শতবর্ষে ভূরুঙ্গামারী পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:৪৮, জানুয়ারি ১৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪২, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

‘এসো মিলি প্রাণে প্রাণে’ স্লোগান ধারণ করে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষ পূর্তি উৎসব শুরু হয়েছে। রবিবার (১৯ জানুয়ারি) সকালে বিদ্যালয় মাঠ থেকে একটি বর্ণিল আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়। শোভাযাত্রায় বিদ্যালয়ের নবীন ও প্রবীণ শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। শিক্ষার্থীদের পদচারণায় বিদ্যালয় মাঠ মিলন মেলায় পরিণত হয়।

শতবর্ষ উপলক্ষে বিদ্যালয়কে বর্ণিল সাজে সজ্জিত করা হয়েছে। দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে জাতীয় পতাকা ও উৎসব, পতাকা উত্তোলন, নবীন-প্রবীণ শিক্ষার্থীদের স্মৃতিচারণ এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। বিশেষ অতিথি ছিলেন কুড়িগ্রাম-১ আসনের সংসদ্য সদস্য আছলাম হোসেন সওদাগার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলী, জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, জেলা পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খান বিপিএম, ভূরুঙ্গামারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএইচএম মাগফুরুল হাসান আব্বাসীসহ অনেকে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক রেজিস্ট্রার ও শতবর্ষ উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর মোজাম্মেল হক। পরে সন্ধ্যায় আতশবাজি ও আলোকসজ্জার মাধ্যমে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান শুরু হয়।

উল্লেখ্য, ভূরুঙ্গামারী পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ১৯২০ সালের ১ জানুয়ারি ভূরুঙ্গামারী মাইনর ইংলিশ স্কুল (৬ষ্ঠ শ্রেণি পর্যন্ত) হিসেবে যাত্রা শুরু করে। পরবর্তীতে ১৯৩৪-৩৫ সালে স্কুলটি পূর্ণাঙ্গ উচ্চবিদ্যালয় হিসেবে যাত্রা শুরু করে। ওই সময়ই স্কুলটি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বীকৃতি লাভ করে। নদী ভাঙনের ফলে ১৯৬৪-৬৫ সালে স্কুলটিকে বর্তমান স্থানে আনা হয় এবং ভূরুঙ্গামারী পাইলট হাইস্কুল নামে পরিচিতি লাভ করে। ২০১৮ সালের ২৮ মে স্কুলটি সরকারিকরণ করা হয়।

/এআর/

লাইভ

টপ