সিরিয়ায় তুর্কি অভিযানের আশঙ্কায় কুর্দিদের যুদ্ধ প্রস্তুতি

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৩৫, জুলাই ২৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৩৮, জুলাই ২৬, ২০১৯

তুরস্কে নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কাস পার্টির (পিকেকে) সিরীয় শাখা কুর্দিস পিউপিলস প্রটেকশন ইউনিট (ওয়াইপিজি) সেনা প্রস্তুতি শুরু করেছে। সিরিয়ায় তুরস্কের সামরিক অভিযানের আশঙ্কায় তারা এই প্রস্তুতি শুরু করেছে বলে জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের খবর পর্যবেক্ষণকারী ব্রিটিশ ওয়েবসাইট মিডলইস্ট মনিটর। ইউফ্রেতাস নদীর পূর্ব প্রান্তের স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে ওয়েবসাইটটি জানিয়েছে, বুধবার হাসাকাহ প্রদেশের আস আল-আইন শহর ও আশেপাশের এলাকায় সেনা প্রস্তুতি শুরু করে কুর্দিরা। আশেপাশের কয়েকটি শহরে অভিযানের খবর পাওয়ার পর এই সেনা প্রস্তুতি শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়েবসাইটটি।

সম্প্রতি সিরিয়ার অভ্যন্তরে একটি নিরাপদ অঞ্চল গড়ে তুলতে আলোচনা শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক। আঙ্কারা দাবি করে আসছে এই সেফ জোন থেকে অবশ্যই ওয়াইপিজি ও অন্য কুর্দি সশস্ত্র যোদ্ধাদের বাইরে রাখতে হবে। এ নিয়ে কুর্দি সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার সেফ জোন প্রতিষ্ঠার কোনও সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের আলোচনা।

কুর্দিদের সেনা প্রস্তুতির কথা বলা হলেও তুরস্কের সেনা অভিযানের মুখে ওয়াইপিজি’র মনোবল ভেঙে পড়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। অনেক সশস্ত্র যোদ্ধা ও কর্মকর্তা ওই এলাকা ছেড়ে পালাচ্ছেন বলেও খবর দিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর। ওয়াইপিজি নেতৃত্বাধীন কুদি নিরাপত্তা ও গোয়েন্দা বাহিনীর লোকজন রাক্কা শহর থেকে সক্ষম পুরুষদের আটক করে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ করছে বলেও জানা গেছে।

ওয়াইপিজির রাজস্ব কর্মকর্তা রাশো ইউফ্রেতিস নদীর পূর্ব এলাকা থেকে সংগঠনের তহবিল থেকে কয়েক লাখ ডলার সঙ্গে নিয়ে পালিয়েছেন বলেও খবর রয়েছে।

 

/জেজে/এএ/

লাইভ

টপ