দক্ষিণ কোরিয়ায় ঝড়ে প্রাণহানি, বিদ্যুৎবিহীন লক্ষাধিক বাড়িঘর

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২৩:৪৬, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:১১, সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৯

দক্ষিণ কোরিয়ার পশ্চিম উপকূলে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় লিংলিং। শনিবার সকালের এ ঝড়ে এখন পর্যন্ত অন্তত তিনজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন কমপক্ষে আরও ১০ জন। রাস্তায় গাছ উপড়ে পড়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে অনেক উপকূলীয় এলাকা। সরকারিভাবে অন্তত ১ লাখ ২৭ হাজার বাড়িঘর বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় থাকার খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের জেরে অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়েছে রাজধানী সিউলের প্রায় অর্ধেক এলাকা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে রেল ও বিমান পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ায় আঘাত হানা এ ঝড়ের প্রভাবে প্রতিবেশী দেশ উত্তর কোরিয়াতে ভূমিধসের ঘটনা ঘটেছে।
ঝড়ে মৃত তিনজনের দুইজন দক্ষিণ কোরিয়ার বাসিন্দা। অন্যজন চীনা নাগরিক। এদের মধ্যে ৭৫ বছরের এক নারী তীব্র ঝড়ো বাতাসে ৩০ মিটার দূরের একটি দেয়ালে গিয়ে ধাক্কা খান। একটি হাসপাতালের কার পার্কে দেয়াল ধসে মারা যান ৩৯ বছরের অপর ব্যক্তি। একটি ভবনের ছাদ থেকে ছিটকে পড়া টাইলসের আঘাতে মারা যান ৬১ বছরের এক চীনা নাগরিক। সরকারিভাবে জানানো হয়েছে, এক প্রবীণ দম্পতিসহ আহত ১০ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের দেশ বাহামা দ্বীপপুঞ্জের সাম্প্রতিক ঝড়ের রেশ কাটতে না কাটতেই শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) দক্ষিণ কোরিয়ায় এ ঘূর্ণিঝড় আঘাত হানলো। বাহামায় গত ২ সেপ্টেম্বরের ঝড়ে মৃতের সংখ্যা ইতোমধ্যেই ৪৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এখনও অনেকে নিখোঁজ থাকায় এ সংখ্যা আরও অনেক বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সূত্র: সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট, দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া।

/এমপি/

লাইভ

টপ