X
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪
১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নির্বাচনের ঘোষণা দিয়ে সেলিম বললেন, ‘গাজী পরিবারের ট্যাংকি ভরে গেছে’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
১৯ মার্চ ২০২৪, ০৩:২৬আপডেট : ১৯ মার্চ ২০২৪, ০৯:৫০

আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন আলোচিত সেলিম প্রধান। সোমবার (১৮ মার্চ) বিকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার ভিংরাবো এলাকায় একটি স্কুল পরিদর্শন শেষে এ ঘোষণা দেন তিনি।

জাপান-বাংলাদেশ সিকিউরিটি প্রিন্টিং পেপার্সের চেয়ারম্যান সেলিম প্রধান বলেন, রূপগঞ্জে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ভয়ে কেউ নির্বাচন করতে আসে না। তাই আমি চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবো। আমি নির্বাচনে নামতে বাধ্য হচ্ছি। কারণ আমি ওয়াদা করেছি রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করে ছাড়বো। এখানে আমরা সবাই একটা পরিবার।

এ সময় নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী ও তার অনুসারীদের নানা কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমার পরিবারের গায়ে হাত দেবে, এটা হতে পারে না। ভালো মানুষগুলো সন্ত্রাসীদের ভয়ে নির্বাচনে আসতে চায় না, কেউ নির্বাচনে আসতে চায় না। এমপি সাহেবের (সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী) পাশে থাকা পিএস-এপিএসরা এসব সন্ত্রাসী লালন-পালন করে।

সেলিম আরও বলেন, গাজী সাহেবের ট্যাংকি, গাজী পরিবারের ট্যাংকি ভরে গেছে, আর জায়গা খালি নেই। বাবা করেছে এমপি নির্বাচন, ছেলে আসছে উপজেলা নির্বাচন করতে, এরপর ছেলের বউ আসবে পৌরসভার মেয়র নির্বাচন করতে। অথচ তারা রূপগঞ্জের কেউ না; তাদের বাড়ি রূপগঞ্জে না, তাদের জন্মস্থান রূপগঞ্জ না। তারা পুরো পরিবার মিলে এখানে এসেছে জমি দখল করতে আর ট্যাংকি ভরতে।

এমপি গাজী বহিরাগতদের কোটিপতি বানিয়েছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, গাজী সাহেব বাহির থেকে রূপগঞ্জে লোক নিয়ে এসে কোটিপতি বানিয়েছে, আর তাদের হাতে তলোয়ার ধরিয়ে দিয়েছে। সন্ত্রাসী বাহিনী তৈরি করেছে। এ ছাড়া জনগণের টাকায় গাজী সেতু, গাজী অডিটেরিয়ামসহ নানা কিছু তৈরি করেছে। অথচ একটা সেতুও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বা তার পরিবারের সদস্যদের নামে করা হয়নি।

হত্যার হুমকি দেওয়া প্রসঙ্গে সেলিম প্রধান বলেন, একদল সন্ত্রাসী কথায় কথায় আমাদের মারার হুমকি দেয়, কবরে পাঠিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়, কাফনের কাপড় পাঠিয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। তাই সরকার ও প্রশাসনকে আমাদের পাশে থাকার অনুরোধ করছি। আমি রূপগঞ্জবাসীর পাশে আছি। এখানে আর চাঁদাবাজি চলবে না, মাদক চলবে না। রূপগঞ্জবাসী আর ভুল করবে না। সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের আর ভোট দেবে না। আমি নির্বাচনে জয়লাভ করলে জাপানের মতো রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করবো।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের এক লাখ টাকা অনুদান দেন সেলিম

সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করার জানিয়ে তিনি বলেন, আমার চেয়ারম্যান নির্বাচন করার কোনও ইচ্ছা ছিল না। কিন্তু আমার রূপগঞ্জবাসীকে বাঁচাতে হলে আমাকে নির্বাচন করতে হবে। তাদের (গাজী দস্তগীর) ভয়ে কেউ নির্বাচনে আসতে চায় না। সম্প্রতি গাউছিয়া মার্কেটে হকার ইস্যুতে এখানকার ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের সঙ্গে পুলিশের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে। সেই দুর্ঘটনার জন্য প্রশাসনের লোকজন দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এরপরও কিশোর গ্যাং ও সন্ত্রাসীরা পুলিশ ফাঁড়িতে ঢিল মেরেছে।

তিনি আরও বলেন, প্রশাসনের ভাইদের অনুরোধ করবো, এসব সন্ত্রাসীকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হোক। আর যদি তাদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা না নেওয়া হয়, তাহলে এরা প্রশ্রয় পেয়ে বেপরোয়া হয়ে যাবে। এসব সন্ত্রাসীর হাত থেকে আমার রূপগঞ্জকে বাঁচাতে হলে আমাকে নির্বাচন করতেই হবে।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও স্কুলশিক্ষকদের উদ্দেশ করে সেলিম বলেন, আমি তোমাদের সঙ্গে আছি। তোমরা সবাই আমাদের পরিবার। আমি তোমাদেরই একজন। আমাকে তোমরা বন্ধু মনে করবে। আমি বন্ধু হয়ে পাশে থাকতে চাই। রূপগঞ্জবাসীকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে মুক্ত না করা পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের তৈরি ফুল ও মালা আমার কাছে থাকবে।

এ সময় তিনি রূপগঞ্জের ভিংরাবো এলাকায় অবস্থিত অনির্বাণ ডিজেবল চাইল্ড কেয়ার স্কুল অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টারের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সহায়তাস্বরূপ এক লাখ টাকা অনুদান দেন। এ ছাড়া তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি।

প্রসঙ্গত, আগামী ১১ মে দ্বিতীয় ধাপে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সেই নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজীর ছেলে পাপ্পা গাজীর নির্বাচন করার কথা শোনা যাচ্ছে।

কে এই সেলিম প্রধান
২০১৯ সালে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চলাকালে সে বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর থাই এয়ারওয়েজের ফ্লাইটে ব্যাংকক যাওয়ার সময় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সেলিম প্রধানকে আটক করে র‌্যাব-১। এরপর তার গুলশান, বনানীর বাসা ও অফিসে অভিযান চালিয়ে ২৯ লাখ টাকা, বিপুল বিদেশি মদ ও বিভিন্ন দেশের মুদ্রা ও হরিণের চামড়া জব্দ করা হয়। তখনই বন্য প্রাণী সংরক্ষণ আইনে ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠান ভ্রাম্যমাণ আদালত।

পরদিন গুলশান থানায় তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও মানি লন্ডারিং আইনে দুটি মামলা করে র‌্যাব। এরপর দুটি মামলা করে দুদক। ২০২২ সালের ২৪ আগস্ট মহানগর দায়রা জজ আদালত থেকে মাদক মামলায় জামিন পান সেলিম।

জামিন পেয়ে নিজ এলাকা রূপগঞ্জে ফিরেই রীতিমতো হুংকার দিতে থাকেন সেলিম। প্রায় সময় অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান। তখন গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, ‘আই এ্যাম বেক, আই ডোন্ট কেয়ার এনি ওয়ান। আমার বাকি জীবন রূপগঞ্জেই সময় দেবো। গ্যারান্টি, আমি রূপগঞ্জকে পরিবর্তন করে ছাড়বো।’

/এনএআর/
সম্পর্কিত
সেলিম প্রধানের বাড়িতে হামলা ও গুলি, অভিযোগ করবেন রাশিয়ান অ্যাম্বাসিতে
বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে এসে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর মৃত্যু
জাল ভোট দিতে লাইনে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে তর্ক, দুই যুবক আটক
সর্বশেষ খবর
দুদিন পর সূর্যের দেখা, স্থল নিম্নচাপ সিলেটে
দুদিন পর সূর্যের দেখা, স্থল নিম্নচাপ সিলেটে
আশ্রয়কেন্দ্র ফেরার পথে পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু
আশ্রয়কেন্দ্র ফেরার পথে পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু
ম্যাংগো ফিরনি বানাবেন যেভাবে
ম্যাংগো ফিরনি বানাবেন যেভাবে
ইসরায়েলের ওপর নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের আলোচনা
ইসরায়েলের ওপর নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ইইউ পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের আলোচনা
সর্বাধিক পঠিত
সর্বোচ্চ উপকার পেতে কাঠবাদাম কীভাবে খাবেন?
সর্বোচ্চ উপকার পেতে কাঠবাদাম কীভাবে খাবেন?
বৃষ্টি থাকবে মঙ্গলবারও  
বৃষ্টি থাকবে মঙ্গলবারও  
ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান
ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান
রাবিতে খাবারে সিগারেট: আন্দোলন-ভাঙচুরে জড়িতদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত
রাবিতে খাবারে সিগারেট: আন্দোলন-ভাঙচুরে জড়িতদের বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি
এবারও ধরাছোঁয়ার বাইরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা কমিটি