X
সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২
২৩ শ্রাবণ ১৪২৯

এটিএম জালিয়াতির আন্তর্জাতিক চক্রকে ধরতে ইন্টারপোলের সহযোগিতা নেবে পুলিশ

নুরুজ্জামান লাবু
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ২৩:৩০আপডেট : ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ২৩:৩০

দেশে এটিএম জালিয়াতি চক্রের বিদেশি সদস্যদের ধরতে আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের সহযোগিতা নেবে পুলিশ। পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার ভারত, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান ও নেপালে এই চক্র নিয়মিত জালিয়াতি করে বেড়াচ্ছে। এক দেশে জালিয়াতি করে তারা আরেক দেশে পালিয়ে যাচ্ছে। এ কারণে যৌথভাবে কাজ না করলে জালিয়াতি চক্রকে প্রতিহত করা সম্ভব হবে না।

গত বছরের ৩ ডিসেম্বর অন অ্যারাইভাল ভিসায় ঢাকায় এসে বিভিন্ন ব্যাংকের বুথ থেকে ক্লোন করা বিদেশি এটিএম কার্ড দিয়ে অর্থ উত্তোলনের চেষ্টা করেন তুরস্কের নাগরিক হাকান। ইস্টার্ন ব্যাংকের একাধিক বুথে এই অপচেষ্টা চালানোর সময় ব্যাংক কর্মকর্তারা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশের শরণাপন্ন হয়। পরে ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি) অভিযান চালিয়ে মফিউল ইসলাম নামে একজন বাংলাদেশিসহ হাকানকে গ্রেফতার করে।

সিটিটিসির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম (ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম) জানান, হাকান ও তার সহযোগীকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে চাঞ্চল্যকর কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। বিভিন্ন দেশে তার সহযোগীদের কিছু নাম বেরিয়ে এসেছে। এসব যাচাই করে তার অন্য সহযোগীদের আইনের আওতায় আনতে ইন্টারপোলের সহযোগিতা নেওয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে দেশে এটিএম জালিয়াতি চক্রের আন্তর্জাতিক একজন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। পিওতর সেজেফান মাজুরেক নামে জার্মান ওই নাগরিক জালিয়াতি করে বিভিন্ন ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেন। তবে দুই বছর আগে বিদেশি এই নাগরিক আদালত থেকে জামিন নিয়ে বিচার শেষের আগেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেছেন।

২০১৬ সালে আন্তর্জাতিক এই চক্র ধরা পড়ার পর আরও বেশ কয়েকবার এটিএম বুথে জালিয়াতি ঘটেছে। প্রতিটি ঘটনার সঙ্গেই কোনও না কোনোভাবে বিদেশি নাগরিকরা সরাসরি অথবা পরোক্ষভাবে জড়িত ছিল। ২০১৯ সালের জুনে আন্তর্জাতিক জালিয়াতি চক্রের ছয় সদস্যকে গ্রেফতার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ, যাদের সবাই ছিল ইউক্রেনের নাগরিক। ২০২০ সালের জুনে চট্টগ্রামের পূবালী ব্যাংকের বুথে জালিয়াতি করে টাকা তুলে নেওয়ার ঘটনায় শরীফ নামে একজন বাংলাদেশি নাগরিককে গ্রেফতার করা হয়, যিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে রাশিয়ায় অবস্থানের সময় এক বন্ধুর কাছ থেকে জালিয়াতির কলাকৌশল শিখেছিলেন।

সিটিটিসি কর্মকর্তারা বলছেন, এটিএম জালিয়াতি আন্তর্জাতিক চক্রের সদস্যরা তথ্যপ্রযুক্তিতে অনেক দক্ষ। তারা বিভিন্ন কৌশলে কোনও ব্যক্তির কার্ডের বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে ক্লোন কার্ড বানায়। কার্ডের গোপন তথ্য সংগ্রহ করতে তারা বিভিন্ন ব্যাংক বা ব্যক্তির ইলেকট্রনিক ডিভাইস হ্যাক করে থাকে। চক্রটির সদস্যরা কয়েক ধাপে কাজ করে। একটি গ্রুপ এটিএম কার্ডের তথ্য সংগ্রহ করে, আরেক গ্রুপ ক্লোন কার্ড নিয়ে সরাসরি বুথে গিয়ে অর্থ হাতিয়ে নেয়। সরাসরি বুথ থেকে টাকা তোলার জন্য আন্তর্জাতিক এই চক্র দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোকে টার্গেট করে থাকে।

সর্বশেষ গ্রেফতার হওয়া তুরস্কের নাগরিক হাকান পুলিশি রিমান্ড শেষে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তিনি তুরস্কে রোমেল নামের একজন ভারতীয় নাগরিকের মাধ্যমে জালিয়াতির কৌশল রপ্ত করেন বলে জানান। রোমেল তাকে ভারতে অবস্থানকারী সাকিব নামের একজনের কাছে পাঠায়। তারা ২০১৯ সালে আসামের একটি এটিএম বুথে জালিয়াতি করে টাকা তোলার সময় পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। প্রায় দেড় বছর কারাভোগের পর হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান হাকান।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, এটিএম জালিয়াতির আন্তর্জাতিক চক্রগুলো দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে বিস্তৃত নেটওয়ার্ক তৈরি করেছে। প্রত্যেক দেশের স্থানীয় কিছু লোকজনের মাধ্যমে তারা জালিয়াতির চেষ্টা চালাচ্ছে। চক্রটিতে একাধিক ভারতীয় নাগরিক ছাড়াও বুলগেরিয়া, মেক্সিকো, ইউক্রেন ও রুশ নাগরিকের সম্পৃক্ততা রয়েছে বলে জানা গেছে। ইন্টারপোলের মাধ্যমে এই চক্রের সদস্যদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করা হবে।

/জেএইচ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
সদরঘাটে দুই লঞ্চের চাপায় যাত্রীর মৃত্যু
সদরঘাটে দুই লঞ্চের চাপায় যাত্রীর মৃত্যু
জননী সাহসিকা-বঙ্গমাতা
জননী সাহসিকা-বঙ্গমাতা
পঞ্চগড়ে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
পঞ্চগড়ে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু
মাতৃত্বকালীন বিষণ্নতায় ভোগেন দেশের ৩৯ শতাংশ নারী
মাতৃত্বকালীন বিষণ্নতায় ভোগেন দেশের ৩৯ শতাংশ নারী
এ বিভাগের সর্বশেষ
আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় হিরো আলম, বিব্রত পুলিশ
আন্তর্জাতিক মিডিয়ায় হিরো আলম, বিব্রত পুলিশ
৪০ জেলায় নতুন পুলিশ সুপার
৪০ জেলায় নতুন পুলিশ সুপার
এএসপি-এসপিদের মতো বেল্ট ও ক্যাপ থাকছে না পরিদর্শকদের
এএসপি-এসপিদের মতো বেল্ট ও ক্যাপ থাকছে না পরিদর্শকদের
দেশের সবচেয়ে বড় অপরাধ হচ্ছে ব্যাংক খাতে: হাইকোর্ট
দেশের সবচেয়ে বড় অপরাধ হচ্ছে ব্যাংক খাতে: হাইকোর্ট
পুলিশ সদস্যদের আগাম প্রস্তুতির নির্দেশনা
পুলিশ সদস্যদের আগাম প্রস্তুতির নির্দেশনা