X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

বর্তমান সরকারের পতন ঘটানো যাবে না: কৃষিমন্ত্রী

আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৪৬

ষড়যন্ত্র আর আন্দোলন করে জনগণের ভোটে নির্বাচিত বর্তমান বৈধ সরকারের পতন ঘটানো যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেছেন, ‘আমরা কোনও আন্দোলন-সংগ্রামকে ভয় পাই না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে দেশ উন্নয়নের দিকে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে চলেছে। উন্নয়নের এ জোয়ারে সব ষড়যন্ত্রকারী ভেসে যাবে।’

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) বিকালে টাঙ্গাইল শহরের শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘ছাত্ররাই ছাত্রলীগ করবে। অছাত্র, বেশি বয়সী ও বিবাহিতদেরকে ছাত্রলীগে স্থান দেওয়া হবে না। এ ক্ষেত্রে যে নীতিমালা রয়েছে, তা কঠোরভাবে মানা হবে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একটি সুশৃঙ্খল, সুদক্ষ ও ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। এই সংগঠন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের চেতনার ও দর্শনের সংগঠন। আর এই সংগঠনের নেতা হলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছাত্রলীগের কর্মীদের এ বিষয়গুলো মনে রাখতে হবে। সংগঠনের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে এমন কোনও কাজে জড়িত হওয়া যাবে না।’

তিনি বলেন, ‘কোনও বিদ্রোহী প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এখন পর্যন্ত তিন হাজার ইউপির মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। একটিতেও বিদ্রোহী প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়নি।’

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক, টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম এমপি, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, ছানোয়ার হোসেন এমপি, আতাউর রহমান খান এমপি, আহসানুল ইসলাম টিটু এমপি, তানভীর হাসান ছোট মনির এমপি, হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী এমপি, খন্দকার মমতা হেনা লাভলী এমপি, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য প্রমুখ।

জেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান সোহেলের সভাপতিত্বে জেলার প্রতিটি উপজেলা ও জেলা আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। এ সম্মেলনকে ঘিরে পুরো জেলার নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসবের আমেজ বিরাজ করে।

দীর্ঘ এক যুগ পর টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ২০১০ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি সর্বশেষ আনুষ্ঠানিক সম্মেলনে নাজমুল হুদা নবিন সভাপতি ও ইসতিয়াক আহমেদ রাজিব সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৫ সালের ২৪ জুন সম্মেলন ছাড়াই ইসতিয়াক আহমেদ রাজিবকে সভাপতি ও শামীম আল মামুনকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সেই কমিটি অপর অংশের দ্বারা বাধাপ্রাপ্ত হয়। পরে ২০১৭ সালের ১৯ মে মোস্তাফিজুর রহমান সোহেলকে আহ্বায়ক করে ৪৬ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

/এফআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
চলন্ত বাসে ডাকাতির চেষ্টা, গণপিটুনিতে আহত যুবকের মৃত্যু
চলন্ত বাসে ডাকাতির চেষ্টা, গণপিটুনিতে আহত যুবকের মৃত্যু
‘কনকাশন সাব’ দিয়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা
‘কনকাশন সাব’ দিয়ে বাংলাদেশকে চাপে ফেলেছে শ্রীলঙ্কা
তামাকপণ্যের দাম বাড়ানোর দাবি
তামাকপণ্যের দাম বাড়ানোর দাবি
কক্সবাজার থেকে ঢাকায় এসে ছিনতাই করতো রেদোয়ান
কক্সবাজার থেকে ঢাকায় এসে ছিনতাই করতো রেদোয়ান
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
দুপুরে আ.লীগ থেকে পদত্যাগ করে সন্ধ্যায় স্বতন্ত্র প্রার্থী
দুপুরে আ.লীগ থেকে পদত্যাগ করে সন্ধ্যায় স্বতন্ত্র প্রার্থী
রেল লাইনে লোহার অ্যাঙ্গেল পড়ে ৪ ঘণ্টা ধরে ট্রেন চলাচল বন্ধ
রেল লাইনে লোহার অ্যাঙ্গেল পড়ে ৪ ঘণ্টা ধরে ট্রেন চলাচল বন্ধ
আদালতে হাজির ছিলেন কৃষক, পুলিশের প্রতিবেদনে অংশ নিয়েছেন সংঘর্ষে 
আদালতে হাজির ছিলেন কৃষক, পুলিশের প্রতিবেদনে অংশ নিয়েছেন সংঘর্ষে 
ধান কাটা নিয়ে বাগবিতণ্ডা, কাস্তে দিয়ে কৃষককে হত্যা
ধান কাটা নিয়ে বাগবিতণ্ডা, কাস্তে দিয়ে কৃষককে হত্যা
স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড
স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদণ্ড