তুর্কি জাহাজে হামলা হলে চড়া মূল্য দিতে হবে: এরদোয়ান

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ১৫:১৫, আগস্ট ১৪, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:২১, আগস্ট ১৪, ২০২০

ভূমধ্যসাগরে বিবাদপূর্ণ পানিসীমায় তেল ও গ্যাসের অনুসন্ধানে নিয়োজিত তুর্কি জাহাজে কোনও হামলা হলে চড়া জবাব দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তায়্যিব এরদোয়ান। বৃহস্পতিবার আঙ্কারায় দেওয়া এক বক্তব্যে (১৩ আগস্ট) এ হুঁশিয়ারি দেন তিনি। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

এরদোয়ান

সোমবার (১০ আগস্ট) পূর্ব ভূমধ্যসাগরে ক্রিট দ্বীপ অঞ্চল ও সাইপ্রাসের মধ্যবর্তী পানিসীমায় তেল-গ্যাসের অনুসন্ধান চালাতে ওরুক রেইস নামক জাহাজ পাঠায় তুরস্ক। এটিকে পাহারা দেওয়ার জন্য সঙ্গে কয়েকটি সামরিক জাহাজও পাঠিয়েছে দেশটি। আর এ পদক্ষেপকে অবৈধ উল্লেখ করে এর বিরুদ্ধে নিন্দা জানিয়েছে গ্রিস। ক্ষোভ জানিয়েছে ফ্রান্সও। বিতর্কিত সমুদ্রসীমায় একতরফাভাবে তুরস্কের তেল-গ্যাসের অনুসন্ধান কার্যক্রম শুরুর ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। ওই অঞ্চলে সামরিক উপস্থিতি বাড়ানোর ঘোষণা দেন তিনি। বৃহস্পতিবার ক্রিট দ্বীপ এলাকায় সামরিক প্রশিক্ষণ মহড়া চালিয়েছে ফ্রান্স ও গ্রিস।

এমন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার এরদোয়ান বলেন, ‘আমরা বলে দিয়েছি যে আমাদের ওরুক রেইসকে আক্রমণ করা হলে এর জন্য চড়া মূল্য দিতে হবে। তারা আজকে প্রাথমিক জবাব পেয়েও গেছে।’ তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত উল্লেখ করেননি এরদোয়ান।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে এরদোয়ান বলেন, ‘পূর্ব ভূমধ্যসাগর নিয়ে সংকট সমাধানের উপায় হচ্ছে আলোচনা এবং সংলাপ। আমরা যদি সাধারণ জ্ঞান নিয়ে কাজ করি তাহলে আমরা উইন-উইন পরিবেশ তৈরি করতে পারব যার মাধ্যমে সবার স্বার্থ রক্ষা সম্ভব। আমরা কোনও রকমের অপ্রয়োজনীয় সংকট সৃষ্টি বা উত্তেজনা তৈরি করতে চাইছি না।’

ফ্রান্সের প্রতি ইঙ্গিত করে এরদোয়ান আরও বলেন, ‘এ অঞ্চলে যার কোনও উপকূল নেই এমন একটি দেশ গ্রিসকে ভুল পথে ঠেলে দিচ্ছে।’

/এফইউ/

লাইভ

টপ