মধ্য বয়সীরা খাদ্য তালিকায় কী রাখবেন?

Send
আমিনা শাহনাজ হাশমি
প্রকাশিত : ১৬:০০, জানুয়ারি ১৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:০০, জানুয়ারি ১৬, ২০২০

মধ্য বয়সে মানসিক চাপ বেশ জেঁকে ধরে। ৩০ থেকে ৪০ বছরের সময়টা কাটে নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে ব্যস্ত থাকা, সংসারের কাজ, সামাজিক ও পারিবারিক দায়িত্ব পালনের মধ্য দিয়ে। সব কিছু ঠিকঠাক করতে গিয়ে আমরা ভুলে যাই নিজের প্রতি যত্ন নেওয়ার কথা। এই ভুলে যাওয়াটাই হয়ে ওঠে কাল। সবসময় মনে রাখবেন, আপনি নিজে ভালো না থাকলে অন্যকে ভালো রাখতে পারবেন না। তাই প্রথমেই চাই নিজের যত্ন নেওয়া।

লক্ষ রাখবেন যেন খাদ্য তালিকায় ‘ফোলেট’ সমৃদ্ধ খাবার থাকে। ফোলেট শরীরে রক্তের পরিমাণ বাড়াতে সাহায্য করে। বিশেষ করে মেয়েদের গর্ভধারণের সময় গর্ভে থাকা শিশুর বেড়ে ওঠা নিশ্চিতের জন্য এবং শিশুর বুকের দুধ খাওয়ানোর জন্য অনেক পুষ্টি প্রয়োজন। এ সময় তাই ফোলেট সম্পন্ন খাবার খাওয়া জরুরি। এছাড়াও ছেলেদের হৃদরোগ কমাতে ফোলেট কাজ করে। ছোলা, পালং শাক, ডিম, ব্রকলি, কমলার রস থেকে প্রচুর পরিমাণে এ উপাদান পাওয়া যায়। প্রতিদিন কমলা খেলে আমরা ৪০০ মাইক্রো গ্রাম ফোলেটের চাহিদা পূরণ করতে পারি।

এরপর খেয়াল রাখতে হবে ‘ফাইটো-নিউট্রিয়েন্টস’ এর দিকে। এটি মূলত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সম্পন্ন যা বয়স বৃদ্ধি প্রক্রিয়াকে ধীর গতি আনে এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া ক্যানসার প্রতিরোধ করে ও শরীর ভালো রাখতে সাহায্য করে। ডার্ক চকলেট, কফি, ধনিয়া পাতা ও পুদিনা পাতা থেকে এই উপাদান পাবেন।

এরপর আসা যায় আয়রন এ। গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব তরুণদের শরীরে মিনারেলের অভাব রয়েছে এবং আয়রনের অভাব রয়েছে তারা বুদ্ধি বিবেচনামূলক উত্তর দিতে সময় বেশি নেয় এদের বুদ্ধিদীপ্ততা অনেক কম। আমাদের শরীরে আয়রনের চাহিদা পূরণে প্রতিদিন খাদ্য তালিকায় কমপক্ষে ১৮ গ্রাম আয়রন সমৃদ্ধ খাবার রাখা উচিৎ। চর্বিহীন গরুর মাংস, সয়াবিন, মিষ্টি কুমড়ার বিচি, শুকনো ফলমূল ও সবুজ শাকসবজি এবং বিভিন্ন রকম ডাল ও শস্য জাতীয় খাবার থেকে আয়রন পাওয়া যায়।

লেখক: পুষ্টিবিদ

/এনএ/

লাইভ

টপ