নভেম্বর পর্যন্ত ৮০ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে খাদ্য সহায়তার ঘোষণা মোদির

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৮:১৩, জুন ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:১৫, জুন ৩০, ২০২০

করোনাভাইরাস মোকাবিলার অংশ হিসেবে আগামী নভেম্বর পর্যন্ত ভারতের ৮০ কোটি মানুষকে বিনামূল্যে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর গরিব কল্যাণ অন্ন যোজনা নামের এই প্রকল্পের আওতায় দরিদ্রতম পরিবারগুলোকে মাথাপিছু পাঁচ কেজি চাল অথবা গম এবং এক কেজি ডাল সহায়তা দেওয়া হবে। মঙ্গলবার (৩০ জুন) জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে এই ঘোষণার পাশাপাশি লকডাউন প্রত্যাহারের সময় দেশবাসীকে আরও সতর্ক থাকার আহ্বান জানান মোদি। কলকাতাভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি

ভারতে করোনাভাইরাসের বিস্তার এখনও অব্যাহত রয়েছে। সোমবার পর্যন্ত দেশটিতে সাড়ে পাঁচ লাখের বেশি আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। সংক্রমণ বাড়তে থাকলেও আগামী ১ জুলাই থেকে দ্বিতীয় ধাপে লকডাউনের বিধিনিষেধ শিথিল করা শুরু করছে ভারত। তবে বন্ধ থাকছে ট্রেন, মেট্রো সেবাসহ আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। অনেক শিল্পক্ষেত্রও পুরোদমে কাজ শুরু হচ্ছে না। আবার পরিযায়ী শ্রমিকদের অনেকে বাড়িতে ফিরতে পারলেও কার্যত কর্মহীন হয়ে রয়েছেন। এমন পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর অন্ন যোজনার মেয়াদ ৩০ জুন শেষ হওয়ার কথা ছিল। তবে তার আগেই দরিদ্রদের সহায়তার এই প্রকল্পের মেয়াদ আরও পাঁচ মাস বাড়ানোর ঘোষণা দিলেন মোদি।

মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘কৃষিক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি কাজকর্ম শুরু হয় জুলাই মাস থেকে। এই সময়ে অন্যান্য শিল্পক্ষেত্রে কাজের পরিমাণ কিছুটা কম থাকে। তাছাড়া উৎসব মৌসুমও কার্যত জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে। এই সময়ে মানুষের প্রয়োজন ও খরচ বাড়ে। এসব বিষয় বিবেচনায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অন্ন যোজনার মেয়াদ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হলো। এর ফলে নভেম্বর পর্যন্ত দেশের প্রায় ৮০ কোটি মানুষ বিনামূল্য খাদ্যশস্য পাবেন।’

খাদ্য সহায়তার এই প্রকল্পে কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন করে ৯০ হাজার কোটি রুপি খরচ হবে বলে জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর আগে জুন পর্যন্ত গত ছয় মাস ধরে এই প্রকল্প চালানো হয়েছে। সেই ব্যয় হিসাবে আনলে এই প্রকল্পের মোট খরচ দাঁড়াবে প্রায় দেড় লক্ষ কোটি রুপি।

/জেজে/এমওএফ/

লাইভ

টপ