X
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪
১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

তিস্তার বাঁধে ধস, আতঙ্কে শতাধিক পরিবার

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
২৬ আগস্ট ২০২৩, ২০:৩৩আপডেট : ২৬ আগস্ট ২০২৩, ২৩:৪০

উজানের ঢল আর বৃষ্টিতে কুড়িগ্রামে ধরলা, তিস্তা, দুধকুমার ও ব্রহ্মপুত্রসহ প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি বাড়তে শুরু করেছে। ইতোমধ্যে কাউনিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করায় তীব্র স্রোতে রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঙা ইউনিয়নের বুড়িরহাটে তিস্তার বাম তীরের স্পার বাঁধের একাধিক স্থানে ধস দেখা দিয়েছে। বাঁধের আরসিসি অংশের প্রান্তভাগ শনিবার সন্ধ্যা নদীতে ধসে গেছে। এতে ভাঙন ঝুঁকিতে পড়েছে তিস্তা পাড়ের শত শত পরিবার।

স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) বলছে, স্পার বাঁধ মূলত নদীর স্রোতকে দূরে সরিয়ে দেয়। ফলে বাঁধের উজান ও ভাটিতে ভাঙন কম হয়। বুড়িরহাটের বাঁধটি রক্ষায় জিও ব্যাগ ও টিউব ফেলা হচ্ছে। বাঁধটি ঝুঁকিমুক্ত করতে প্রয়োজনীয় সব চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাউবো।

এদিকে, বাঁধে ধস দেখা দেওয়ায় এর উজান ও ভাটি অঞ্চলের বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। শনিবার বিকালে বাঁধ এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, তিস্তার পানির স্রোতে বাঁধের মধ্যবর্তী মাটির অংশ ধসে বিশাল গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। ধস দেখা দিয়েছে বাঁধটির মাটির অংশের একাধিক স্থানে। পশ্চিম প্রান্তের আরসিসি অংশের শীর্ষভাগ দক্ষিণ দিকে হেলে পড়েছে। বাঁধ রক্ষায় এর উভয় পাশে বালুভর্তি জিও ব্যাগ ও টিউব ফেলছেন পাউবোর কর্মীরা। ঝুঁকি এড়াতে বাঁধের প্রবেশমুখে বাঁশের খুঁটি দিয়ে জনসাধারণের প্রবেশ নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা করেছে পাউবো।

বাঁধের ভাটিতে বসবাসকারী আমির হোসেন বলেন, ‘এই বাঁধ দিয়া আমাদের অনেক উপকার হইছে। এটা না থাকলে আমরা এই মহল্লায় থাকতে পারবো না। আমরা খুব চিন্তায় আছি। এই বাঁধ না থাকলে আমাদের ঘরবাড়ি নিয়া এখান থাকি চলি যাওয়া লাগবে। কিন্তু আমরা কোথায় যাবো? সরকারের কাছে আমাদের আবেদন, এটা রক্ষা করার জন্য যেভাবে প্রস্তুতি নেওয়া দরকার, সেভাবে নেওয়া হোক।’

আরেক বাসিন্দা আকবর আলী বলেন, ‘যে অবস্থা তাতে আমরা খুব চিন্তায় আছি। বসতি আর প্রতিষ্ঠানগুলা হুমকিতে আছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিয়া ছেলেমেয়েরা চিন্তায় আছে। পশ্চিম দিকে তাকাইলে খালি পানি আর পানি।’

ঘটনাস্থলে উপস্থিত পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘স্পার বাঁধটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আমরা এটি রক্ষায় জিও ব্যাগ ও টিউব ডাম্পিং করছি। প্রয়োজনীয় জিও ব্যাগ মজুত করা হয়েছে। বাঁধটি ঝুঁকিমুক্ত করতে কাজ করে যাচ্ছি।’

অপরদিকে, উজানের ঢলে জেলার নদ-নদীতে দ্রুত গতিতে পানি বাড়ছে। ইতোমধ্যে নদ-নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের কিছু কিছু বাড়িঘরে পানি ঢুকতে শুরু করেছে। তলিয়ে গেছে নিম্নাঞ্চলের আমন ক্ষেত। এ অবস্থায় জেলায় আরেকটি বন্যা পরিস্থিতির শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

পাউবোর নিয়ন্ত্রণ কক্ষ জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে শনিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত তিস্তার পানি ৩৭ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে কাউনিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ৪৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। দুধকুমার নদের পানি পাটেশ্বরী পয়েন্টে ১৩ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে, ব্রহ্মপুত্রের পানি নুনখাওয়া এবং চিলমারী পয়েন্টে ২৪ সেন্টিমিটার করে বৃদ্ধি পেয়ে যথাক্রমে বিপদসীমার ৬৮ সেন্টিমিটার ও ৫১ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। সেইসঙ্গে বাড়ছে ধরলার পানিও।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাতে পাউবো জানায়, অব্যাহত পানি বৃদ্ধির ফলে চলতি সপ্তাহে ব্রহ্মপুত্রের পানিও বিপদসীমায় পৌঁছাতে পারে। এর ফলে উলিপুর উপজেলার সাহেবের আলগা, বেগমগঞ্জ এবং চিলমারী উপজেলার নয়ারহাট ইউনিয়নের চর ও নিম্নাঞ্চলসমূহ প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা আছে। এই সময়ে এসব অঞ্চলে স্বল্পমেয়াদি বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে।  

সম্ভাব্য বন্যার খবরে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল আরীফ বলেন, ‘সম্ভাব্য বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় আমরা প্রস্তুতি আছি। খাদ্য সহায়তা, উদ্ধার নৌকা ও আশ্রয়কেন্দ্রসহ প্রয়োজনীয় সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।’

/এএম/
সম্পর্কিত
পাকিস্তানে তাপপ্রবাহে শতাধিক মানুষের হিটস্ট্রোক
‘২০৫০ সালের মধ্যে বরেন্দ্র অঞ্চল মরুভূমিতে পরিণত হবে’
জলবায়ু শরণার্থীযাদের কাছে নাম আছে ধাম নাই
সর্বশেষ খবর
এমপি আজীমকে হত্যার পর হেরোইন ও মদ খেয়ে উল্লাস করে খুনিরা
এমপি আজীমকে হত্যার পর হেরোইন ও মদ খেয়ে উল্লাস করে খুনিরা
ওজন কমাতে চাইছেন? সকালের নাস্তায় খান চিয়া সিডের তৈরি এই পদ
ওজন কমাতে চাইছেন? সকালের নাস্তায় খান চিয়া সিডের তৈরি এই পদ
সরকার সুষম ও টেকসই উন্নয়নে বিশ্বাস করে: আরাফাত
সরকার সুষম ও টেকসই উন্নয়নে বিশ্বাস করে: আরাফাত
এমপি আজীমের লাশের খণ্ডাংশের খোঁজে তল্লাশি, চলবে শনিবারও
এমপি আজীমের লাশের খণ্ডাংশের খোঁজে তল্লাশি, চলবে শনিবারও
সর্বাধিক পঠিত
নেপথ্যে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন, সিলিস্তাকে দিয়ে হানি ট্র্যাপ
এমপি আজীম হত্যাকাণ্ডনেপথ্যে ২০০ কোটি টাকার লেনদেন, সিলিস্তাকে দিয়ে হানি ট্র্যাপ
আদালতে কেঁদে সিলিস্তার প্রশ্ন, আমি কীভাবে আসামি হলাম?
আদালতে কেঁদে সিলিস্তার প্রশ্ন, আমি কীভাবে আসামি হলাম?
যুদ্ধবিমান উড্ডয়নের নির্দেশ তাইওয়ানের
যুদ্ধবিমান উড্ডয়নের নির্দেশ তাইওয়ানের
এমপি আজিমের খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধারের দাবি কলকাতা পুলিশের
এমপি আজিমের খণ্ডিত মরদেহ উদ্ধারের দাবি কলকাতা পুলিশের
ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা, ১ নম্বর সতর্কতা
ঘূর্ণিঝড়ের শঙ্কা, ১ নম্বর সতর্কতা