X
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২
১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

বাড়ছে তিস্তার পানি, ডুবছে ফসলি জমি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
০২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২২:৫৬আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৩:১৯

উজানের ঢল আর ভারী বর্ষণে কুড়িগ্রামে তিস্তার পানি বাড়তে শুরু করেছে। অব্যাহত পানি বৃদ্ধিতে এ নদী অববাহিকার চরাঞ্চলে পানি প্রবেশ করে বেশ কিছু ফসলি জমি ডুবতে শুরু করেছে। একইসঙ্গে নিম্নাঞ্চলের বাসিন্দাদের বাড়িতে পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে। পাশাপাশি উলিপুর উপজেলার বজরা এলাকায় তিস্তার অব্যাহত ভাঙনে বাস্তুহারা হচ্ছে একের পর এক পরিবার। 

আবাহাওয়ার পূর্বাভাসে স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জানিয়েছে, আগামী ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা তিস্তা, ধরলা ও দুধকুমারের পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাতে পাউবো জানায়, আগামী ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টায় দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর পূর্বাঞ্চল ও তৎসংলগ্ন ভারতের কতিপয় স্থানে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে এই সময়ে তিস্তা, ধরলা ও দুধকুমারের পানি সমতলে দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে।

শুক্রবার (০২ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় তিস্তার পানি কাউনিয়া পয়েন্টে  বিপৎসীমার ১৮ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। একই সময় ধরলা, দুধকুমার ও ব্রহ্মপুত্রের পানিও বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এসব নদনদীর পানি এখনও বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের বাসিন্দা সুকুমার, বানেশ্বর ও মিলন জানান, শুক্রবার সকালে তিস্তার পানি হু হু করে বাড়তে শুরু করে। এতে করে ওই ইউনিয়নের চরাঞ্চলের আবাদি জমি ডুবতে শুরু করেছে। কিছু বাড়িতেও পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে।

এদিকে, উলিপুরের বজরা ইউনিয়নে তিস্তার ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। গত এক সপ্তাহে এই ইউনিয়নের তিন গ্রামের অন্তত অর্ধশতাধিক পরিবার বাস্তুহারা হয়েছে। নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে স্থানীয় কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ মসজিদ-মন্দির, পাকা সড়ক ও কয়েকশ একর আবাদি জমি। প্রায় তিন কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ভাঙন অব্যাহত থাকলেও স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড শুধুমাত্র ৫০০ মিটার এলাকায় ভাঙন প্রতিরোধে জিওব্যাগ ফেলছে। 

ইতোমধ্যে বা‌ড়িঘ‌রে পা‌নি প্রবেশ কর‌তে শুরু ক‌রে‌ছে

স্থানীয়দের অভিযোগ, গত এক মাসে দুই শতাধিক পরিবার ভাঙনে নিঃস্ব হলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রশাসন কিংবা পাউবো কেউ গুরুত্ব দেয়নি। ফলে ঘরবাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব হয়েছে ভাঙনের শিকার পরিবারগুলো।

শুক্রবার বিকালে ভাঙন প্রতিরোধে চলমান কাজ পরিদর্শনে উলিপুরের বজরা ইউনিয়নে যান পাউবোর কুড়িগ্রামের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন। ঘটনাস্থলে থেকে তিনি বলেন, ‘তিন কিলোমিটারজুড়ে তিস্তার তীব্র ভাঙন চলছে। এখনও বাড়িঘর হারাচ্ছে মানুষ। আমরা শুধুমাত্র ৫০০ মিটার এলাকায় ভাঙন প্রতিরোধমূলক কাজের অনুমতি পেয়েছি। সেখানে বালুভর্তি জিওব্যাগ ফেলে ভাঙন প্রতিরোধের চেষ্টা চলছে।’

তিস্তার পানি বৃদ্ধি নিয়ে জানতে চাইলে এই নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, ‘তিস্তার পানি আরও বাড়তে পারে। তবে ডালিয়া পয়েন্টে বিপৎসীমা অতিক্রম করলেও কাউনিয়া পয়েন্টে বিপৎসীমার কাছাকাছি অবস্থান করবে।’

/এএম/
তারেক রহমানকে ‘কুলাঙ্গার’ বললেন শেখ হাসিনা
তারেক রহমানকে ‘কুলাঙ্গার’ বললেন শেখ হাসিনা
জনগণের কল্যাণে রাজনীতি করে যেতে হবে: ডেপুটি স্পিকার
জনগণের কল্যাণে রাজনীতি করে যেতে হবে: ডেপুটি স্পিকার
রমজানের আগেই পণ্যের ন্যায়সঙ্গত মূল্য নিশ্চিত করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী
রমজানের আগেই পণ্যের ন্যায়সঙ্গত মূল্য নিশ্চিত করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী
১০ ডিসেম্বর সর্বদলীয় কর্মসূচি নিয়ে আসবো: মির্জা ফখরুল
১০ ডিসেম্বর সর্বদলীয় কর্মসূচি নিয়ে আসবো: মির্জা ফখরুল
সর্বাধিক পঠিত
১১ মাসে নাগরিকত্ব ছাড়লেন ৪০১ বাংলাদেশি
১১ মাসে নাগরিকত্ব ছাড়লেন ৪০১ বাংলাদেশি
মেসি-আলভারেজের গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
মেসি-আলভারেজের গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে আর্জেন্টিনা
‘পুলিশ প্রটোকলে’ বিদায় নিলেন রাঙ্গাবালীর ইউএনও
‘পুলিশ প্রটোকলে’ বিদায় নিলেন রাঙ্গাবালীর ইউএনও
হাসপাতালে কী হয়েছিল মাইশার সঙ্গে?
আঙুলের অপারেশন করতে গিয়ে মৃত্যুহাসপাতালে কী হয়েছিল মাইশার সঙ্গে?
‘ঘটনার পেছনের ঘটনা’ জেনে ফারিণের দুঃখপ্রকাশ
‘ঘটনার পেছনের ঘটনা’ জেনে ফারিণের দুঃখপ্রকাশ