দিনাজপুর বোর্ডে পাসের হার কমেছে, গণিতেই ফেল ১৯ হাজার

Send
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৪২, মে ৩১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:৩২, জুন ০১, ২০২০

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড২০২০ সালের দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি পরীক্ষার পাসের হার গতবারের তুলনায় কমেছে। এ বছর পাসের হার ৮২ দশমিক ৭৩। ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীদের পাশের হার বেশি। জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। এই বোর্ডের অধীনে একটি বিদ্যালয়ের কেউ পাশ করেনি। কেবল গণিতেই অকৃতকার্য হয়েছেন প্রায় ১৯ হাজার পরীক্ষার্থী। রোববার (৩১ মে) দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক তোফাজ্জুর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব  তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এবার দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডে পাশের হার ৮২ দশমিক ৭৩ ভাগ। গতবার পাসের হার ছিল ৮৪ দশমিক ১০ ভাগ। মোট পরীক্ষার্থী ১ লক্ষ ৯২ হাজার ৯৭৯ জনের মধ্যে পরীক্ষায় অংশ নেন ১ লক্ষ ৯১ হাজার ৮২১ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১ লাখ ৫৮ হাজার ৬৮৫ জন। ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীদের পাশের হার বেশি। ছাত্রদের পাশের হার ৮১ দশমিক ২২। আর ছাত্রী পাশের হার ৮৪ দশমিক ৩২ ভাগ। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৮৬ জন। এর মধ্যে ৬ হাজার ৩২৬ জন ছাত্র ও ৫ হাজার ৭৬০ জন ছাত্রী। গতবারের তুলনায় এবার ৩ হাজার ৬৩ জন জিপিএ-৫ বেশি পেয়েছে।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান জানান, এবারের এসএসসি পরীক্ষায় কেবল গণিত বিষয়ে অকৃতকার্য পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৯ হাজার ২৯৬। ইংরেজিতে অকৃতকার্য হয়েছেন ৮ হাজার ৭৩৮ জন। গ্রামের স্কুলগুলোতে গণিত ও ইংরেজিতে অভিজ্ঞ ও দক্ষ শিক্ষকের অভাবে ছাত্র-ছাত্রীরা কাঙ্ক্ষিত ভালো ফল করতে পারছেন না। উপজেলাভিত্তিক শিক্ষক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গণিত ও ইংরেজির ব্যাপারে আরও বেশি কার্যকর ও মনোযোগী হওয়া প্রয়োজন।

/এমআর/

লাইভ

টপ