ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেলো স্কুলছাত্রী

Send
শেরপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:৩০, আগস্ট ০৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৬, আগস্ট ০৬, ২০২০

 

বাল্যবিয়ে (প্রতীকী ছবি)শেরপুরের নকলায় ইউএনওর হস্তক্ষেপে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বাল্যবিয়ে বন্ধ হয়েছে। বুধবার (৫ আগস্ট)) বিকালে উপজেলার ২ নম্বর নকলা ইউপির ছত্রকোনা এলাকায় ওই বিয়ের আয়োজন চলছিলো।

নকলার ইউএনও অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ছত্রকোনা এলাকার আক্তার হোসেনের কন্যা ও অঙ্কুর বিদ্যাপীঠের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীর সঙ্গে একই এলাকার হাসেন আলীর বিয়ের আয়োজন চলছিলো। এমন খবর পেয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির হন ইউএনও জাহিদুর রহমান। এ সময় তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে মেয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেবেন না মর্মে কনের বাবা-মায়ের কাছ থেকে মুচলেকা আদায় করেন।

পাশাপাশি করোনাকালে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি না মানার দায়ে কনের বাবাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও ইউএনও জাহিদুর রহমান বলেন, নকলাকে জেলার প্রথম বাল্যবিয়ে মুক্ত উপজেলা ঘোষণা করা হয়েছে। এ উপজেলায় বাল্যবিয়ে সম্পর্কিত কোনও আয়োজন বরদাশত করা হবে না। আর ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা ঘটলে সংশ্লিষ্ট পরিবারের অভিভাবক ও বরসহ আয়োজকদেরকেও আইনের আওতায় আনা হবে বলে তিনি হুঁশিয়ারি দেন।

 

/টিটি/

লাইভ

টপ