে বাবা- ছেলের মরদেহ উদ্ধার
ভারতে এক ট্রেনে আগুন আতঙ্ক, অন্য ট্রেনের নীচে কাটা পড়ে দুইজন নিহত
ভারতে এক ট্রেনে আগুন আতঙ্ক, অন্য ট্রেনের নীচে কাটা পড়ে দুইজন নিহত
সাকিব-তামিম ভুয়া হলে আমাদের মাটির ভেতরে ঢুকে যাওয়া উচিত: মুশফিক
সাকিব-তামিম ভুয়া হলে আমাদের মাটির ভেতরে ঢুকে যাওয়া উচিত: মুশফিক
সর্বাধিক পঠিত
শবে বরাত নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য: সেই ইসলামি বক্তার বিরুদ্ধে আরেক মামলা
শবে বরাত নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য: সেই ইসলামি বক্তার বিরুদ্ধে আরেক মামলা
রমজানে সরকারি অফিসের নতুন সময়সূচি ঘোষণা
রমজানে সরকারি অফিসের নতুন সময়সূচি ঘোষণা
ভর্তি পরীক্ষার খাতার নিচে মোবাইল রেখে গুগল থেকে উত্তর লিখছিলেন শিক্ষার্থী
ভর্তি পরীক্ষার খাতার নিচে মোবাইল রেখে গুগল থেকে উত্তর লিখছিলেন শিক্ষার্থী
রমজানে বড় ইফতার পার্টি করা যাবে না
প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনারমজানে বড় ইফতার পার্টি করা যাবে না
পাহাড়ের বুক চিরে ৫২ বছরের কষ্ট চাপা দেবেন তারা
পাহাড়ের বুক চিরে ৫২ বছরের কষ্ট চাপা দেবেন তারা