X
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২
১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

পূজার সাজে কুমকুম

কেবল গোল বা লম্বা আকৃতির মাঝেই সীমাবদ্ধ থাকে না এর নকশা। আর এখানেই বৈচিত্র্য কুমকুমের টিপের। কপালের পাশাপাশি হাত সাজাতেও ব্যবহার করা যায় রঙিন কুমকুম। পূজার সাজে কুমকুমের ঐতিহ্যকে ধারণ করতে পারেন নতুন করে।

 

নওরিন আক্তার
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৪৯আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৫৮

তুলির সাহায্যে এঁকে নিতে পারেন কুমকুমের টিপ। ছবি: সংগৃহীত

এক সময় কুমকুমের ছোঁয়া ছাড়া কনের সাজে আসতো না পূর্ণতা। আশি ও নব্বই দশকের সময়টাতে সাদা ও লাল কুমকুমের সাহায্যে কনের কপালজুড়ে সাজানো হতো জমকালো নকশা। দাদি, নানি বা খালাদের সাজের সরঞ্জামে থাকতো প্লেটে সাজানো বিভিন্ন রঙের কুমকুম। এখন কুমকুম দিয়ে সাজার প্রচলন কমে গেছে অনেকটাই।

 

জমকালো টিপ এঁকে ফেলা যায় কুমকুমের সাহায্যে। ছবি: সংগৃহীত

 

কুমকুমের প্রচলব সর্বপ্রথম শুরু হয় ভারতে। ধর্মীয় উৎসবগুলোতে রঙ খেলার জন্য ব্যবহৃত পাউডার রঙ তরল করে বিক্রি শুরু হয় ছোট ছোট কৌটায়। অনেকে সিঁদুর হিসেবেও ব্যবহার করেন লাল ও মেরুন কুমকুম।

 

ঐতিহ্যবাহী সাজের সঙ্গে বেশ মানিয়ে যায় কুমকুমের টিপ। ছবি: সংগৃহীত

 

পূজার সাজে কুমকুমের টিপ পরতে পারেন। কুমকুমের সাহায্যে বিভিন্নভাবে নতুনত্ব নিয়ে আসা যায় টিপের নকশায়। কুমকুমের সঙ্গেই দেওয়া থাকে তুলি। সেগুলো দিয়ে চমৎকার সব নকশা করে ফেলতে পারেন কপালে। মাঝে লাল রঙের বড় গোল টিপ পরে চারদিকে কুমকুম দিয়ে সাজিয়ে নিতে পারেন। পূজার ঐতিহ্যবাহী সাজের সঙ্গে বেশ মানিয়ে যাবে।

 

সহজ নকশাতেও বৈচিত্র্য নিয়ে আসতে পারেন টিপে। ছবি: সারানা

তামান্না'স ড্রিমের রূপ বিশেষজ্ঞ তামান্না শরীফ বলেন, বড় নকশা আঁকা যদিও অনেকটুকুই নির্ভর করে আঁকার দক্ষতার ওপরে, তবে ছোট ও হালকা নকশা কিন্তু খুব সহজেই করে নেওয়া যায়। আবার বারকয়েক এঁকে নিলে সূক্ষ্ম নকশাতেও হাত চলে আসে।  

 

রঙিন কুমকুমের প্লেট। ছবি: সারানা

কলকি ডিজাইন, ফুলেল ডিজাইনের পাশাপাশি একেবারে সাধারণ সব ডিজাইনেও ভিন্নতা আনা যায় সাজে। যেমন একটি লম্বা টিপ পরে নিচে সাদা কুমকুম দিয়ে একটি দাগ টেনে দেওয়া যেতে পারে। অথবা গোল টিপের নিচে কেবল এক ফোঁটা কুমকুম লাগিয়ে সৌন্দর্য বাড়াতে পারেন টিপের।

 

বিভিন্ন নকশার কুমকুমের টিপ। ছবি: সংগৃহীত

কপালের পাশাপাশি হাত সাজাতেও রঙিন কুমকুম ব্যবহার করতে পারেন। আলতা কিংবা মেহেদি দিয়ে নকশা করে সহজ কোনও নকশা এঁকে নিতে পারেন কুমকুম দিয়ে।

হাতও সাজাতে পারেন কুমকুম দিয়ে। ছবি: সারানা

কোথায় পাবেন
পুরান ঢাকার শাঁখারিবাজারে পাবেন কুমকুম। ব্যাঙাচি, সারানাসহ বেশ কিছু অনলাইন পেইজেও মিলবে এটি। দাম পড়বে ৬০ থেকে ২৫০ টাকার মধ্যে।     

/এনএ/
ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনেশিয়ার বিদায়
ফ্রান্সকে হারিয়েও তিউনেশিয়ার বিদায়
১৮ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া দিনাজপুর পৌরসভার
১৮ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া দিনাজপুর পৌরসভার
ডেনিশদের হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া নকআউট পর্বে
ডেনিশদের হারিয়ে অস্ট্রেলিয়া নকআউট পর্বে
বাখমুতের কাছে দুটি ইউক্রেনীয় গ্রাম দখলের দাবি রাশিয়ার
বাখমুতের কাছে দুটি ইউক্রেনীয় গ্রাম দখলের দাবি রাশিয়ার
সর্বাধিক পঠিত
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
লুট হওয়া ১১ অস্ত্র মিয়ানমার থেকে ফেরত পাওয়ার আশা বিজিবির
ফিফার মান বাঁচালেন ‘বিটিএস’ জাংকুক!
ফিফার মান বাঁচালেন ‘বিটিএস’ জাংকুক!
রিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
ইসলামী ব্যাংকের ৩০ হাজার কোটি টাকা ঋণরিট করার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
৪ ডিসেম্বর থেকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা
তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা