X
সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২
২৪ শ্রাবণ ১৪২৯

লকডাউন শিথিলে উদ্বেগ, টানা আরও ১৪ দিন কঠোরের সুপারিশ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৫ জুলাই ২০২১, ০০:১২আপডেট : ২৩ জুলাই ২০২১, ১৭:৪৫

করোনা মহামারিতে সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার এখন সর্বোচ্চ পর্যায়ে রয়েছে। ভয়াবহ এই পরিস্থিতিতে লকডাউন শিথিল করার সরকারি সিদ্ধান্তে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। সেই সঙ্গে সারাদেশে কঠোর এই লকডাউন টানা আরও ১৪ দিন বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়েছে। গত সোমবার (১২ জুলাই) রাতে পরামর্শক কমিটির সভায় এ সুপারিশ করা হয়। বুধবার (১৪ জুলাই) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানায় কমিটি।

যদিও পরামর্শক কমিটির সভার পরেরদিনই গত মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) এক প্রজ্ঞাপন জারি করে আজ বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) থেকে ৯ দিন বিধিনিষেধ শিথিল রাখার কথা জানিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। অবশ্য ঈদের তৃতীয় দিন (২৩ জুলাই) থেকে ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করার কথাও উল্লেখ করা হয়েছে প্রজ্ঞাপনে। 

টিকা প্রদানের বয়স ১৮ বছর করার পরামর্শ
দেশে টিকা প্রদানের বয়স ১৮ বছর করার পরামর্শ দিয়েছে পরামর্শক কমিটি। প্রসঙ্গত, প্রথম দফায় টিকার নিবন্ধন করার জন্য সর্বনিম্ন বয়স ৫৫ নির্ধারণ করা হয়েছিল। যদিও পরে তা দুই দফায় কমিয়ে তা ৩৫-এ নামিয়ে আনা হয়েছে।

পরামর্শক কমিটির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সরকারের অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে আমদের দেশে বিভিন্ন উৎস থেকে কোভিড-১৯ এর টিকা প্রাপ্তি নিশ্চিত হয়েছে। আবারও সারাদেশে একযোগে ভ্যাকসিন কার্যক্রম শুরু হওয়ায় সরকারকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছে কমিটি। এই টিকার আওতায় দ্রুত আরও বেশি মানুষকে আনার উদ্দেশে টিকার বয়সসীমা ১৮ তে নামিয়ে আনা, এনআইডিবিহীন জনসাধারণকে টিকার আওতায় আনা, রেজিস্ট্রেশন সহজীকরণ ইত্যাদি বিষয়ে সরকারকে দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণের অনুরোধ করা হয়।

পশুর হাট বন্ধ রাখার সুপারিশ
করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশুর হাট বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটি। লকডাউনের অংশ হিসেবে কমিটি কোরবানির পশুর হাট বন্ধ রাখার প্রস্তাব করে প্রয়োজনে ডিজিটাল হাট পরিচালনার ব্যবস্থা করার পরামর্শ দিয়েছে। তবে সরকার লকডাউন শিথিল করে সীমিত পরিসরে কোরবানির পশুর হাট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিলে কিছু শর্ত বেধে দিয়েছে কমিটি।

সেগুলো হলো- শহর এলাকায় কোরবানির পশুর হাট বসার অনুমতি না দেওয়া। শারীরিক দূরত্ব এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি বজায় রেখে উন্মুক্ত স্থানে কোরবানির পশুর হাট বসানোর অনুমতি দেওয়া। বয়স্ক ব্যক্তি (৫০ বছরের বেশি বয়সী) এবং অন্য কোনও রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির কোরবানির হাটে না যাওয়া। হাটে প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য নির্দিষ্টভাবে আলাদা পথ রাখা। বাজারে আসা সকলের জন্য মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা। জনসাধারণকে ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে না গিয়ে, যে যেখানে আছেন সেখানে অবস্থান করার বিষয়ে উৎসাহিত করা। জনসাধারণের অনলাইন কোরবানির হাটের সুবিধা গ্রহণ উৎসাহিত করা। বাড়ির আঙিনায় কোরবানি না করে, সিটি করপোরেশন কর্তৃক নির্ধারিত স্থানে কোরবানির পশু জবাই করা। ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাত যেভাবে আয়োজন করা হয়েছিল, এবারও তেমনভাবে ঈদ-উল-আজহার জামাত আয়োজন করা।

কোভিড-১৯ পরীক্ষার সংখ্যা ধীরে ধীরে বৃদ্ধি করা
এতে আর বলা হয়, সরকার সারাদেশে কোভিড-১৯ পরীক্ষার সংখ্যা ধীরে ধীরে বৃদ্ধি করছে, যা সন্তোষজনক। জাতীয় পরামর্শক কমিটির পূর্ববর্তী সভার সুপারিশের প্রেক্ষিতে বেসরকারি পরীক্ষার মূল্য পুনরায় নির্ধারণ করায় সভায় সরকারকে ধন্যবাদ জানানো হয়। দৈনিক টেস্টের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি জন্য বেসরকারি পর্যায়েও টেস্ট বৃদ্ধি প্রয়োজন, এ লক্ষ্যে টেস্টের জন্য প্রয়োজনীয় কিটের দাম আরও হ্রাস পাওয়ায় পরীক্ষার মূল্য কমিয়ে ১০০০-১৫০০ টাকার মধ্যে নির্ধারণের পরামর্শ দেওয়া হয়।

/জেএ/এমআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
রাশিয়াকে ‘নিশ্চিহ্ন’ করতে চায় পশ্চিমারা: মেদভেদেভ
রাশিয়াকে ‘নিশ্চিহ্ন’ করতে চায় পশ্চিমারা: মেদভেদেভ
বঙ্গবন্ধুর সফলতার পেছনে ছিলেন বঙ্গমাতা: পরিকল্পনামন্ত্রী
বঙ্গবন্ধুর সফলতার পেছনে ছিলেন বঙ্গমাতা: পরিকল্পনামন্ত্রী
ধারাবাহিক নাটকে ক্রিকেটার আশরাফুল ও জাহানারা
ধারাবাহিক নাটকে ক্রিকেটার আশরাফুল ও জাহানারা
চুয়াত্তরের দুর্ভিক্ষ অনেকটা মানুষের সৃষ্টি: প্রধানমন্ত্রী
চুয়াত্তরের দুর্ভিক্ষ অনেকটা মানুষের সৃষ্টি: প্রধানমন্ত্রী
এ বিভাগের সর্বশেষ
প্রথমবার লকডাউন চীনের বাণিজ্যিক শহর সাংহাই
প্রথমবার লকডাউন চীনের বাণিজ্যিক শহর সাংহাই
প্রথমবারের মতো লকডাউনে কিরিবাতি
প্রথমবারের মতো লকডাউনে কিরিবাতি
একজনের ওমিক্রন শনাক্তের পর পুরো বিল্ডিং লকডাউন
একজনের ওমিক্রন শনাক্তের পর পুরো বিল্ডিং লকডাউন
নির্দেশনা মেনে চললে লকডাউন প্রয়োজন হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
নির্দেশনা মেনে চললে লকডাউন প্রয়োজন হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
লকডাউনে ৮৭ শতাংশ শ্রমিক কর্মসংস্থান হারিয়েছেন, ৭ শতাংশ এখনও বেকার: বিলস
লকডাউনে ৮৭ শতাংশ শ্রমিক কর্মসংস্থান হারিয়েছেন, ৭ শতাংশ এখনও বেকার: বিলস