করোনা: নারায়ণগঞ্জ, পঞ্চগড় ও কুমিল্লায় দুই নারীসহ ৩ জনের মৃত্যু

Send
বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
প্রকাশিত : ০১:৫৬, জুলাই ০৯, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০২, জুলাই ০৯, ২০২০

করোনাভাইরাস (গ্রাফিক্স: মারুফ রেহান) 

নারায়ণগঞ্জ, পঞ্চগড় ও কুমিল্লায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই নারীসহ আরও তিন ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে দুজন বাসায় হোম আইসোলেশনে ও একজন হাসপাতালে মারা যান। এছাড়াও বিভিন্ন জেলায় আজও আক্রান্ত হয়েছেন কয়েক শতাধিক। তবে বগুড়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের হার কমার পাশাপাশি সুস্থতা বাড়ছে।

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, নারায়ণগঞ্জে করোনায় নতুন করে আরও এক নারীর (৫০) মৃত্যু হয়েছে। তিনি সিটি করপোরেশন এলাকার বাসিন্দা। এ নিয়ে জেলায় মোট ১২০ জনের মৃত্যু হলো। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫ হাজার ৪২৪ জনে। সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৪ জন।

বুধবার (৮ জুলাই) জেলা সিভিল সার্জনের অফিস সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পঞ্চগড়ে গৃহবধূর মৃত্যু

পঞ্চগড় প্রতিনিধি জানান, পঞ্চগড়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে কুলসুম বেগম (৫০) নামে গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৮ জুলাই) পঞ্চগড় সদর উপজেলার পৌর এলাকার রাজনগরের নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। তার স্বামীর নাম ইসমাইল হোসেন খোকন। তিনি করোনা পজিটিভ হয়ে হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন।

মৃতের পরিবার জানান, কুলসুম বেগম দীর্ঘদিন ধরে কিডনি সমস্যায় ভুগছিলেন। ২৯ জুন সর্বশেষ রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে তার কিডনি ডায়ালাইসিস করা হয়। এরপর তিনি করোনা পজিটিভ হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ফোন করে চিকিৎসা করাতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

পঞ্চগড় সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আফরোজা বেগম রিনা জানান, কুলসুম বেগম তার ছেলের মাধ্যমে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) গোলাম রব্বানী জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ওই গৃহবধূর দাফন করা হবে।

পঞ্চগড়ের সিভিল সার্জন ডা. মো. ফজলুর রহমান জানান, পঞ্চগড়ে করোনায় ইতোপূর্বে আরও তিন জন মারা যান। তারা হলেন সদর উপজেলার মৌলভী পাড়ার ৭৫ বছর বয়সী এক মুক্তিযোদ্ধা, দেবীগঞ্জ উপজেলার ভাউলাগঞ্জে ৬৬ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ এবং বোদা উপজেলার সাকোয়ায় ৬৪ বছর বয়সী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান।

কুমিল্লায় একজনের মৃত্যু

কুমিল্লা প্রতিনিধি জানান, কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত হয়ে আরও একজন মারা গেছেন। বুধবার (৮ জুলাই) সকালে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. সাজেদা খাতুন এই তথ্য জানিয়েছেন।

মৃত শফিকুর রহমান চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার কেরামত আলীর ছেলে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আরও ৬০ জন আক্রান্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আরও ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ১৩৯৯ জনে। বুধবার (৮ জুলাই) রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মুহাম্মদ একরাম উল্লাহ।

তিনি জানান, সরকারি ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারাল সেন্টার ল্যাবে ২৬৩ টি নমুনা পরীক্ষায় ৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতালের ল্যাবে ৪৯ টি নমুনা পরীক্ষায় ১৫ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলায় ২০ জন, নাসিরনগরে ২, নবীনগরে ১০, আশুগঞ্জে ৭, বাঞ্ছারামপুরে ৪, আখাউড়ায় ৪, সরাইলে ৬, বিজয়নগরে ৩ এবং কসবায় ৪ জন।

জেলায় এ পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৮৮ জন। মারা গেছেন ২৩ জন।

বগুড়ায় নতুন ৫৫জনসহ আক্রান্ত ৩৫০১

বগুড়া প্রতিনিধি জানান, বগুড়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের হার কমার পাশাপাশি সুস্থতা বাড়ছে। জেলায় বুধবার (৮ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৫৫ জন করোনা পজিটিভ হয়েছেন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৩৫৭ জন এবং মারা গেছেন ৬৪ জন।

ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য দিয়েছেন।

বগুড়া সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সূত্র জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৩ জনের পজিটিভ ধরা পড়ে। এছাড়া টিএমএসএস মেডিক্যাল কলেজ ও রফাতউল্লাহ কমিউনিটি হাসপাতাল ল্যাবে ৬০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ২২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।

ডা. মোস্তাফিজুর রহমান তুহিন জানান, ১ এপ্রিল থেকে ৮ জুলাই দুপুর পর্যন্ত জেলায় করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন তিন হাজার ৫০১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭৯ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৩৫৭ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৪ জন। হাসপাতালের আইসোলেশন ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন দুই হাজার ৮০ জন।

নওগাঁয় নতুন ২ জনসহ মোট আক্রান্ত ৫৮৬

নওগাঁ প্রতিনিধি জানান, নওগাঁয় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২ ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়ছে। আক্রান্তদের একজন মান্দা এবং আরেকজন নিয়ামতপুর উপজলোর। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮৬।

এদিকে ইতোমধ্যে মৃত মান্দা উপজেলা চেয়ারম্যান ও স্থানীয় উপজলো আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স ম জসিমুদ্দিনের করোনায় আক্রান্ত ছিলেন বলে রির্পোট এসেছে। এ নিয়ে জেলায় করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮ জনে। ২৪ ঘণ্টায় ২৩ জনসহ মোট সুস্থ হয়েছেন ৪২৫ জন।

সখীপুরে পৌরমেয়রসহ আক্রান্ত ৪ জন

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি জানান, টাঙ্গাইলের সখীপুর পৌরসভার মেয়র মুক্তিযোদ্ধা আবু হানিফ আজাদ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমানে ঢাকার আনোয়ার খান মর্ডান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

বুধবার (৮ জুলাই) সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুস সোবহান এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

ডা. আব্দুস সোবহান বলেন, ৬ জুলাই পৌর মেয়রের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়। পরদিন তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। সেদিন রাতেই তিনি চিকিৎসার জন্য ঢাকায় যান। উপজেলায় একইদিনে আরও তিনজন করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে সখীপুরে করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৩২ জনে।

/আরআইজে/টিএন/

লাইভ

টপ