X
রবিবার, ১৪ আগস্ট ২০২২
৩০ শ্রাবণ ১৪২৯

চাঁদাবাজির অভিযোগে পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

বগুড়া প্রতিনিধি
০৫ আগস্ট ২০২২, ২০:৫০আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২২, ২০:৫০

সোর্সকে সঙ্গে নিয়ে বগুড়া শহরের একটি বাড়িতে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে জেলার সদর থানার এসআই মাসুদ রানার বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় তাকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। শুক্রবার (৫ আগস্ট) বিকালে শহরের নাটাইপাড়ায় একটি বাড়িতে গেলে তাদেরকে অবরুদ্ধ করে রাখেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। পরে থানা থেকে অতিরিক্ত ফোর্স গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন।

এই ঘটনায় জনগণের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। তারা সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে জড়িতদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী জানান, মোবাইল ফোনে অনলাইনে জুয়া খেলার খবর পেয়ে ওই বাড়িতে গিয়েছিলেন সেই কর্মকর্তা। চাঁদাবাজির অভিযোগ আসায় এসআই মাসুদ রানাকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত ও সোর্স ইকবাল হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ বিষয়ে সাত দিনের মধ্যে তদন্ত করে প্রতিবেদন দিতে সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরাফত ইসলামকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগে জানা গেছে, বগুড়া সদর থানার এসআই মাসুদ রানা তার সোর্স ইকবাল হোসেনকে নিয়ে শুক্রবার বিকালে শহরের নাটাইপাড়া নাপিতপাড়ায় তরুণ কুমার শীলের বাড়িতে যান। তারা পুলিশ পরিচয়ে বাড়িতে ঢুকে প্রথমে তরুণ কুমারের মোবাইল ফোন কেড়ে নেন। এ সময় ওই বাড়িতে কয়েকজন মোবাইল ফোনে অনলাইন জুয়া খেলছিলেন। সোর্স বর্তমানে বগুড়া শহরের জলেশ্বরীতলায় ভাড়া বাড়িতে বসবাসকারী সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের পোরজান এলাকার আফসার আলীর ছেলে ইকবাল হোসেন ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। 
বাড়ির লোকজন চাঁদা দাবির বিষয়টি মোবাইল ফোনে ভিডিও করতে শুরু করেন। তখন এসআই মাসুদ রানা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের মারধর করেন। নারীদেরও মারধর করার অভিযোগ ওঠে। এতে প্রতিবেশীরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশ কর্মকর্তা ও তার সোর্সকে অবরুদ্ধ করেন। তারা পুলিশের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকেন। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে জড়িতদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে জনগণ শান্ত হন। তখন এসআই মাসুদ রানা ও সোর্স ইকবাল হোসেনকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়।

সদর থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, চাঁদাবাজির অভিযোগ ওঠার পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশ সুপারের নির্দেশে এসআই মাসুদ রানাকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। তার সোর্স ইকবাল হোসেনকে আটক করে হাজতে রাখা হয়েছে। অভিযোগ পেলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া পুলিশ সুপার এ ঘটনা তদন্ত করতে সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরাফত ইসলামকে দায়িত্ব দিয়েছেন।

/এফআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
মাটি মানুষের নেতা আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের গল্প
মাটি মানুষের নেতা আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের গল্প
‘বিএনপি পাকিস্তানের সঙ্গে কনফেডারেশন করার চেষ্টা করেছিল’
‘বিএনপি পাকিস্তানের সঙ্গে কনফেডারেশন করার চেষ্টা করেছিল’
ময়নাতদন্ত শেষে সেই শিক্ষিকার লাশ দাফন
ময়নাতদন্ত শেষে সেই শিক্ষিকার লাশ দাফন
ওয়েবম্যাট্রিক্স এর র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে ঢাবি
ওয়েবম্যাট্রিক্স এর র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে ঢাবি
এ বিভাগের সর্বশেষ
কলেজছাত্রকে বিয়ে করা সেই শিক্ষিকার লাশ উদ্ধার
কলেজছাত্রকে বিয়ে করা সেই শিক্ষিকার লাশ উদ্ধার
ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো ২ জনের
ট্রাকচাপায় প্রাণ গেলো ২ জনের
এক মোটরসাইকেলে ৩ জন, সংঘর্ষে প্রাণ গেলো বাবা ও শিশু সন্তানের
এক মোটরসাইকেলে ৩ জন, সংঘর্ষে প্রাণ গেলো বাবা ও শিশু সন্তানের
মা হলো ‘সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার’ কিশোরী
মা হলো ‘সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার’ কিশোরী
জন্মদিনে স্কুলছাত্রকে গাছে বেঁধে মাথায় ৫০টি ডিম ভাঙলো বন্ধুরা
জন্মদিনে স্কুলছাত্রকে গাছে বেঁধে মাথায় ৫০টি ডিম ভাঙলো বন্ধুরা