X
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২০ মাঘ ১৪২৯

বাড়ি রঙ করে এক দম্পতি বললেন ‘বিশ্বকাপ জিতবে আর্জেন্টিনা’

আরিফ হোসাইন কনক, নারায়ণগঞ্জ
২২ নভেম্বর ২০২২, ২৩:৫২আপডেট : ২২ নভেম্বর ২০২২, ২৩:৫২

সারাবিশ্বের সঙ্গে বিশ্বকাপ ফুটবলের উন্মাদনা ছড়িয়ে পড়েছে বাংলাদেশে। ইতোমধ্যে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনায় বিভক্ত হয়ে গেছেন ফুটবলপ্রেমীরা। এই উন্মাদনায় আর্জেন্টিনা ফুটবল দলকে ভালোবেসে নিজ হাতে পুরো বাড়ি পতাকার আদলে রঙ করেছেন নারায়ণগঞ্জের আফজাল মুন্সি।

একতলা বাড়ির চারদিকে আর্জেন্টিনার পতাকার আদলে রঙ ও পতাকা আঁকা হয়েছে। ইতোমধ্যে ‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ নামে বেশ পরিচিতি পেয়েছে এটি। বাড়িটি দেখতে অনেকে ভিড় করছেন। 

নারায়ণগঞ্জ শহরের গলাচিপা কলেজ রোড এলাকায় একতলা বাড়িটিতে বসবাস করেন মো. আফজাল মুন্সি (৫০)। স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে সেখানে ২০১৩ সাল থেকে বসবাস করছেন। আফজাল মুন্সি পেশায় রঙ লাগানোর ঠিকাদার। তবে রঙমিস্ত্রি নন। ঠিকাদারি কাজের সময় দেখে দেখে রঙ লাগানোর অভিজ্ঞতা হয়েছে। পরে নিজ হাতে পুরো বাড়িতে রঙের কাজ করেছেন। এছাড়া তিনি জমি বেচাকেনার পেশায়ও জড়িত।

‘আর্জেন্টিনা বাড়ি’ নামে বেশ পরিচিতি পেয়েছে বাড়িটি

সরেজমিনে দেখা গেছে, বাড়ির ভেতরে-বাইরে আর্জেন্টিনার পাতাকার আদলে রঙ করা হয়েছে। এজন্য স্থানীয়রা বলছেন, এটি আর্জেন্টিনা বাড়ি। বাড়ির গেটের পাশের দেয়ালে বড় করে আর্জেন্টিনার পাতাকার ছবি আঁকা হয়েছে। বারান্দা ও ছাদে একইভাবে রঙ করার পাশাপাশি ছোট ছোট পতাকা আঁকা হয়েছে। সব মিলিয়ে বাড়িটি এখন অন্যরকম সুন্দর।

এ বিষয়ে আফজাল মুন্সি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আর্জেন্টিনা ফুটবল দলকে ভালোবেসে পতাকার আদলে বাড়ি রঙ করেছি। ব্যক্তিগত অর্থে নিজ হাতে পুরো বাড়ি রঙ করেছি। মিস্ত্রি দিয়ে রঙ করাইনি। কারণ মনের মতো রঙ করতে পারবে না তারা। তবে বাড়ি ছোট হওয়ায় সেভাবে রঙ করতে পারিনি। বাড়িটা আরও বড় হলে ভালো হতো। বাড়ির আকৃতি আরও বড় করতে পারলে মনের মতো রঙ করে সাজাবো। রঙের কাজে আমার স্ত্রী সহায়তা করেছে। এই কাজে ব্যয় হয়েছে ৩৫-৪০ হাজার টাকা। প্রায় ১৫ দিন সময় লেগেছে রঙ করতে। এখনও কিছু অংশের কাজ অসম্পূর্ণ আছে। তবে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতলে সব কষ্ট সার্থক হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ছোটবেলা থেকে আর্জেন্টিনা দলের সাপোর্ট করে এসেছি। তখন ডিয়াগো ম্যারাডোনার খেলা ভালো লাগতো। এখন মেসির খেলা ভালো লাগে। আমার দুই ছেলে। তারাসহ পরিবারের সবাই আর্জেন্টিনার সাপোর্ট করে। ২০১৬ সালে নারায়ণগঞ্জে এসেছি। এরপর ২০১৮ সালে আর্জেন্টিনা দলকে ভালোবেসে সর্বপ্রথম পতাকার আদলে বাড়ি রঙ করেছিলাম। তবে সেসময় অনেকে বিরূপ মন্তব্য করেছিল। তখন কিছু লোকজন রঙ নষ্ট করে দিয়েছিল। এভাবে দুবার রঙ নষ্ট করে দেওয়ার পর পুনরায় রঙ ঠিক করেছি। ২০২২ সালে দ্বিতীয়বারের মতো রঙ করেছি। তবে এবার আশা করছি, কেউ রঙ নষ্ট করবে না। কারণ এবার সবাই আমার কাজে খুশি। এবার রঙ করায় তারা আমাকে প্রকৃত আর্জেন্টিনা ভক্ত হিসেবে গণ্য করছে। ফলে এবার তারা কোনও নেতিবাচক মন্তব্য করেনি। এমনকি ব্রাজিলের সমর্থকরা সাধুবাদ জানিয়েছেন।’ 

আফজাল মুন্সি ও তার স্ত্রী আঞ্জুমান আরা মুন্নি

এবার আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতবে আশাবাদ ব্যক্ত করে আফজাল মুন্সি বলেন, ‘আর্জেন্টিনা দলের সব খেলোয়াড়, বিশেষ করে মেসির খেলা খুব ভালো লাগে। মেসি সবার প্রিয় খেলোয়াড়। মেসি পায়ের জাদু দেখিয়ে এবার বিশ্বকাপ জিতবে বলে আশা রাখছি। এর মধ্য দিয়ে তার স্বপ্নপূরণ হবে।’

আফজাল মুন্সির কাজে সহযোগিতা করেছেন স্ত্রী আঞ্জুমান আরা মুন্নি। তিনি বলেন, ‘ছোটবেলা থেকে ফুটবল খেলা আমার ভালো লাগে। ম্যারাডোনার খেলা দেখতে ভালো লাগতো। এখন মেসির খেলা ভালো লাগে, তার পায়ে জাদু আছে। মেসি আমার পছন্দের খেলোয়াড়। এবার আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপ জিতবে এটাই প্রত্যাশা আমার।’ 

পুরো বাড়ি পতাকার আদলে রঙ করেছেন

তিনি আরও বলেন, ‘আমার স্বামী আর্জেন্টিনা ও মেসির ভক্ত। পাগল ভক্ত না হলে একা একটা বাড়ি রঙ করার কাজ সম্পন্ন করতে পারতো না। আমি ছাড়া আর কারও সহযোগিতা নেয়নি। এককথায় বলা চলে আমরা দুজনেই আর্জেন্টিনার ভক্ত। দুই ছেলেও আর্জেন্টিনার ভক্ত। তিন শতাংশ জমির ওপর আমাদের বাড়ি। এটি আমার বাবার নামে। সে কারণে সবাই আগে বাবার নামে বাড়িটিকে চিনতো। ২০১৮ সালের পর থেকে আর্জেন্টিনা বাড়ি বললেই সবাই এক নামে চিনে। শুধুমাত্র আর্জেন্টিনার পতাকার আদলে রঙ করার কারণে এই নামকরণ হয়েছে।’ 

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আর্জেন্টিনা বাড়িটি আমার ওয়ার্ডে পড়েছে। বাড়িটি বেশ আলোচিত। তবে সবার প্রতি আমার আহ্বান থাকবে, ফুটবল বিশ্বকাপকে ঘিরে সবাই যার যার দলের সাপোর্ট করবেন। একে-অপরের সঙ্গে কোনও ধরনের বিরোধে জড়াবেন না।’ 

/এএম/
সর্বশেষ খবর
উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরে গেলেন অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা
উপাচার্যের আশ্বাসে হলে ফিরে গেলেন অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
রাজশাহীতে ৩ জনকে হত্যা
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
নার্সদের যৌন হয়রানি: দুই চিকিৎসককে বদলি
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে আহত পার্বত্য মন্ত্রীর এপিএস
সর্বাধিক পঠিত
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
টিকিট কাটতে বলায় সন্তানকে বিমানবন্দরে রেখেই চলে যান দম্পতি!
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
পিন নম্বর ছাড়াই সব কার্ডে লেনদেনের সুযোগ
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
নির্বাচন অফিসে গিয়ে আপ্যায়ন চাইলেন হিরো আলম, পেলেন মিষ্টি
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
ইয়েমেনে যাচ্ছিল ইরানের বিপুল অস্ত্র-গোলাবারুদ, আটকালো ফ্রান্স-যুক্তরাষ্ট্র
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ
সাত পদে ১১৭ জনের সরকারি চাকরির সুযোগ