X
সোমবার, ২৭ মে ২০২৪
১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
বরেন্দ্র অঞ্চলে পানির তীব্র সংকট

৭০০ ফুট নিচে গিয়েও পাওয়া যাচ্ছে না পানি, মানুষের হাহাকার

দুলাল আবদুল্লাহ, রাজশাহী
২২ মার্চ ২০২৩, ০৯:০০আপডেট : ২২ মার্চ ২০২৩, ১৯:৪৯

বরেন্দ্র অঞ্চলে পানির সংকট দীর্ঘদিনের। দিন দিন এই অঞ্চলে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর দ্রুত নিচে নেমে যাচ্ছে। ফলে পানির সংকট জটিল আকার ধারণ করছে। এতে শুষ্ক মৌসুমে চরম বিপাকে পড়ছেন মানুষজন। এর মধ্যে তানোরের মুন্ডুমালা পৌরসভার মাহালিপাড়া গ্রামে এখনও সুপেয় পানির উৎস তৈরি করতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন। এ অবস্থায় গত তিন বছর ধরে গ্রামটিতে সুপেয় পানির জন্য চলছে হাহাকার।

পৌরসভা ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা বলেছেন, তারা নিরুপায়। কারণ ৭০০ ফুট পর্যন্ত বোরিং করেও ওই গ্রামে পানির স্তর পাওয়া যায়নি। এজন্য সমস্যার সমাধান হয়নি। ভবিষ্যতে এই সংকট আরও বাড়বে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মাহালিপাড়া গ্রামটিতে তিন শতাধিক পরিবারের বসবাস। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর লোকজন বসবাস করেন। পানির স্তর না পাওয়ার অজুহাতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রশাসন কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। যা এই এলাকার বাসিন্দাদের জীবনযাত্রা চরমভাবে ব্যাহত করছে।

মুন্ডুমালা পৌরসভার মাহালিপাড়া গ্রামে এখনও সুপেয় পানির উৎস তৈরি করতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন

গ্রামের কয়েকজন বাসিন্দা জানিয়েছেন, গ্রাম থেকে দূরে এক ব্যক্তির টিউবওয়েল থেকে পানি কেনেন গ্রামবাসী। কিন্তু নিম্নআয়ের মানুষ হওয়ায় অনেকের পক্ষে পানি কেনা সম্ভব হয় না। ফলে কেউ পুকুরের আবার কেউ অল্প পরিমাণ পানি পান করে কোনোমতে জীবনধারণ করছেন।

তারা বলছেন, বরেন্দ্র এলাকায় তুলনামূলক কম বৃষ্টিপাত হয়। ফলে ভূগর্ভস্থ পানির স্তর দ্রুত নেমে যাচ্ছে। ধান চাষ ছাড়াও চালকল এবং অন্যান্য শিল্পের প্রয়োজনে ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে খরা মৌসুমে চরম বিপাকে পড়তে হয়। এ ছাড়া ভূ-উপরিস্থ পানি ব্যবহার করতে পারেন না তারা। সরকারি পুকুরগুলো লিজ দেওয়া হয়। ফলে পুকুরে নামতে দেওয়া হয় না। সবমিলিয়ে শুষ্ক মৌসুমে খাবার পানি তো দূরে দৈনন্দিন কাজে ব্যবহার উপযোগী পানি পান না। অথচ মৌলিক এই অধিকার নিয়ে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রশাসন কার্যকর কোনও পদক্ষেপ নেননি।

আমাদের এলাকায় কোনও পানি নেই উল্লেখ করে মাহালিপাড়ার চিচিলিয়া হেমব্রোম বলেন, ‘খাবার পানির জন্য কখনও আধা কিলোমিটার, কখনও এক কিলোমিটার যেতে হয়। তাতেও পানি পাই না। ব্যক্তি মালিকানাধীন টিউবওয়েল ও পুকুর থেকে পানি আনতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হতে হয় নারীদের। অনেক সময় পানি আনতে নারীদের কোমরে ব্যথাসহ নানা দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। আবার দূরে গিয়ে পানি কিনে আনতে হয়। অভাবের সংসারে পানি কিনে খাওয়া অসম্ভব। দিনমজুরি কিংবা বাঁশ-বেতের কাজ করে দিনে ৩০০ টাকা পাই। যা দিয়ে সংসার চালানোই কষ্টসাধ্য।’

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নেতা সুভাস হেমব্রোম বলেন, ‘সব ধরনের অধিকার থেকে বঞ্চিত আমরা। পানির জন্য জীবন পর্যন্ত দিতে হচ্ছে আমাদের। পানির সমস্যা দ্রুত সমাধানের দাবি জানাই।’

বরেন্দ্র অঞ্চলের পুকুড়, দিঘি এবং জলাভূমির লিজ সংশোধন করে প্রান্তিক মানুষের ব্যবহারের সুযোগ দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

পানির সমস্যা সমাধানের জন্য জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় প্রশাসনের কাছে বারবার ধরনা দিয়েছি উল্লেখ করে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর নেত্রী রিনা টুডু বলেন, ‘আজ পর্যন্ত কেউ পানির সমস্যা সমাধান করে দিলো না। ৩০০ পরিবারের সদস্যরা মানবেতর জীবনযাপন করছি। আমরা পানির অধিকার চাই।’

পানির অধিকার আদায়ে জেলা প্রশাসকের কাছে চার দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছি বলেও জানান রিনা টুডু। তিনি বলেন, ‘আমাদের দাবিগুলো হলো— মাহালিপাড়ায় পর্যাপ্ত ডিপ-টিউবওয়েল, টিউবওয়েল ও সাবমারসিবল পাম্প স্থাপন করতে হবে। বরেন্দ্র অঞ্চলের পুকুড়, দিঘি এবং জলাভূমির লিজ সংশোধন করে প্রান্তিক মানুষের ব্যবহারের সুযোগ দিতে হবে। গ্রামের ভেতরে বা কাছাকাছি পুকুরগুলো গ্রামবাসীর নামে বিনাশর্তে লিজ দিতে হবে; যাতে কমিউনিটির মানুষজন পানি ব্যবহার করতে পারেন। এই অঞ্চলের পুকুর ও দিঘিগুলো সংস্কার করতে হবে। যাতে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার করা যায়।’

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পানির অধিকার আদায়ে কাজ করছেন বেসরকারি সংস্থা বারসিক বরেন্দ্র অঞ্চলের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী ও গবেষক শহিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘বৈশ্বিক জলবায়ুর আঞ্চলিক অভিঘাতসহ বরেন্দ্র অঞ্চলে পানির সংকট তীব্র হয়ে উঠেছে। একসময় গ্রাম ও শহরের মানুষ প্রাকৃতিক উৎস থেকে পানি ব্যবহার করতো। কিন্তু প্রাকৃতিক উৎসগুলো দিনে দিনে দখল আর নষ্ট হওয়ায় এবং প্রভাবশালীদের লিজ দেওয়ায় প্রান্তিক মানুষজন পানির অধিকার বঞ্চিত হচ্ছেন।’

পানির দাবিতে গত ১৫ মার্চ মাহালিপাড়াসহ বরেন্দ্র অঞ্চলের বাসিন্দারা মানববন্ধন করেছেন

দিন দিন পানির স্তর নিচে নেমে যাচ্ছে উল্লেখ করে শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘বরেন্দ্র অঞ্চলের পাতকুয়া, কুয়া, পুকুর, জলাশয়, টিউবওয়েল ও নলকূপগুলোতে এখন আর পানি পাওয়া যাচ্ছে না। এর স্থলে বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ সেবার নামে পানি বিক্রি করছে এখন।’ 

পানি ব্যবস্থাপনায় জনগোষ্ঠীর মতামতগুলো উপেক্ষা এবং ব্যবস্থাপনা ও পরিচালনায় প্রভাবশালীদের দৌরাত্ম্যের কারণে পানির জন্য সহিংসতা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেও জানান তিনি। শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ওই গ্রামটিতে খাবার পানিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় চাহিদা মাফিক পানির অভাব তীব্র। দ্রুত সময়ের মধ্যে এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ জরুরি।’

ওই গ্রামে ৭০০ ফুট পর্যন্ত বোরিং করেও পানির স্তর পাওয়া যায়নি বলে জানালেন মুন্ডুমালা পৌরসভার সচিব আবুল হোসেন। তিনি বলেন, ‘এজন্য সমস্যার সমাধান হয়নি। একই সমস্যা আরও কিছু জায়গায় আছে। পানির স্তর ক্রমশই নিচে নেমে যাচ্ছে। আগামী চার-পাঁচ বছর পর এই সমস্যা পুরো পৌরসভায় জটিল আকার ধারণ করতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পৌরসভায় টিউবওয়েল বসানোর জন্য প্রায় দুই কোটি টাকা বরাদ্দ এসেছিল। কিন্তু পানির স্তর না পাওয়ায় বরাদ্দ ফিরে গেছে। এখন ৫০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প পাঠানো হয়েছে। প্রকল্প পাস হলে আশপাশের যে এলাকায় স্তর পাওয়া যাবে, সেখান থেকে পানি তুলে সরবরাহ করা হবে। তবে পানির স্তর না পাওয়া গেলে সমস্যার সমাধান হবে না।’

মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়

বরেন্দ্র এলাকায় গত ২৫ বছরে পানির স্তর ২৫ ফুট নিচে নেমেছে বলে জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনিজ পানি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক চৌধুরী সারোয়ার জাহান। তিনি বলেন, ‘প্রতি বছরই বরেন্দ্র এলাকার পানির স্তর নিচে নামছে। এটি খুবই উদ্বেগের বিষয়। জলবায়ু পরিবর্তন এর অন্যতম কারণ। আবার বৃষ্টি কম হওয়ায় ভূ-গর্ভস্থ পানির অতিরিক্ত ব্যবহারও দায়ী। এই থেকে উত্তরণের পথ হতে পারে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়ানো। এতে স্থিতিশীল একটা অবস্থা আসতে পারে। কিন্তু যে স্তর নেমে গেছে, তা ওভারকাম করা সম্ভব নয়।’

এদিকে, পানির অধিকার নিশ্চিত করার দাবিতে মহানগরীর সাহেব বাজার জিরো পয়েন্টে গত ১৫ মার্চ মাহালিপাড়াসহ বরেন্দ্র অঞ্চলের বাসিন্দারা মানববন্ধন করেছেন। মাহালি বাঁশ-বেত উন্নয়ন সংগঠন, বরেন্দ্র অঞ্চল যুব সংগঠন ফোরাম ও বারসিক এ মানববন্ধনের আয়োজন করেছে। এতে অংশ নেন মাহালি সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সংগঠনের নেতারা। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেন তারা। 

/এএম/
সম্পর্কিত
‘বাজেটে পানি ও স্যানিটেশন খাতে বরাদ্দ বাড়লেও বৈষম্য রয়ে গেছে’
‘২০৫০ সালের মধ্যে বরেন্দ্র অঞ্চল মরুভূমিতে পরিণত হবে’
ওয়াটারএইডে পৃষ্ঠপোষকতা অব্যাহত রাখবেন ব্রিটেনের রাজা
সর্বশেষ খবর
ভোটের আগে পাঁচ ওসি প্রত্যাহার
ভোটের আগে পাঁচ ওসি প্রত্যাহার
শ্রেণিকক্ষে ধসে পড়লো পাশের ভবনের ছাদ, স্কুলছাত্র নিহত
শ্রেণিকক্ষে ধসে পড়লো পাশের ভবনের ছাদ, স্কুলছাত্র নিহত
মালয়েশিয়াকেও উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ
মালয়েশিয়াকেও উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ
‘ব্রাদার্সের রুগ্নদশায় ক্ষরণ হয়’
‘ব্রাদার্সের রুগ্নদশায় ক্ষরণ হয়’
সর্বাধিক পঠিত
সব বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে চান নওফেল
সব বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করতে চান নওফেল
দখলমুক্ত হলো তেজগাঁও মেয়র আনিসুল হক সড়ক, কমবে ভোগান্তি
দখলমুক্ত হলো তেজগাঁও মেয়র আনিসুল হক সড়ক, কমবে ভোগান্তি
প্রায় ২ ঘণ্টা বন্ধের পর মেট্রোরেল চলাচল স্বাভাবিক
প্রায় ২ ঘণ্টা বন্ধের পর মেট্রোরেল চলাচল স্বাভাবিক
সহজে ওজন কমাতে চাইছেন? জেনে নিন ৯ পরামর্শ
সহজে ওজন কমাতে চাইছেন? জেনে নিন ৯ পরামর্শ
উপকূল অতিক্রম করে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ এখন খুলনায়
ঢাকাসহ বেশিরভাগ অঞ্চলে ভারী বৃষ্টিউপকূল অতিক্রম করে ঘূর্ণিঝড় ‘রিমাল’ এখন খুলনায়