যশোরের ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা কাবুল মারা গেছেন

Send
যশোর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৩:৪৪, জুন ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৩:৫৭, জুন ০১, ২০২০

BT-Newযশোরের ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের পরিচিতমুখ কমরেড মোস্তাফিজুর রহমান কাবুল (৬০) মারা গেছেন। ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার (৩১ মে) রাত ৯টার দিকে ঢাকার একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার মামা অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান সাবু এবং ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদসহ তার ঘনিষ্টজনরা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান সাবু জানান, গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় রবিবার কাবুলকে বঙ্গবন্ধু মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ৯টার কিছু আগে তিনি সেখানে মারা যান।

মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। সামরিক শাসক এরশাদের শাসনামলে গ্রেফতার হয়ে অমানবিক নির্যাতনের শিকার হলেও তিনি রাজনীতি ছাড়েননি। এছাড়া তিনি কলাম লেখক হিসেবে এই অঞ্চলে সুপরিচিত ছিলেন। যশোর ইনস্টিটিউটের কার্যকরী কমিটিতে দুই দফা নির্বাচিত হয়ে তিনি লাইব্রেরি সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ছিলেন নান্নু চৌধুরী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের গভর্নিং বডির সদস্য।

তার সহকর্মীরা জানান, এপ্রিলের মাঝামাঝি সময়ে মোস্তাফিজুর রহমান কাবুল অসুস্থ হয়ে পড়েন। ২২ এপ্রিল যশোরের কুইন্স হসপিটালে এমআরআই করলে তার মাথায় মাল্টিপল টিউমারের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। এরপর তিনি ঢাকায় বিভিন্ন হাসপাতালে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করান। এতে তার ফুসফুসের ক্যানসারও ধরা পড়ে। মহাখালী ক্যানসার হাসপাতালে কাবুলের শরীরে পাঁচ দফা রেডিয়েশন দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু কেমোথেরাপি দেওয়ার সুযোগ হয়নি।

মোস্তাফিজুর রহমান কাবুল যশোরের মণিরামপুর উপজেলার ঝাঁপা গ্রামে জন্ম নেন। তিনি জনতা ব্যাংকে চাকরি করতেন। সেই সূত্রে যশোর শহরের বারান্দিপাড়ায় স্থায়ীভাবে বসবাস করতেন তিনি। কাবুল স্ত্রী, দুই ছেলে-মেয়ে, বাবাসহ বহু শুভাকাঙ্ক্ষী ও অনুসারী রেখে গেছেন।

/এমএএ/

লাইভ

টপ