X
সকল বিভাগ
সেকশনস
সকল বিভাগ

পার্থ গোপালের বাসা থেকে জব্দ টাকার মধ্যে ৬৪ লাখ বাজেয়াপ্তের নির্দেশ

আপডেট : ০৯ জানুয়ারি ২০২২, ১৬:৫৯

অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া কারা উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজনস) পার্থ গোপাল বণিককে কারাদণ্ড দেওয়ার পাশাপাশি তার বাসা থেকে জব্দ হওয়া ৮০ লাখ টাকার মধ্যে ৬৪ লাখ ১৪ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রবিবার (৯ জানুয়ারি) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এ আদেশ দেন। এসময় আসামি পার্থ গোপাল বণিক আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রায় ঘোষণার পর দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর মোশারফ হোসেন কাজল সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

অনিয়ম ও দুর্নীতির মামলায় ৮ বছর কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। এর মধ্যে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন এর ২০০৪ এর ২৭(১) ধারায় পাঁচ বছর এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন ১৯৪৭ এর ৫(২) ধারায় তিন বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড এবং একইসঙ্গে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। তবে ঘুষগ্রহণ ও মানিলন্ডারিং আইনে দু’টি ধারায় খালাস পেয়েছেন সাবেক এই কারা কর্মকর্তা। 

আইনজীবী মোশারফ হোসেন কাজল জানান, পার্থ গোপাল বণিক ডিআইজ পদে কর্মরত থাকা অবস্থায় দুর্নীতি অনিয়মের মাধ্যমে যে অর্থ উপার্জন করেছিলেন— সে সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে দুদকে ডাকা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তিনি তার বিরুদ্ধে আসা অভিযোগ স্বীকার করেন। পরে তাকে নিয়ে অভিযানে গিয়ে তার বাড়িতে থেকে ৮০ লাখ নগদ টাকা উদ্ধার হয়।

তিনি জেলখানা থাকা অবস্থায় কিছু ইনকাম ট্যাক্সের ঘোষণা দিয়ে এই অর্থকে বৈধ করার চেষ্টা করেছিলেন বলেও জানান দুদকের আইনজীবী। তিনি বলেন, ‘আদালত তার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ নিয়ে এসেছে সেগুলোকে বিশ্লেষণ করে সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে তার ৮০ লাখ টাকার মধ্যে ৬৪ লাখ ১৪ হাজার টাকা বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আর বাকি ১৪ লাখ ৮৬ হাজার টাকা তার উপার্জিত অর্থ, তাই সেগুলো তাকে ফেরত দিতে বলেছেন আদালত।

অন্যদিকে পার্থর আইনজীবী এহসানুল হক সমাজী বলেন, মামলাটিতে অভিযোগ গঠনের পরে মোট ১২ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন এবং আসামি নিজেই জবানবন্দী দিয়েছেন। আজ আদালতের রায়ে আসামির বিরুদ্ধে গঠিত যে চারটি পৃথক পৃথক চার্জের মধ্যে দুটি; অর্থাৎ মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন এবং পেনাল কোডের সেকশন ১৬১-এ গঠিত চার্জ দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) প্রমাণ করতে পারেনি। বাকি যে দুটি; দুর্নীতি বিরোধী আইন-২০০৪ এর ২৭(১) এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) এই দুটি ধারার প্রসিকিউশন পক্ষ আনীত অভিযোগ প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। সেই মোতাবেক এই আসামিকে সাজা দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, আদালতের পর্যবেক্ষণ আইনিভাবে পরীক্ষা করে এই বিরুদ্ধে রায়ের আইনগত প্রশ্নে উচ্চ আদালতে আসামিপক্ষ যথাসময়ে আপিল ফাইল করবেন।

আরও পড়ুন:
ঘুষগ্রহণ ও মানিলন্ডারিং আইনে দু’টি ধারায় পার্থ বণিক খালাস

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের ৮ বছরের কারাদণ্ড 

 

/টিএইচ/আরকে/ইউএস/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
৮ প্রতিষ্ঠানকে পরীক্ষামূলক ভেনামি চিংড়ি চাষের অনুমতি
৮ প্রতিষ্ঠানকে পরীক্ষামূলক ভেনামি চিংড়ি চাষের অনুমতি
কাঁচা মরিচের কেজি ৪০ টাকা
কাঁচা মরিচের কেজি ৪০ টাকা
পুলিশের গাড়িতে ধাক্কা দিয়ে পালানো বাসচালক গ্রেফতার
পুলিশের গাড়িতে ধাক্কা দিয়ে পালানো বাসচালক গ্রেফতার
নব্বই দশকের নীলুর নতুন গান
নব্বই দশকের নীলুর নতুন গান
এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
‘দুর্নীতি কমাতে ভূমি ব্যবস্থাপনায় ডিজিটাল নজরদারি করা হচ্ছে’
‘দুর্নীতি কমাতে ভূমি ব্যবস্থাপনায় ডিজিটাল নজরদারি করা হচ্ছে’