X
শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪
৬ বৈশাখ ১৪৩১

স্বর্ণপাম জিতলেন ফরাসি নারী

মাহমুদ মানজুর, কান (ফ্রান্স) থেকে
মাহমুদ মানজুর, কান (ফ্রান্স) থেকে
২৮ মে ২০২৩, ০১:৩৯আপডেট : ২৯ মে ২০২৩, ১২:১৩

আগেই অনুমান করা হয়েছিল, এবার শেষ হাসিটা হাসবেন কোনও এক নারী নির্মাতা। সেটাই সত্যি হলো। ৭৬তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি স্বর্ণপাম (পাম দ’র) জিতলেন ফরাসি নারী জাস্টিন ত্রিয়েত। তার পরিচালিত অ্যানাটমি অব অ্যা ফল পুরস্কারটি পেয়েছে।

গতকাল (২৭ মে) কান উৎসবের প্রাণকেন্দ্র পালে দে ফেস্টিভ্যালের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে সমাপনী অনুষ্ঠানে জাস্টিন ত্রিয়েতের হাতে স্বর্ণপাম তুলে দেন আমেরিকান অভিনেত্রী জেন ফন্ডা।

‘অ্যানাটমি অব অ্যা ফল’ ছবির গল্পে দেখা যায়, তুষারপাতে স্বামীর মৃত্যুর পর তাকে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার হয় জার্মান লেখক সান্ড্রা। আদালতে বিচারকার্যের সময় নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যায় সে। এর চিত্রনাট্য লিখেছেন জাস্টিন ত্রিয়েত ও আর্থার হারারি।

এবারের আসরে মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের জুরি প্রেসিডেন্ট ছিলেন রুবেন অস্টলান্ড। দুইবারের স্বর্ণপাম জয়ী এই সুইডিশ নির্মাতার নেতৃত্বে বিচারক হিসেবে কাজ করেছেন ‘ক্যাপ্টেন মারভেল’ তারকা ব্রি লারসন, আমেরিকান অভিনেতা পল ড্যানো, মরোক্কান পরিচালক মরিয়ম টুজানি, ফরাসি অভিনেতা দঁনি মিনোশেঁ, জাম্বিয়ান-ওয়েলশ পরিচালক-চিত্রনাট্যকার রুঙ্গানো নিয়োনি, আফগান কথাসাহিত্যিক-নাট্যকার আতিক রহিমি, আর্জেন্টাইন পরিচালক দামিয়ান সিফ্রন এবং স্বর্ণপাম জয়ী ফরাসি পরিচালক জুলিয়া দুকুরনো।

কানের ইতিহাসে তৃতীয়বারের মতো কোনও নারী এই স্বীকৃতি পেলেন। এর আগে নিউজিল্যান্ডের জেন ক্যাম্পিয়ন (দ্য পিয়ানো) এবং জুলিয়া দুকুরনো (তিতান) স্বর্ণপাম জিতেছেন।

গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে ৭৬তম কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের পুরস্কার বিজয়ীরা

৭৬তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের বিজয়ী তালিকা
মূল প্রতিযোগিতা
স্বর্ণপাম: অ্যানাটমি অব অ্যা ফল (জাস্টিন ত্রিয়েত, ফ্রান্স)
গ্রাঁ প্রিঁ: দ্য জোন অব ইন্টারেস্ট (জনাথন গ্লেজার, যুক্তরাজ্য)
সেরা পরিচালক: ট্র্যান আন হাং (দ্য পত অঁ ফু, ভিয়েতনাম/ফ্রান্স)
জুরি প্রাইজ: ফলেন লিভস (আকি কাউরিসমাকি, ফিনল্যান্ড)
সেরা অভিনেতা: ফুজি ইয়াকুশো (পারফেক্ট ডেজ, জাপান)
সেরা অভিনেত্রী: মারভে দিজদার (অ্যাবাউট ড্রাই গ্রাসেস, তুরস্ক)
সেরা চিত্রনাট্যকার: ইউজি সাকামাতো (মনস্টার, জাপান)
ক্যামেরা দ’র: থিয়েন আন ফাম (ইনসাইড দ্য ইয়েলো কোকুন শেল, ভিয়েতনাম)
সম্মানসূচক স্বর্ণপাম: মাইকেল ডগলাস, হ্যারিসন ফোর্ড

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র: টোয়েন্টি সেভেন (ফ্লোরা আন্না বুদা, ফ্রান্স ও হাঙ্গেরি)
স্পেশাল মেনশন (স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি): ফার (কুন্নুর মার্তিন্সদত্তির স্লুতার, আইসল্যান্ড)

আঁ সাঁর্তা রিগা
সেরা চলচ্চিত্র: হাউ টু হ্যাভ সেক্স (মলি ম্যানিং ওয়াকার, যুক্তরাজ্য)
জুরি প্রাইজ: হাউন্ডস (কামাল লাজরাক, মরক্কো)
সেরা পরিচালক: আসমা এল মুদির (দ্য মাদার অব অল লাইস, মরক্কো)
সেরা অভিনয়শিল্পী ও কলাকুশলীর সম্মিলন: দ্য বুরিটি ফ্লাওয়ার (জোয়াও সালাভিৎসা, পর্তুগাল এবং রেনে নাদের মেসোরা, ব্রাজিল)
ফ্রিডম প্রাইজ: গুডবাই জুলিয়া (মোহাম্মদ কোর্দোফানি, সুদান)
নিউ ভয়েস অ্যাওয়ার্ড: অমেন (বালোজি, বেলজিয়াম/কঙ্গো)

লা সিনেফ
প্রথম পুরস্কার: নরওয়েজিয়ান অফস্প্রিং (মারলেয়ানা এমিলিয়া লিংস্তা, ন্যাশনাল ফিল্ম স্কুল অব ডেনমার্ক)
দ্বিতীয় পুরস্কার: হোল (হোয়াং হাইন, কোরিয়ান অ্যাকাডেমি অব ফিল্ম আর্টস)
তৃতীয় পুরস্কার: মুন (জিনেব ওয়াকরিম, ইএসএভি মারাকেশ)

মুক্ত পুরস্কারের তালিকা
ফিপরেসি অ্যাওয়ার্ড
মূল প্রতিযোগিতা: দ্য জোন অব ইন্টারেস্ট (জনাথন গ্লেজার, যুক্তরাজ্য)
আঁ সাঁর্তা রিগা: দ্য সেটেলার্স (ফেলিপে গালভেজ আবের্লে, চিলি)
প্যারালাল শাখা (ইন্টারন্যাশনাল ক্রিটিকস’ উইক): পাওয়ার অ্যালি (লিলা হালাহ, ব্রাজিল/প্রথম সিনেমা)

ইকুমেনিকাল জুরি পুরস্কার: পারফেক্ট ডেজ (ভিম ভেন্ডার্স, জার্মানি)

ইন্টারন্যাশনাল ক্রিটিকস’ উইক
গ্র্যান্ড প্রাইজ (গ্রাঁ প্রিঁ): টাইগার স্ট্রাইপস (আমান্ডা নেল ইউ, মালয়েশিয়া)
ফ্রেঞ্চ টাচ জুরি প্রাইজ: ইট’স রেইনিং ইন দ্য হাউস (পালোমা সারমন-দাই, বেলজিয়াম)
লাইৎজ সিনে ডিসকোভারি প্রাইজ (শর্ট ফিল্ম): বোলেরো (ন্যঁ ল্যাবোর-দ্যুজুরদা, ফ্রান্স)
লুই রোদ্যুরের ফাউন্ডেশন রাইজিং স্টার অ্যাওয়ার্ড: জোভান গিনিচ (লস্ট কান্ট্রি, সার্বিয়া)
গ্যান ফাউন্ডেশন অ্যাওয়ার্ড ফর ডিস্ট্রিবিউশন: ইনশাল্লাহ অ্যা বয় (আমজাদ আল রশীদ, জর্ডান)
ক্যানাল প্লাস অ্যাওয়ার্ড (শর্ট ফিল্ম): বোলেরো (ন্যঁ ল্যাবোর-দ্যুজুরদা, ফ্রান্স)
এসএসিডি অ্যাওয়ার্ড: দ্য র‌্যাপচার (ইরিস ক্যালটেনব্যাক, ফ্রান্স)

ডিরেক্টরস’ ফোর্টনাইট
সেরা ইউরোপিয়ান সিনেমা (ইউরোপা সিনেমাস লেবেল অ্যাওয়ার্ড): ক্রেয়াতুরা (এলেনা মার্তিন হিমেনো)
সেরা ফরাসি ভাষার সিনেমা (এসএসিডি অ্যাওয়ার্ড): অ্যা প্রিন্স (পিয়ের ক্রোঁতো) 
সেরা শর্টফিল্ম: 
ক্যারোস দ’র: সুলেমান সিসে

/জেএইচ/
সম্পর্কিত
কানে গিয়ে যা শিখলেন সারা আলি খান
কানে গিয়ে যা শিখলেন সারা আলি খান
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
কানের সমান্তরাল বিভাগে ঢাকার দুই নির্মাতার স্বল্পদৈর্ঘ্য
কানের সমান্তরাল বিভাগে ঢাকার দুই নির্মাতার স্বল্পদৈর্ঘ্য
এআই প্রযুক্তিতে প্রথম বাংলা গানের অ্যালবাম
এআই প্রযুক্তিতে প্রথম বাংলা গানের অ্যালবাম
১৬ বছর পর জেনস সুমনের ফেরা (ভিডিও)
১৬ বছর পর জেনস সুমনের ফেরা (ভিডিও)
মা হারালেন বেবী নাজনীন
মা হারালেন বেবী নাজনীন
ওমর: ‘নায়িকাবিহীন’ এক থ্রিলার
সিনেমা সমালোচনাওমর: ‘নায়িকাবিহীন’ এক থ্রিলার