X
সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
২ বৈশাখ ১৪৩১

‘কারাগারকে সংশোধনাগার বানালে বন্দিরা সুস্থ জীবনে ফিরবে’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:১৮আপডেট : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:১৮

কারাগারকে সংশোধনাগারে পরিণত করা গেলে বন্দিদের মধ্যে অনুশোচনাবোধ সৃষ্টি ও শুদ্ধাচার চর্চার মাধ্যমে তাদের সুস্থ জীবনে ফিরিয়ে আনা সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, কারাগারে বন্দিদের খাবারের মান, স্বাস্থ্যসেবা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও নিরাপত্তাব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) মৌলভীবাজার জেলা কারাগার পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল বুধবার মৌলভীবাজার জেলা কারাগার পরিদর্শন করেন। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য মো. সেলিম রেজাসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

পরিদর্শনকালে ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ কারাগারের কয়েদিদের খাবারের মান, স্বাস্থ্যসেবা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, নিরাপত্তাব্যবস্থা, কারা কর্তৃপক্ষের নেওয়া প্রশিক্ষণ ও উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

এ সময় তিনি বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে বন্দীদের খোঁজখবর নেন এবং তাদের মামলার অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চান। কমিশনের চেয়ারম্যান প্রয়োজনে অসহায় কয়েদিদের জাতীয় মানবাধিকার কমিশন থেকে আইনি সহায়তা দেওয়ারও আশ্বাস দেন। কারাবন্দিদের খাবারে পুষ্টিগুণ বাড়ানোর বিষয়ে কারা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেন এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি তুলে ধরার জন্য ডিআইজি প্রিজনসকে নির্দেশনা দেন।

পরিদর্শনকালে মৌলভীবাজার জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ডিআইজি প্রিজন, জেল সুপার, সহকারী সার্জন উপস্থিত ছিলেন। কমিশনের কর্মকর্তাদের মধ্যে পরিচালক (প্রশাসন ও অর্থ) কাজী আরফান আশিক, উপপরিচালক মোহাম্মদ গাজী সালাহউদ্দিন, সহকারী পরিচালক মো. তানবিরুল ইসলাম এবং সহকারী পরিচালক মো. শাহেদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

এ ছাড়া মানবাধিকার সচেতনতা সৃষ্টির কার্যক্রমের অংশ হিসেবে হবিগঞ্জ জেলা মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধ ও সুরক্ষা কমিটির মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান এবং জেলার সার্বিক মানবাধিকার পরিস্থিতির খোঁজ নেন কমিশনের চেয়ারম্যান।

/জেইউ/এনএআর/
সম্পর্কিত
গভীর রাতে ঘরে ঢুকে নারীকে কুপিয়ে হত্যা, সংকটাপন্ন স্বামী
হত্যা মামলার আসামিকে পিটিয়ে হত্যা করলো আরেক আসামি
সাক্ষীতেই আটকে আছে বর্ষবরণে যৌন হয়রানি মামলার বিচার
সর্বশেষ খবর
ত্বকে নিয়মিত ফাউন্ডেশন ব্যবহার করলে কী হয়?
ত্বকে নিয়মিত ফাউন্ডেশন ব্যবহার করলে কী হয়?
ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় স্যালাইনের সংকট হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসায় স্যালাইনের সংকট হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন আগামী মাসে
সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন আগামী মাসে
তুষারের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেলো গাজী টায়ার্স
তুষারের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেলো গাজী টায়ার্স
সর্বাধিক পঠিত
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
কেন প্রতিরক্ষা সহযোগিতা বাড়াতে চায় বাংলাদেশ?
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
মোস্তাফিজের খরুচে বোলিং ছাপিয়ে চেন্নাইয়ের জয়
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলায় যুক্তরাষ্ট্র জড়াবে না: নেতানিয়াহুকে বাইডেন
ইরানের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলায় যুক্তরাষ্ট্র জড়াবে না: নেতানিয়াহুকে বাইডেন
ইসরায়েলের সঙ্গে উত্তেজনা এড়াতে ইরানের প্রতি তুরস্কের আহ্বান
ইসরায়েলের সঙ্গে উত্তেজনা এড়াতে ইরানের প্রতি তুরস্কের আহ্বান