X
শনিবার, ০৮ অক্টোবর ২০২২
২২ আশ্বিন ১৪২৯

ঘুরে আসুন জলদুর্গ ইদ্রাকপুর থেকে

নওরিন আক্তার
১৯ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৫২আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ২০:৫৭

ঢাকার একদম কাছেই মুন্সীগঞ্জে অবস্থিত প্রাচীন স্থাপনার অন্যতম ইদ্রাকপুর দুর্গ। মোঘল স্থাপত্যের ঐতিহ্যবাহী নিদর্শনটি দেখতে চাইলে দিনে গিয়ে দিনেই ফিরে আসতে পারবেন।

ঘুরে আসুন জলদুর্গ ইদ্রাকপুর থেকে

ইদ্রাকপুর দুর্গ সম্পর্কে
ঢাকা থেকে ২৪ কিলোমিটার দক্ষিণ-পূর্ব মুন্সীগঞ্জ জেলায় ইদ্রাকপুর দুর্গ অবস্থিত। বিখ্যাত বিক্রমপুরের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিল মুন্সীগঞ্জ। সম্রাট আওরঙ্গজেবের সময় বাংলার মোঘল সুবেদার মীরজুমলা আনুমানিক ১৬৬০ সালে ইদ্রাকপুর দুর্গ নির্মাণ করেন। ইটের তৈরি এই দুর্গটি তৎকালীন মগ জলদস্যু ও পর্তুগিজ আক্রমণের হাত থেকে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জসহ সমগ্র এলাকাকে রক্ষা করার জন্য নির্মিত হয়েছিল।

ঘুরে আসুন জলদুর্গ ইদ্রাকপুর থেকে

সুরঙ্গপথে ঢাকার লালবাগ দুর্গের সাথে এই দুর্গের যোগাযোগ ছিল বলে একটি জনশ্রুতি প্রচলিত আছে। সুউচ্চ প্রাচীরবিশিষ্ট এই দুর্গের প্রত্যেক কোনায় রয়েছে একটি বৃত্তাকার বেষ্টনী। দুর্গের ভেতর থেকে শত্রুর প্রতি গোলা নিক্ষেপের জন্য প্রাচীরের মধ্যে অসংখ্য চতুষ্কোনাকার ফোঁকর রয়েছে। একমাত্র খিলানাকার দরজাটির অবস্থান উত্তর দিকে। মূল প্রাচীরের পূর্ব দেয়ালের মাঝামাঝি অংশে ৩৩ মিটার ব্যাসের একটি গোলাকার উঁচু মঞ্চ রয়েছে। দূর থেকে শত্রুর চলাচল পর্যবেক্ষণের জন্য প্রায় প্রতি দুর্গে এই ব্যবস্থা ছিল। এই মঞ্চকে ঘিরে আর একটি অতিরিক্ত প্রাচীর মূল দেয়ালের সাথে মিলিত হয়েছে। দুর্গের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সূদৃঢ় করার জন্য এটি নির্মিত হয়েছিল।

ঘুরে আসুন জলদুর্গ ইদ্রাকপুর থেকে

দুর্গের চার কোণায় চারটি বুরুজ রয়েছে। চারবাহু বেষ্টিত দুর্গের খোলা অভ্যন্তর ভাগের পরিমাপ ৫৫ মিটার ও ৮২.৫০ মিটার। চারদিকে ৬ মিটার উঁচু ও .৯২ মিটার পুরু ইটের দেয়াল এবং দেয়ালগুলোর উপর মারলন নকশা রয়েছে। দুর্গের পূর্ব দেয়ালের মাঝামাঝি পূর্বদিকে বাইরে উদ্গত বিশাল উঁচু গোলাকার ড্রাম রয়েছে। এ ড্রামটিকে ঘিরে পূর্বে ট্রাপিজিয়াম আকৃতির অতিরিক্ত দুর্গ প্রাচীর আছে।

ঘুরে আসুন জলদুর্গ ইদ্রাকপুর থেকে

প্রাপ্ত স্থাপনাসমূহে গুপ্ত, পাল ও সেন আমলে ব্যবহৃত ইটের পরিমাপের ইট, চুন-সুরকি, ব্যবহৃত হয়েছে। এছাড়া দুর্গটি সংস্কারের সময় ব্রিটিশ আমলে নির্মিত কাঠামো সমূহের মধ্যে মেঝে নির্মাণের বিশেষ কৌশল হিসেবে সারিবদ্ধ কলসের উপর বর্গাকার টালি, ইট, বসানো অবস্থায় পাওয়া যায়। ধারণা করা যায়, আর্দ্রতারোধক হিসেবে কৌশলটি ব্যবহৃত হতো।

ঘুরে আসুন জলদুর্গ ইদ্রাকপুর থেকে

কেল্লাটির তিন কিলোমিটারের মধ্যেই ইছামতী, ধলেশ্বরী, মেঘনা এবং শীতলক্ষা নদীর অবস্থান। মোঘল স্থাপত্যের একটি অনন্য কীর্তি হিসেবে ইদ্রাকপুর দুর্গটি ১৯০৯ সালে সংরক্ষিত পুরাকীর্তি হিসেবে ঘোষিত হয়। মোঘল ঢাকার ৩টি জলদুর্গের মধ্যে ইদ্রাকপুর দুর্গ অন্যতম।  

যেভাবে যাবেন
মুন্সীগঞ্জ জেলা সদরের পুরাতন কোর্ট অফিসের কাছে ইদ্রাকপুর কেল্লার অবস্থান। গুলিস্তান থেকে মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর এসে অটো নিয়ে যেতে পারবেন দুর্গে। নিজস্ব ট্রান্সপোর্ট থাকলে ঢাকা-মাওয়া সড়ক ধরে শ্রীনগর দিয়েও ঘুরে আসতে পারেন ইদ্রাকপুর দুর্গে। চমৎকার রাস্তা আর প্রকৃতির সান্নিধ্য উপভোগ করতে করতে যেতে পারবেন। দুর্গে ঢুকতে প্রয়োজন নেই কোনও প্রবেশমূল্যের।  

/এনএ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
নিজ দলের বিরুদ্ধে এমপি আফসানার সংবাদ সম্মেলন
নিজ দলের বিরুদ্ধে এমপি আফসানার সংবাদ সম্মেলন
বাংলাদেশ ন্যাপে যোগ দিলেন জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা
বাংলাদেশ ন্যাপে যোগ দিলেন জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা
পদ্মা সেতু দিয়ে টুঙ্গিপাড়ায় গেলেন রাষ্ট্রপতি
পদ্মা সেতু দিয়ে টুঙ্গিপাড়ায় গেলেন রাষ্ট্রপতি
হেলাল হাফিজের জন্মদিনে আনন্দসন্ধ্যা
হেলাল হাফিজের জন্মদিনে আনন্দসন্ধ্যা
বাংলাট্রিবিউনের সর্বাধিক পঠিত
মেট্রোরেলে চাকরির সুযোগ, বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
মেট্রোরেলে চাকরির সুযোগ, বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ
বাংলাদেশি যুবকের সঙ্গে অনুপ চেটিয়ার মেয়ের বিয়ে
বাংলাদেশি যুবকের সঙ্গে অনুপ চেটিয়ার মেয়ের বিয়ে
‘ইতালি আমাদের ভিসা দেবে না চিন্তাও করিনি’
‘ইতালি আমাদের ভিসা দেবে না চিন্তাও করিনি’
ইউক্রেন জয়ের স্বপ্ন হাতছাড়া পুতিনের?
ইউক্রেন জয়ের স্বপ্ন হাতছাড়া পুতিনের?
নভেম্বরে দুটি দেশ সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী
নভেম্বরে দুটি দেশ সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী