করোনায় মৃতদের সমাহিত করা নিয়ে শ্রীলঙ্কায় মুসলমানদের ক্ষোভ

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৯:৫৫, এপ্রিল ০৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০৬, এপ্রিল ০৪, ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মরদেহ সমাহিত করার নিয়মে পরিবর্তন এনেছে শ্রীলঙ্কার সরকার। গোসল ও জানাজা ছাড়াই মরদেহ সমাহিত করার ওই নিয়ম নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে সেখানকার মুসলিম ধর্মাবলম্বীরা। শ্রীলঙ্কায় সংখ্যালঘু মুসলমানদের ধর্মীয় প্রথার প্রতি সম্মান জানানোর আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এ খবর জানিয়েছে।

শ্রীলঙ্কায় এখন পর্যন্ত ১৫১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছে চার জন। মৃতদের মধ্যে দুই জন ইসলাম ধর্মাবলম্বী। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতদের সমাহিত করা নিয়ে গত মঙ্গলবার নতুন নিয়ম প্রকাশ করে শ্রীলঙ্কার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়, আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়াদের দেহ না ধুইয়ে সরাসরি একটি ব্যাগে সিল করে কফিনে পুরে সমাহিত করতে হবে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানী কলম্বোতে গত ১ এপ্রিল মারা যান বিশরুল হাফি মোহাম্মদ জুনাস (৭৩) নামে এক ব্যক্তি। পরদিন তাকে নতুন নিয়ম অনুযায়ী সমাহিত করে শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ।

বিশরুলের ছেলে ফয়েজ জুনাস (৪৬) জানান, তার বাবার কিডনি রোগ থাকা অবস্থায় করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। ফয়েজ জানান, সংক্রমণের আশঙ্কায় মুসলিম প্রথা অনুযায়ী তার বাবার জানাজা পড়ার সুযোগ পাননি তারা। তিনি বলেন, ‘পুলিশের তত্ত্বাবধানে আমার বাবাকে একটি গাড়িতে করে নিয়ে গিয়ে সমাহিত করা হয়। মর্গের বাইরে আমরা কিছু দোয়া-দরুদ পড়তে পেরেছিলাম, কিন্তু জানাজা পড়তে দেওয়া হয়নি’। তিনি বলেন, আমরা আমাদের স্বজনদের ইসলামিক নিয়মে দাফন করতে চাই।

সংখ্যালঘু মুসলমানদের অধিকারের প্রতি সম্মান দেখাতে শ্রীলঙ্কা কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। সংস্থাটির দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক বিরাজ পাটনায়েক এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘এই কঠিন সময়ে কর্তৃপক্ষের উচিত সব সম্প্রদায়কে ঐক্যবদ্ধ করা, তাদের মধ্যকার বিভাজন প্রসারিত করা নয়’। তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯-এ মারা যাওয়া ব্যক্তিদের শোকগ্রস্ত স্বজনদের ইচ্ছা অনুযায়ী শেষকৃত্য করতে দেওয়া উচিত। বিশেষ করে এই শেষকৃত্য যখন আন্তর্জাতিক নীতিমালায় অনুমোদিত’।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নীতিমালায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তিদের দাফন বা সমাহিত দুটোই করা যাবে। যুক্তরাজ্যসহ ইউরোপের বেশিরভাগ দেশেই এই নীতিমালা অনুসরণ করা হচ্ছে।

/জেজে/এমওএফ/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ