দিল্লির সহিংসতায় ২৪ ঘণ্টায় তৃতীয় বৈঠক করলেন অমিত শাহ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০২:০৮, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০৯, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ চব্বিশ ঘণ্টার ভেতরে তিনবার বৈঠক করেছেন দিল্লি পুলিশ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তৃতীয় বৈঠ করেন তিনি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস’র খবরে বলা হয়েছে, তৃতীয় বৈঠকটি চলে প্রায় তিন ঘণ্টা।

খবরে বলা হয়েছে, দিল্লিতে ৪৮ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে সহিংসতা চলমান থাকায় বুধবার নির্ধারিত থিরুভানান্থাপুরাম সফর বাতিল করেছেন অমিত শাহ। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সফর বাতিলের কোনও কারণ জানায়নি। তবে মঙ্গলবার সহিংসতায় ১৩ জন নিহতের পর সফর বাতিলের কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

দিল্লির আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ইতোমধ্যেই দিল্লি পুলিশের স্পেশাল কমিশনার (আইনশৃঙ্খলা) হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে এসএন শ্রীবাস্তব নামে এক আইপিএস কর্মকর্তাকে। দিল্লির সহিংসতা নিয়ে খবর সম্প্রচারের ক্ষেত্রেও নির্দেশিকা জারি করেছে ভারতীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়।সহিংসতায় মদত যোগাতে পারে এমন খবর ও ভিডিও সম্প্রচারের ক্ষেত্রে টিভি চ্যানেলগুনোকে সাবধানতা অবলম্বনের কথা বলা হয়েছে ওই নির্দেশিকায়।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন নতুন নিয়োগ পাওয়া দিল্লি পুলিশের স্পেশাল কমিশনার এসএস শ্রীবাস্তব।

এর আগে দুপুরেও বৈঠক করেন অমিত শাহ। দুপুরের ওই বৈঠকে ছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজিওয়ালসহ পুলিশ প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।  বৈঠকে সেনা মোতায়েনের বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এখনই প্রয়োজন নেই। প্রয়োজনে সেনা নামানোর পথও খোলা রাখা হয়েছে। পাশাপাশি আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখা এবং গুজবে কান না দেওয়ার আবেদন জানান ভারতীয় মন্ত্রী।

উল্লেখ্য, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) শুরু হওয়া সংঘাত মঙ্গলবার আরও সহিংস হয়েছে। গত দুই দিনে উত্তর-পূর্ব দিল্লির বিভিন্ন এলাকায় সহিংসতায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জনে দাঁড়িয়েছে। ৭০ জন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন দেড়শতাধিক মানুষ। ভজনপুর, চান্দবাগ, কারায়াল নগরসহ বিভিন্ন এলাকায় লাঠি ও রড হাতে রাস্তায় টহল দিচ্ছে সশস্ত্র ব্যক্তিরা। জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন দোকানপাট ও যানবাহন। 

/এএ/

লাইভ

টপ
X