X
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১

হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধে ‘চূড়ান্ত পরাজিত’ হবে ইসরায়েল: ইরান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২২ জুন ২০২৪, ১৮:৪২আপডেট : ২২ জুন ২০২৪, ১৮:৪২

ইরান বলেছে, হিজবুল্লাহ নিজেকে এবং লেবাননকে রক্ষা করতে সক্ষম। লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠীটির সঙ্গে সর্বাত্মক যুদ্ধে গেলে ইসরায়েলের ‘চূড়ান্ত পরাজয়’ হবে বলেও সতর্ক করেছে তেহরান। লেবাননে ইসরায়েলের বড় ধরনের হামলার আশঙ্কা বাড়তে থাকায়,শুক্রবার (২১ জুন) এক বিবৃতিতে এ সতর্কবার্তা দিলো তেহরান। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে জাতিসংঘে ইরানের মিশন জানিয়েছে, নিজেকে বাঁচাতে দখলদার ইসরায়েলি শাসনের যে কোনও দুরভিসন্ধিমূলক সিদ্ধান্ত এই অঞ্চলকে একটি নতুন যুদ্ধে নিমজ্জিত করতে পারে। এর ফলে ১৯৪৮ সালে অধিকৃত ইসরায়েলি অঞ্চলসহ লেবাননের অবকাঠামোও বিধ্বস্ত হবে।

ওই পোস্টে আরও বলা হয়, ‘নিঃসন্দেহে এই যুদ্ধে ইহুদিবাদী শাসনের চূড়ান্ত পরাজয় হবে। লেবাননের প্রতিরোধ আন্দোলন, হিজবুল্লাহর নিজেকে এবং লেবাননকে রক্ষা করার ক্ষমতা রয়েছে - সম্ভবত এই অবৈধ শাসনের আত্ম-ধ্বংসের সময় এসেছে।’

ইরান-সমর্থিত হিজবুল্লাহকে শুক্রবার হুমকি দিয়েছে ইসরায়েল। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইসরায়েল কাটজ বলেছেন, ‘শীঘ্রই আমরা হিজবুল্লাহকে মোকাবিলার বিষয়ে প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত নেব।’

কাটজ আরও বলেন, ইরান ও চরমপন্থি ইসলামি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইসরায়েলের পাশে নিঃশর্তভাবে দাঁড়াতে হবে মুক্ত বিশ্বকে ।

এদিকে, হিজবুল্লাহ প্রধান হাসান নাসরাল্লাহ চলতি সপ্তাহে বলেছেন, যদি ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী লেবাননে যুদ্ধে জড়ায়, তবে তার দল ইসরায়েলের পুরো ভূখণ্ডজুড়ে রকেট এবং ড্রোন হামলা চালাবে।

গত ৭ অক্টোবর গাজায় যুদ্ধ শুরু হওয়ার পরের দিন ফিলিস্তিনি গোষ্ঠীগুলোর সমর্থনে উত্তর ইসরায়েলে সামরিক ঘাঁটিতে হামলা শুরু করে হিজবুল্লাহ। ইসরায়েলও দক্ষিণ লেবাননের গ্রাম ও হিজবুল্লাহ অবস্থানে বোমা হামলার জবাব দেয়। হিজবুল্লাহ ও ইসরায়েলের মধ্যে প্রায় প্রতিদিনের সংঘর্ষ লেবানন এবং ইসরায়েলের সীমান্ত এলাকায় কয়েক হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে।

গাজায় ইসরায়েলি আগ্রাসন বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত তাদের সামরিক বাহিনী ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণাও দিয়েছে হিজবুল্লাহ।

/এস/
সম্পর্কিত
মার্কিন কংগ্রেসে নেতানিয়াহুর ভাষণ, প্রতিবাদ ও বিভক্তি তুঙ্গে
বাইডেন, হ্যারিস ও ট্রাম্পের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করবেন নেতানিয়াহু
ইসরায়েলে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়নি জার্মানি: শলৎস
সর্বশেষ খবর
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
সর্বাধিক পঠিত
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী