করোনা মোকাবিলায় রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপির গুরুত্ব

Send
এহসানুর রহমান
প্রকাশিত : ১৪:০০, জুন ০১, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৫৪, জুন ০১, ২০২০

প্রতিদিন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। স্বাস্থ্যবিধি মানার পাশাপাশি সুষম খাবার এবং অ্যারোবিক এক্সারসাইজ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমাতে পারে। অক্সিজেন থেরাপির সাথে রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপি দেওয়া হলে রোগীর শ্বাস-প্রশ্বাসের জটিলতা ও মৃত্যুহার কমিয়ে আনা সম্ভব হবে। উন্নত দেশগুলোতে, এমনকি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতেও কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের শ্বাসকষ্ট কমাতে এবং বুকে জমে থাকা কফ বের করে তাদের সুস্থ করে তুলতে রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপিস্টরা সাহায্য করছেন। এতে সুফলও মিলছে।


উন্নত বিশ্বে রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপিস্টগণ চেস্ট মেডিসিন ওয়ার্ডে, আইসিইউতে, ফুসফুসের সার্জারির পূর্বে ও পরে এবং রোগীর প্রয়োজন অনুসারে মাল্টিডিসিপ্লিনারি টিমে রেসপিরেটরি পুনর্বাসন সম্পন্ন করতে নিয়োজিত থাকেন।
মাইকেল ডি. ল্যান্ড্রি, যিনি একজন ফিজিওথেরাপিস্ট এবং আমেরিকার নর্থ ক্যারোলিনার ডিউক বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব মেডিসিনের অধীনস্ত অর্থোপেডিক সার্জারি এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য বিভাগের একজন অধ্যাপক, সম্প্রতি আমেরিকান ফিজিওথেরাপি অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত একটি অনলাইন টেলিকনফারেন্সে বলেন, ‘করোনাভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার প্রাথমিক পর্যায়ের রোগীদের ক্ষেত্রে বর্তমানে ফিজিওথেরাপিস্টরা রোগীদের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে তাদের সেখান থেকে সরিয়ে নিচ্ছেন যেন তারা পুনরায় কোভিড-১৯ আক্রান্ত না হন। কোভিড-১৯ রোগীরা মূলত এআরডিএস এ বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন। এক্ষেত্রে তাদের ফুসফুসের কার্যকারিতা বাড়ানোর জন্য ফিজিওথেরাপিস্টরা কাজ করে যাচ্ছেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা আমেরিকাতে অন্যান্য হেলথ কেয়ার প্রফেশনালদের মতো সামনের সারিতে রয়েছি এই মহামারি মোকাবেলায়। আমেরিকার সকল সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায়ের ফিজিওথেরাপিস্টরা কোভিড-১৯ মোকাবেলায় ফিজিশিয়ানদের সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করে যাচ্ছে।’ 
ইতালির মিলান শহরের গ্রেট মেট্রোপলিটন হাসপাতালে কর্মরত ফিজিওথেরাপিস্ট মারতা ল্যাজেরই জানান, কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের প্রচণ্ড রকমের নিউমোনিয়া হতে পারে যার পাশাপাশি শ্বাসকষ্ট এবং ফুসফুসে অক্সিজেন প্রবাহে সমস্যার সৃষ্টি হয়। এজন্য রোগীকে জরুরি ভিত্তিতে হাই ফ্লো অক্সিজেন থেরাপির পাশাপাশি সিকেপ (কনটিনিউয়াস পজিটিভ এয়ারওয়ে প্রেসার) এ রাখতে হবে। তিনি বলেন, এ সকল কিছু একজন রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপিস্টের সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে করা হয়। রোগীর এয়ারওয়ে সচল রাখা এবং শ্বাসকষ্ট নিরাময়ে রোগীকে ব্রিদিং এক্সারসাইজ করানো এবং পোসচারাল ড্রেনেজ প্রক্রিয়া ব্যবহারের কথাও বলেছেন এই বিশেষজ্ঞ রেসপিরেটরি রিফিজিওথেরাপি চিকিৎসক। মিসেস র‍্যাচেল কোলক্লহ যিনি যুক্তরাজ্যের চার্টার্ড রেস্পিরেটরি ফিজিওথেরাপি অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি এবং বারমিংহাম কুইন এলিজাবেথ হাসপাতালে কর্মরত একজন ফিজিওথেরাপিস্ট। তিনি সম্প্রতি উল্লেখ করেন, ‘আইসিইউতে আমাদের কাজ হলো, রোগীর ফুসফুসকে সাহায্য করা এবং এর ভেতরের শ্লেষ্মা বের করে দিয়ে ফুসফুসে বাতাস চলাচলের পথকে সচল রাখা। এটা করার জন্য আমরা হাতের কিছু কৌশলের আশ্রয় নিই। যেমন ভাইব্রেশন বা অ্যাসিসটিভ কফ টেকনিক যা বাতাস চলাচলের পথ থেকে শ্লেষ্মা সরাতে সাহায্য করে।’
ইংল্যান্ডের এন এইচ এস ট্রাস্ট এরঅক্সফোর্ড হাসপাতালের কার্ডিওথোরাসিক সার্জন ডা. শাকিল ফরিদ কোভিড-১৯ চিকিৎসার গাইডলাইন সম্পর্কে বলতে গিয়েও রোগীর সুস্থতার জন্য রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপির গুরুত্বের কথা বলেছেন। ইংল্যান্ডের প্রতিটি হাসপাতালেই ফিজিওথেরাপির আলাদা বিভাগ রয়েছে যেমন, রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপি, মাস্কুলোস্কেলেটাল ফিজিওথেরাপি, নিউরোলজি ফিজিওথেরাপি। বেডফোর্ড হাসপাতাল, অক্সফোর্ড হাসপাতাল এমন আরও অনেক হাসপাতাল আছে যেখানে ফিজিওথেরাপিস্টরা অনেক বিস্তৃত পরিসরে কাজ করছেন। কোভিড-১৯ এ সেখানে বাধ্যতামূলকভাবে ফিজিওথেরাপিস্টরা চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে এবং রোগীরা উপকারও পাচ্ছে। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের মুম্বাইয়ে অবস্থিত টোপিওয়ালা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ডা. রচনা অরোরা জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক সময়ে কোভিড-১৯ শ্বাসকষ্টের জটিলতা কমাতে রোগীকে বিভিন্ন রকম পজিশনিং যেমন উপুর করে শোয়ানো, আধশোয়া, বিভিন্ন অ্যাকটিভ এক্সারসাইজ ইত্যাদি পরামর্শ দিয়ে ফুসফুসে বাতাস প্রবেশের পথ সুগম করা যায়। এছাড়াও সিওপিডি, রেসপিরেটরি ফেইলুর, ব্রংকাইটিস, অ্যাজমা রোগীদের ক্ষেত্রে বুটিকো ব্রিদিং টেকনিক, পারসলিপ ব্রিদিং এক্সারসাইজ, অ্যারোবিক এক্সারসাইজের ক্ষেত্রেও রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপিস্টদের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে।
কোভিড-১৯ প্রতিরোধ থেকে প্রতিকার- সব পর্যায়েই রেসপিরেটরি ফিজিওথেরাপি চিকিৎসার ভূমিকা রয়েছে। তাই এ দুর্যোগপূর্ণ অবস্থায় দক্ষ ফিজিওথেরাপিস্টদের সর্বাধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা কাজে লাগাতে অতিসত্ত্বর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী ফিজিওথেরাপি চিকিৎসক নিয়োগ করা খুবই প্রয়োজন।

লেখক: ফিজিওথেরাপি বিশেষজ্ঞ
সহকারী অধ্যাপক, বাংলাদেশ হেলথ প্রফেশনস ইনস্টিটিউট,
সি আর পি, সাভার, ঢাকা 

ছবি: সংগৃহীত 




/এনএ/

লাইভ

টপ