আনন্দে খানিকটা নাচানাচি করেছি: জাসিন্ডা

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ২০:০০, জুন ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২৬, জুন ০৮, ২০২০

দেশকে করোনা থেকে মুক্ত করে ফেলার আনন্দে নেচে উঠলেন নিউ জিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আর্ডার্ন। স্থানীয় সময় সোমবার বিকালে করোনার শেষ রোগীটি সুস্থ হয়ে ওঠার পর সীমান্ত কড়াকড়ি ছাড়া সব ধরনের সামাজিক ও অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয় নিউ জিল্যান্ড। এ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় নিজের শিশু সন্তানের সামনে নেচে ওঠেন জাসিন্ডা।




নিউজিল্যান্ডে সবমিলে মাত্র ১ হাজার ১৫৪ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। গত ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে দেশটিতে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর কোভিড-১৯ এ মৃত্যু হয় ২২ জনের। তবে বাকীরা সবাই সুস্থ হয়ে ওঠায় নিউ জিল্যান্ডে সামাজিক দূরত্বের বিধান কার্যকর থাকছে না। সরকারি-বেসরকারি অনুষ্ঠান, আতিথেয়তা শিল্প, সব ধরনের সরকারি পরিবহনে এখন থেকে আর সামাজিক দূরত্ব মানতে হবে না বলে জানিয়েছে নিউজিল্যান্ড।
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় নিউ জিল্যান্ডের এমন সাফল্যের পর সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয় জাসিন্ডার কাছে। জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি একটুখানি নাচানাচি করে ফেললাম। নিভকে নেচে দেখালাম। ও খানিক বিস্মিত হয়েছে বলে মনে হলো। লাউঞ্জজুড়ে আমি কেন নাচানাচি করছি সে ব্যাপারে ওর কোনও ধারণা না থাকলেও বিষয়টা ঠিকই উপভোগ করছিলো।’
স্বাস্থ্য দফতরের মহাপরিচালক অ্যাশলে ব্লুমফিল্ডকে একই প্রশ্ন জিজ্ঞেস করা হয়েছিল। নিজের নাচের সক্ষমতা নিয়ে হাসাহাসি করছিলেন তিনি। ব্লুমফিল্ড বলেন, ‘ভালো কথা, আমি কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর মতো এতো ভালো নাচ একেবারেই নাচতে পারি না।’
৭৫ দিনের বিধি-নিষেধের পাশাপাশি সাত সপ্তাহের কঠোর লকডাউন মেনে করোনা মোকাবিলায় সফল নিউজিল্যান্ড। এ সময়ে দেশটিতে সব ধরনের কার্যক্রম স্থগিত রাখা হয়। তবে শুধুমাত্র জরুরি সার্ভিসের কর্মীরা ছিলেন এই বিধি-নিষেধের বাইরে।



/এফইউ/বিএ/

লাইভ

টপ