মৎস্য ঘেরে পাইপ বসানোর সময় গ্যাস নির্গমন, এলাকায় চাঞ্চল্য

Send
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৩:৩৫, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৫৪, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের ভাড়াশিমলায় একটি মৎস্য ঘেরে শ্যালো ইঞ্জিনে পানি তোলার উদ্দেশ্যে পাইপ বসানোর সময় প্রবল বেগে গ্যাস নির্গমনের ঘটনা ঘটেছে। দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা গ্যাস নির্গমন বন্ধ করতে সফল হন। তবে এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, ভাড়াশিমলা গ্রামের মৃত মোজাহার গাজীর ছেলে আবু বক্কর (৬৮) ভাড়াশিমলা এমজেএফ বিশেষ প্রতিবন্ধী স্কুলের পেছনে অবস্থিত নিজস্ব ও লিজ নেওয়া প্রায় ৩ বিঘা জমিতে নতুন মৎস্য ঘের খনন করেছেন। ওই ঘেরে পানি তোলার উদ্দেশ্যে তিনি ১৫ ফেব্রুয়ারি পাইপ বসানোর উদ্যোগ নেন। ১০৫ ফুট পাইপ বসানোর পর শনিবার বেলা ১টার দিকে হঠাৎ পাইপ দিয়ে গ্যাস নির্গমন শুরু হয়। এসময় গ্যাসের উচ্চতা ছিল প্রায় ৫০ ফুট। পরবর্তীতে কিছুটা কমলেও অব্যাহতভাবে গ্যাস বের হতে থাকায় তিনি স্থানীয় ৬নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য শেখ শামছুর রহমানের মাধ্যমে প্রশাসনকে অবহিত করার পাশাপাশি ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা দীর্ঘ প্রচেষ্টা চালিয়ে বালু ও মাটি চাপা দিয়ে গ্যাস নির্গমন বন্ধ করতে সক্ষম হন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক রাসেল, থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেলোয়ার হুসেন, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এসএম আজিজুর রহমান ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা। উৎসুক জনতাও ভিড় করতে থাকে সেখানে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক রাসেল বলেন, ‘এখানে গ্যাসের মজুদ আছে কিনা তা এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়। ফলস লেয়ার থেকেই গ্যাস বের হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বাপেক্সকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। তারা দ্রুত এসে বিষয়টি যাচাই করবে। এরপর বিস্তারিত জানা যাবে। আপাতত গ্যাস নির্গমন বন্ধ করা হয়েছে এবং নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।’

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ