‌‘করোনার হটস্পটে পরিণত হতে পারে টাঙ্গাইল’

Send
এনায়েত করিম বিজয়, টাঙ্গাইল
প্রকাশিত : ১৫:১১, আগস্ট ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:১১, আগস্ট ১৪, ২০২০

টাঙ্গাইলের পথে মাস্ক ছাড়াই চলাচলটাঙ্গাইলে অধিকাংশ মানুষ মাস্ক পরছেন না। বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) দুপুরে টাঙ্গাইল পুরাতন বাসস্ট্যান্ড, নতুন বাসস্ট্যান্ড, নিরালা মোড়, টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতাল চত্বরসহ শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে ঘুরে দেখা যায়, অধিকাংশ মানুষ মাস্ক না পরেই চলাচল করছেন। পথচারীদের একশ’ জনের মধ্যে ৬০ জনের মুখেই মাস্ক নেই। বিভিন্ন যানবাহনে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে গাদাগাদি করে মানুষকে যাতায়াত করতে দেখা গেছে। কিছু কিছু চালককেও মাস্ক ছাড়া যানবাহন চালাতে দেখা গেছে। জেলা প্রশাসন বলছে,  এভাবে চলতে থাকলে টাঙ্গাইল করোনার হটস্পটে পরিণত হতে পারে। 

নতুন বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় পথচারী ইসমাইল হোসাইনের সঙ্গে। তখন তার মুখে মাস্ক ছিল না। মাস্ক কই জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, ‘মাস্ক পকেটে রয়েছে। অভ্যাস নেই মাস্ক পরার। এ জন্য পরা হয় না। মাস্ক পরলে অনেক গরম লাগে।’ 

টাঙ্গাইলের পথে মাস্ক ছাড়াই চলাচলকথা হয় পথচারী জিন্নার সঙ্গে। তখন তার মাস্ক মুখের নিচে ঝুলানো ছিল। মাস্ক মুখের নিচে কেন জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাসের জন্যও ভয় হয়। কিন্তু অভ্যাস না থাকা ও গরমের কারণে মাস্ক বেশি সময় মুখে রাখতে পারি না। শুনেছি ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান চালিয়ে জরিমানা করে—এ জন্য মাস্ক সঙ্গে রেখেছি।’

এদিকে, টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জেলার ১২টি উপজেলায় এ পর্যন্ত এক হাজার ৯৩৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও ৬২৯ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মুখের নিচে মাস্ক রাখা হয়েছেসচেতন মহলের দাবি, জেলা শহরসহ বিভিন্ন উপজেলায় যানবাহন, শপিংমল, হাট-বাজারসহ পিকনিক স্পর্টে মানুষ স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অবাধে চলাফেরা করছে। এভাবে চলাচল করতে থাকলে টাঙ্গাইল করোনার হটস্পটে পরিণত হতে পারে। করোনা বিস্তার রোধে এখনি কার্যকরি পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানান তারা।

টাঙ্গাইল সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. মোশারফ হোসেন বলেন, ‘শহরে প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। মানুষ মাস্ক ছাড়াই চলাচল করছে। এভাবে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে।’ মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে নিয়মিত সচেতন করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

মাস্ক ছাড়াই চলছে মানুষজনটাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট আল মামুন বলেন, ‘স্বাস্থ্যবিধির ওপর জেলা সদরসহ উপজেলাগুলোতে নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। জরিমানাও করা হয়। দরিদ্র কেউ থাকলে তাকে মাস্ক দেওয়া হচ্ছে। গণপরিবহনেও অভিযান চালানো হয়েছে। নিয়মিত অভিযান চলছে। তারপরও মানুষ নিজে থেকে সচেতন হচ্ছে না। মানুষকে সচেতন হতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি না মানায় টাঙ্গাইলে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে টাঙ্গাইল করোনার হটস্পটে পরিণত হতে পারে।’

 

 

/আইএ/

লাইভ

টপ