X
সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
১১ আশ্বিন ১৪২৯

রাজশাহীর বাজারেই আম্রপালির কেজি ১৭০ টাকা

দুলাল আবদুল্লাহ, রাজশাহী
১৮ জুলাই ২০২২, ২২:৩৭আপডেট : ১৮ জুলাই ২০২২, ২২:৩৭

মৌসুমের শেষের দিকে রাজশাহীর বাজারে আমের সরবরাহ কমেছে। একইসঙ্গে বেড়েছে দাম। প্রতিমণ আমে দাম বেড়েছে এক থেকে দেড় হাজার টাকা। ভালো দাম পেয়ে খুশি চাষিসহ বিক্রেতারা।

সোমবার (১৮ জুলাই) রাজশাহীর বানেশ্বর বাজারসহ নগরীর সাহেব বাজার, কাজলা মোড়, শিরোইল ঢাকা বাসস্ট্যান্ড ও রেল গেটের মোকামগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাজারে হিমসাগর, গোপালভোগ, আঁটি, ল্যাংড়া আম নেই। বাজারে এখন শুধু ফজলি, আশ্বিনা, আম্রপালি পাওয়া যাচ্ছে। আশ্বিনার সরবরাহ অন্যান্য আমের তুলনায় বেশি। তবে দাম ও গ্রাহক পছন্দের শীর্ষে রয়েছে আম্রপালি।

রাজশাহীর মোকামগুলোতে আম্রপালি পাইকারিতে সাড়ে পাঁচ থেকে ছয় হাজার, আশ্বিনা ৮০০ থেকে বেড়ে এখন ১৬০০, ফজলি সাড়ে তিন থেকে সাড়ে চার হাজারে মণ বিক্রি হচ্ছে। বারি-৪ জাতের আম সাড়ে চার হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকা মণ।

রাজশাহীর খুচরা বাজারে ফজলি ও সুরমা ফজলি প্রতিকেজি ৯০ থেকে ১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে, আম্রপালি আকার ভেদে বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৭০ টাকা কেজি দরে, বারি-৪ বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা দরে।

রাজশাহীর বাজারেই আম্রপালির কেজি ১৭০ টাকা

আম বিক্রেতারা বলছেন, প্রতি বছর মৌসুমের শেষ সময়ে সরবরাহ কম থাকায় বাগান থেকে বেশি দামে আম সংগ্রহ করতে হয়। এ বছর রাজশাহীর বাজারে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম কম এসেছে। বাজারের বেশিরভাগ আম্রপালি ও বারি-৪ নওগাঁর সাপাহারের বিভিন্ন বাগান থেকে এসেছে। ফজলি আমগুলো রাজশাহীর বাগানের। হাঁড়িভাঙ্গা আমগুলো দিনাজপুর ও ঠাকুরগাঁওয়ের।

সাহেব বাজারের আম বিক্রেতা মো. রায়হান শেখ বলেন, বর্তমানে আমের বেচাকেনা কম। দাম তুলনামূলকভাবে বেশি রয়েছে। ঈদের আগে যে আম্রপালি ৯০ টাকা কেজি বিক্রি করেছি। সেই আম এখন ১৩০ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি করছি। জুলাই মাস শেষ হতে হতে আগস্টের শুরুর দিকে বাকি বাগানগুলোর আম প্রায় শেষ হয়ে যাবে। এখন আম্রপালির ভালো চাহিদা আছে।

নগরীর শিরোইল বাসস্ট্যান্ডে আম কিনতে আসা জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, আমি সুরমা ফজলি ১০ কেজি ও আম্রপালি ১০ কেজি নিলাম। আম্রপালি ১৭০ টাকা দরে কিনলাম।

রাজশাহীর বাজারেই আম্রপালির কেজি ১৭০ টাকা

রাজশাহী জেলায় চলতি মৌসুমে ১৮ হাজার ৫১৫ হেক্টর জমিতে আমের আবাদ হয়েছে। ফলনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল দুই লাখ ১৭ হাজার টন। যার বাজারমূল্য প্রায় ৮৬ কোটি ৮০ লাখ টাকা। গত বছর ১৭ হাজার ৬৮৬ হেক্টর জমিতে আম আবাদ হয়েছিল। হেক্টরপ্রতি গড় ফলন হয়েছিল ১১ দশমিক ৯৬ টন। মোট উৎপাদন হয়েছিল এক লাখ ৭৯ হাজার ৫৪০ দশমিক ৫৩ টন। যার বিক্রয়মূল্য ছিল প্রায় ৭১ কোটি ৮১ লাখ ৬২ হাজার ১২০ টাকা।

আমের বর্তমান বাজার সম্পর্কে বানেশ্বর আম ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাটের পরেই বানেশ্বর বাজার। বাজারে এখন আশ্বিনা আম বেশি। তবে ফজলি, আম্রপালি বেশি আছে। গত পাঁচ বছরের মধ্যে এই সময়ে এরকম দামে আম বিক্রি হয়নি। দাম ভালোই আছে। চাষিরাও খুশি।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক মোজদার হোসেন জানান, বাজারে গুটি জাতের আম সবার আগে আসে। পর্যায়ক্রমে গোপালভোগ, ল্যাংড়া, ফজলি, আশ্বিনা আম বাজারে আসে। এরপর বাজারে আসে খিরসাপাত, হিমসাগর ও লক্ষণভোগ। মৌসুমের শেষের দিকে আশ্বিনাসহ বারি-৪ আসে। এটার দাম তুলনামূলক ভালোই থাকে।

/এফআর/
সম্পর্কিত
হংকংয়ে গেলো চাঁপাইয়ের আম্রপালি 
হংকংয়ে গেলো চাঁপাইয়ের আম্রপালি 
মেলেনি সাড়া, বন্ধ হলো ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন
মেলেনি সাড়া, বন্ধ হলো ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন
মমতার জন্য হাঁড়িভাঙা আম পাঠালেন শেখ হাসিনা
মমতার জন্য হাঁড়িভাঙা আম পাঠালেন শেখ হাসিনা
চাঁপাই থেকে ৭৬৪৫ কেজি আম নিয়ে ঢাকার পথে ম্যাংগো স্পেশাল
চাঁপাই থেকে ৭৬৪৫ কেজি আম নিয়ে ঢাকার পথে ম্যাংগো স্পেশাল
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
জ্যাকুলিনের জামিন
জ্যাকুলিনের জামিন
ময়মনসিংহে সাফজয়ী ৮ ফুটবলারকে সংবর্ধনা,  দুই দিনব্যাপী আয়োজন
ময়মনসিংহে সাফজয়ী ৮ ফুটবলারকে সংবর্ধনা, দুই দিনব্যাপী আয়োজন
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশনা বিভাগের কাজ কী?
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকাশনা বিভাগের কাজ কী?
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে সিপিএলে সাকিব ঝলক
টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে সিপিএলে সাকিব ঝলক
এ বিভাগের সর্বশেষ
হংকংয়ে গেলো চাঁপাইয়ের আম্রপালি 
হংকংয়ে গেলো চাঁপাইয়ের আম্রপালি 
মেলেনি সাড়া, বন্ধ হলো ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন
মেলেনি সাড়া, বন্ধ হলো ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন
মমতার জন্য হাঁড়িভাঙা আম পাঠালেন শেখ হাসিনা
মমতার জন্য হাঁড়িভাঙা আম পাঠালেন শেখ হাসিনা
চাঁপাই থেকে ৭৬৪৫ কেজি আম নিয়ে ঢাকার পথে ম্যাংগো স্পেশাল
চাঁপাই থেকে ৭৬৪৫ কেজি আম নিয়ে ঢাকার পথে ম্যাংগো স্পেশাল
১ টাকা ভাড়ায় রাজশাহী থেকে ঢাকায় আসছে আম
১ টাকা ভাড়ায় রাজশাহী থেকে ঢাকায় আসছে আম