X
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২, ৪ মাঘ ১৪২৮
সেকশনস

বিশ্বমানের জনসম্পদ তৈরিতে প্রয়োজন বাড়তি মনোযোগ ও বিনিয়োগ: আতিউর

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৯:৫৭

বিশ্বমানের জনসম্পদ তৈরিতে প্রয়োজন বাড়তি মনোযোগ ও বিনিয়োগ-বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনারারি অধ্যাপক ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত তৃতীয় দিনের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ড. আতিউর রহমান বলেন, "সকল অংশীজনের সহযোগিতায় কাঙ্ক্ষিত উন্নয়ন অভিযাত্রায় নিশ্চয়ই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বরাবরের মতো কাঙ্ক্ষিত ভূমিকা পালন করবে-সেই বিশ্বাস আমার আছে। প্রয়োজন আমাদের বাড়তি মনোযোগ এবং বিনিয়োগ।"

সংসদ সদস্য রাশেদ খান মেনন বলেন, "এই দেশের রাজনীতির কেন্দ্র ও প্রাণভোমরা এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ছিল। আজকে যুগ পাল্টেছে, সময় পাল্টেছে, সামনে আরও নতুন চ্যালেঞ্জ রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়কে আগের জায়গায় ফিরিয়ে নিয়ে যেতে একাডেমিক লিডারশিপ প্রয়োজন তা আপনারা দেবেন৷ এবং এই ক্ষেত্রে গবেষণার যে মূল্য রয়েছে, সেই বিষয়টা আনতে হবে।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, "আমরা যখন আমাদের প্রাচ্যের অক্সফোর্ডের হারানোর ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে পারবো, শিক্ষা ও গবেষণায় যদি আমরা আন্তর্জাতিক মানে উন্নতি করতে পারি, তাহলে দেশবাসী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতৃত্ব শুধু মেনেই নেবেন না স্বাগতও জানাবেন। কিন্তু তার আগে মানুষের মনে আস্থা ফিরিয়ে আনতে হবে।"

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ড. কাজী খালেকুজ্জামান আহমদ বলেন, "আমরা সবাই আমি হয়ে আছি। যতদিন আমরা না হতে পারবো ততদিন জাতির অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পারব না।”

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, "বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মাঝে মাঝে অন্যায়ের পক্ষে কথা বললেও শিক্ষার্থীরা কখনো অন্যায়ের পক্ষে দাঁড়ায়নি। আমি মনে করি এটিই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সবচেয়ে বড় অর্জন।"

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, "আমাদের গবেষণা বাড়াতে হবে এবং জীবনমান পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে আমাদের চাহিদা পরিবর্তন হচ্ছে। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে শিক্ষার পরিবেশ পরিবর্তন হচ্ছে সেক্ষেত্রে আমাদের চিন্তারও পরিবর্তন হচ্ছে।"

শিক্ষক সমিতির সভাপতি রহমত উল্লাহ বলেন, "ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আজও জাতির প্রেরণার বাতিঘর ও জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা হিসেবে ভূমিকা রেখে চলেছে। শিক্ষার্থীদের সমস্যা নিরসনে বরাদ্দ বাড়ানোর জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান তিনি।

/এমএস/
সম্পর্কিত
‘বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর সমাজ নির্মাণের বিকল্প নেই'
‘বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর সমাজ নির্মাণের বিকল্প নেই'
ছাত্রলীগের ঢাবি হল সম্মেলন জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে
ছাত্রলীগের ঢাবি হল সম্মেলন জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে
আপাতত স্বাভাবিক নিয়মে চলবে ঢাবির কার্যক্রম
আপাতত স্বাভাবিক নিয়মে চলবে ঢাবির কার্যক্রম

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
‘বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর সমাজ নির্মাণের বিকল্প নেই'
‘বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় জ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর সমাজ নির্মাণের বিকল্প নেই'
ছাত্রলীগের ঢাবি হল সম্মেলন জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে
ছাত্রলীগের ঢাবি হল সম্মেলন জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে
আপাতত স্বাভাবিক নিয়মে চলবে ঢাবির কার্যক্রম
আপাতত স্বাভাবিক নিয়মে চলবে ঢাবির কার্যক্রম
ঢাবিতে জাতীয় স্নাতক গণিত অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত
ঢাবিতে জাতীয় স্নাতক গণিত অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত
© 2022 Bangla Tribune