X
সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২
৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

মোবাইল কোর্টে জরিমানার অর্থ তদারকির নির্দেশ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২০ জুন ২০২২, ১৬:১৮আপডেট : ২০ জুন ২০২২, ১৬:১৮

দেশেজুড়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে করা জরিমানার অর্থ সঠিকভাবে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সারাদেশের ৬৮ জেলার জেলা প্রশাসককে (ডিসি) এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২০ জুন) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। দুদকের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান।

মামলার বিবরণী থেকে পাওয়া তথ্য মতে, ২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত শরীয়তপুর জেলায় ৭৫৪ বার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এসব ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে মোট ১ কোটি ৮০ লাখ টাকা আদায় হয়। তবে সেই টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা হয়নি। ৫৪টি জাল চালান তৈরি করে এই টাকা আত্মসাৎ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সংশ্লিষ্ট বেঞ্চ অফিসার ইমাম উদ্দিন। 

তদন্তে বিষয়টা ধরা পড়ার পর কিছু টাকা পরবর্তী সময়ে জমা দেওয়া হয় এবং এ ঘটনায় ইমাম উদ্দিন দায় স্বীকার করে। এতে সহযোগী ছিল তার স্ত্রী বেঞ্চ সহকারী কমলা আক্তার। পরে ওই ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন মামলা দায়ের করে। 

এরপর বিচারিক আদালতে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ইমাম উদ্দিনকে ২৩ বছরের সাজা প্রদান করা হয়। সে কারাদণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে তারা হাইকোর্টে আপিল দায়ের করেন। সে আপিলের শুনানি শেষে হাইকোর্ট ইমাম উদ্দিনের সাজা বহাল রাখলেন এবং সহযোগী আসামি কমলা আক্তারকে খালাস প্রদান করলেন।

পরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, উক্ত মামলায় ইমামের সাজা বহাল রেখে তার স্ত্রীকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে হাইকোর্ট সারাদেশে ভ্রাম্যমাণ আদালতে আদায় করা টাকা সঠিকভাবে জমা হচ্ছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, ‘প্রত্যেক জেলা প্রশাসক ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেটদের জরিমানার অর্থ সরকারি কোষাগারে জমা হচ্ছে কিনা, তা দেখতে বলা হয়েছে। আদালত বলেছেন, এটা তাদের দায়িত্ব। এটা অবশ্যই দেখতে হবে।’

/বিআই/ইউএস/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
গাজীপুরে বগি লাইনচ্যুত: ১১ ঘণ্টা পর মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু
গাজীপুরে বগি লাইনচ্যুত: ১১ ঘণ্টা পর মিটারগেজ লাইনে ট্রেন চলাচল শুরু
কীভাবে হয়েছিল প্রতিবাদ?
কীভাবে হয়েছিল প্রতিবাদ?
কমিশন গঠন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার দাবি ডিএনসিসি মেয়রের
কমিশন গঠন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের বিচার দাবি ডিএনসিসি মেয়রের
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানালেন কাজী নাবিল
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানালেন কাজী নাবিল
এ বিভাগের সর্বশেষ
খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্প, নির্মাণ কাজের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
খেলার মাঠে আশ্রয়ণ প্রকল্প, নির্মাণ কাজের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
সরকারি চাকরিজীবীদের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া নিয়ে বিধানের রিট খারিজ
সরকারি চাকরিজীবীদের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া নিয়ে বিধানের রিট খারিজ
পিএইচডি গবেষণা: নীতিমালার খসড়া তৈরি করতে ৭ সদস্যের কমিটি
পিএইচডি গবেষণা: নীতিমালার খসড়া তৈরি করতে ৭ সদস্যের কমিটি
সুইস রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য প্রত্যাহার ছাড়া উপায় নেই: হাইকোর্ট
সুইস রাষ্ট্রদূতের বক্তব্য প্রত্যাহার ছাড়া উপায় নেই: হাইকোর্ট
হাইকোর্ট বিভাগে নতুন আইনজীবী হলেন ৩০৫২ জন
হাইকোর্ট বিভাগে নতুন আইনজীবী হলেন ৩০৫২ জন