X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

এসএসসির ফরম পূরণের সময় জানলো জেএসসিতে ফেল

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫০

নবম ও দশম শ্রেণির লেখাপড়া শেষ করে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ করতে গিয়ে শিক্ষার্থী মোসাদ্দেক আলী জানতে পারলো সে জেএসসিতে ফেল করেছে। এ ঘটনায় তার শিক্ষাজীবনে চরম বিপর্যয় ঘটলেও নির্বিকার বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। উল্টো তারা ওই বিদ্যালয়ের প্রয়াত প্রধান শিক্ষককে দোষারোপ করছেন।

মোসাদ্দেক নীলফামারী সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী উচ্চবিদ্যালয়ের ছাত্র এবং জামিল উদ্দিনের ছেলে।

বুধবার জামিল উদ্দিন বলেন, ‘মোসাদ্দেক এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী। কিন্তু কয়েক দিন আগে স্কুল থেকে জানানো হয় সে পরীক্ষা দিতে পারবে না। কারণ, সে জেএসসি পরীক্ষায় এক বিষয়ে ফেল করেছিল। ওই বিষয়ে সম্পূরক পরীক্ষা না দেওয়ায় তার জেএসসির সনদপত্র পাওয়া যায়নি। এদিকে, কয়েক দিন আগে স্কুলের অফিস সহকারী রাসেদুল ইসলাম বোর্ডে সামান্য ভুল আছে বলে তা সংশোধনের জন্য এক হাজার টাকা চেয়ে নেন আমার কাছে। প্রশ্ন হলো– আমার ছেলে অষ্টম শ্রেণিতে ফেল করলে তাকে কীভাবে নবম শ্রেণিতে ভর্তি করা হলো। কেমন করে সে নবম ও দশম শ্রেণিতে পড়াশোনা করলো এবং টেস্ট পরীক্ষা দিয়ে পাসও করলো? এতদিন তারা বিষয়টি কেন জানাননি? কেন তারা আমার ছেলের এত বড় ক্ষতি করলেন? এর দায় কার? এখন তারা বলছেন, এতদিন যা খরচ হয়েছে তা ফেরত দেওয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘তারা কি আমার ছেলের বিগত সময়গুলো ফিরিয়ে দিতে পারবেন? পারবেন তার শিক্ষাজীবনের ক্ষতি পুষিয়ে দিতে? অফিস সহকারী আমার ছেলেকে নবম শ্রেণিতে ভর্তি করেছে। কোনও ভুল হয়ে থাকলে তিনি তা করেছেন। তার কারণেই একজন শিক্ষার্থীকে এই পরিস্থিতিতে পড়তে হয়েছে। তিনি প্রতারণা করে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে আমাদের বিপদে ফেলেছেন। তিনি যদি বিষয়টি আগেই যাচাই-বাছাই করতেন তাহলে এক বিষয়ে পরীক্ষা দিয়ে আমার ছেলে নবম শ্রেণিতে ভর্তি হতো। কিন্তু তিনি তা না করে এখন দোষারোপ করছেন সদ্যপ্রয়াত প্রধান শিক্ষককে, যা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

এ ধরনের সমস্যা আরও কয়েকজনের হয়েছে বলে জানা গেছে। এরমধ্যে বোতলাগাড়ী মাঝাপাড়ার রমজান আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম, নাজমুল হকের ছেলেও একইভাবে এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় জানতে পারে তারা জেএসসিতে পাস করেনি। এতে শিক্ষার্থীদের জীবন এখন প্রহসনে পরিণত হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী রাসেদুল ইসলাম বলেন, ‘যা করেছি প্রয়াত প্রধান শিক্ষক মোখলেছুর রহমানের নির্দেশে করেছি। ভুল হয়ে থাকলে তা প্রধান শিক্ষকের। এ ক্ষেত্রে আমার কোনও দোষ নেই।’ নবম শ্রেণিতে ভর্তির সময় কেন কাগজপত্র যাচাই না করে তাকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানো হলো? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা মিসটেক হয়েছে। অনেক সময় এমন হয়।’

এ বিষয়ে সৈয়দপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রেহানা ইয়াসমিন ফোনে জানান, এ ধরনের কোনও বিষয় তার জানা নেই। তবে এমন কিছু হয়ে থাকলে তদন্ত করে দেখতে হবে। অফিস সহকারী এর সঙ্গে জড়িত থাকলে তার ব্যাপারেও বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

প্রয়াত প্রধান শিক্ষক মোখলেছুর রহমানের স্ত্রী ও সৈয়দপুর মিস্ত্রিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা হালিমা বেগম বলেন, ‘আমার স্বামীর মৃত্যুর পর তাকে দোষারোপ করে অনেকে অপরাধ ঢাকতে চাচ্ছেন। আমার স্বামী কোনও অনিয়ম-দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতির অর্থ কমিটির লোকজন হাতিয়ে নিয়েছেন। এখন অফিস সহকারীও একই পথ ধরেছেন। তাদের অপকর্মের বিচার চাই। একজন মৃত ব্যক্তিকে মিথ্যা দোষারোপ করে তারা পার পাবেন না।’

/এমএএ/এমওএফ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
টেক্সাসের স্কুলে হামলা: ‘পুলিশ ভুল করেছে’
টেক্সাসের স্কুলে হামলা: ‘পুলিশ ভুল করেছে’
বাটলারের ব্যাটে স্বপ্নভঙ্গ কোহলিদের
বাটলারের ব্যাটে স্বপ্নভঙ্গ কোহলিদের
ইঞ্জিনসহ বগি লাইনচ্যুত, ঢাকা-রাজশাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ
ইঞ্জিনসহ বগি লাইনচ্যুত, ঢাকা-রাজশাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ
এবার হারমনি আর মন্দিরা নিয়ে হাজির... (ভিডিও)
এবার হারমনি আর মন্দিরা নিয়ে হাজির... (ভিডিও)
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
৪০ এতিম কন্যার যৌতুকবিহীন বিয়ে
৪০ এতিম কন্যার যৌতুকবিহীন বিয়ে
গৃহবধূর ভিডিও ধারণ করে ধর্ষণ, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার
গৃহবধূর ভিডিও ধারণ করে ধর্ষণ, ছাত্রলীগের সাবেক নেতা গ্রেফতার
আবারও ‘অচেনা’ প্রাণীর আক্রমণ, শিশু-নারীসহ আহত ৪০
আবারও ‘অচেনা’ প্রাণীর আক্রমণ, শিশু-নারীসহ আহত ৪০
বাংলা ট্রিবিউনে সংবাদ প্রকাশের পর প্রতিবন্ধী ভাতা পেলেন মশিউর
বাংলা ট্রিবিউনে সংবাদ প্রকাশের পর প্রতিবন্ধী ভাতা পেলেন মশিউর