X
রবিবার, ১৯ মে ২০২৪
৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

‘বাইরের জীবন এত কঠিন হবে জানলে কারাগারেই থেকে যেতাম’

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
০১ এপ্রিল ২০২৪, ১৮:০৯আপডেট : ০১ এপ্রিল ২০২৪, ১৯:৪৭

কারাগার থেকে বের হওয়ার পর প্রতারণার শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন আলোচিত জল্লাদ শাহজাহান। তিনি বলেন, ‘আমার মা-বাবা নেই। দায়িত্ব নেওয়ার মতো ভাই-বোন নেই। আমার থাকার জায়গা নেই। ৩১ বছর কারাভোগ শেষে বাইরে এসে আমি বারবার প্রতারণার শিকার হচ্ছি।’ 

সোমবার (১ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা আকরম খাঁ হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে টাইমস পিআর।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শাহজাহান বলেন, ‘কারগার থেকে বের হওয়ার পর আমি ২৩ বছর বয়সী এক তরুণীকে বিয়ে করি। এর প্রায় দুই মাসের মাথায় স্ত্রী ও শ্বাশুড়ি আমার জমানো ১৭ লাখ টাকা ও গহনা নিয়ে পালিয়ে যায়। পাশাপাশি আমার নামে যৌতুকের মামলা দেয়।’

নিজের বিয়ে সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর আমি কেরানীগঞ্জের বাবুবাজারে বসবাস শুরু করি। সেখানে একটি চায়ের দোকান দেই। একদিন অটোরিকশায় উঠে একটি ভ্যানেটি ব্যাগ পাই। ব্যাগের মালিক সাথী আক্তার ফাতেমার সঙ্গে যোগাযোগ করে সেটি ফেরত দেই। পরে সে ও তার পরিবার আমার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক তৈরি করে। আমাকে বিয়ে করে সাথী। তারা যে এত বড় প্রতারক সেটি আমি জানতাম না।’

তিনি আরও বলেন, ‘কারাগার থেকে ছাড়া পাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল থেকে আমাকে পাঁচ লাখ টাকা অনুদান দেওয়া হয়। আর কারগারে থাকা অবস্থায় বিভিন্ন শুভাকাঙ্খীর কাছ থেকে আমি টাকা পাই। সব মিলিয়ে আমার কাছে ১৮ লাখ টাকা ছিল। বিয়ে করে এখন আমি সর্বশান্ত।’

স্ত্রীর কাছে প্রতারিত হওয়ার বিষয়ে শাহজাহান বলেন, ‘গত বছর ২১ ডিসেম্বর বিয়ে করেছি। বিয়ের কাবিন পাঁচ লাখ টাকা হলেও আমার কাছে থাকা ১০ লাখ টাকা স্টাম্পে লিখে নিয়ে সাথী বিয়ের ৫৩ দিনের মাথায় পালিয়ে যায়। সে সময় ঘরে থাকা আরও ৭ লাখ টাকা ও গহনা নিয়ে যায় সে এবং আমার নামে যৌতুকের মামলা দেয়। আমি থানায় মামলা দিতে গেলে মামলা নেওয়া হয়নি। বলা হয়, বউয়ের নামে মামলা হয় না। পরে আইনজীবীর সহযোগিতায় রবিবার (৩১ মার্চ) আদালতে স্ত্রী-শ্বাশুড়িসহ ছয় জনের নামে প্রতারণার মামলা করেছি। মামলাটি তদন্ত করতে পিবিআইকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।’ তিনি স্ত্রী ও শ্বাশুড়িসহ এই চক্রের শাস্তি দাবি জানান।

শাহজাহান বলেন, ‘বাইরের জীবন এত কঠিন হবে জানলে আমি কারগারেই থেকে যেতাম। কারগার থেকে বের হলে ভাগনে নজরুল আমাকে অটোরিকশা কিনে দেবে বলে টাকা আত্মসাৎ করে। পরে একটি চায়ের দোকান দেই। যে ছেলেটি সময় দিতো, সে চার মাস কাজ করার পর ৩০ হাজার টাকা ও মোবাইল চুরি করে পালিয়ে যায়।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ছয় আসামি বজলুল হুদা, মুহিউদ্দিন, সৈয়দ ফারুক রহমান, সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খান, মহিউদ্দিন আহমেদ, আবদুল মাজেদ; যুদ্ধাপরাধের মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ছয় আসামি আব্দুল কাদের মোল্লা, মুহাম্মদ কামারুজ্জামান, আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, সালাহ উদ্দিন কাদের চৌধুরী, মতিউর রহমান নিজামী, মীর কাসেম আলী; আলোচিত সন্ত্রাসী এরশাদ শিকদার, জঙ্গি নেতা বাংলাভাই, আতাউর রহমান সানী এবং শারমীন রীমা হত্যার আসামি মনির, ডেইজি হত্যা মামলার আসামি হাসানের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছেন জল্লাদ শাহজাহান।

আরও পড়ুন...

স্ত্রী-শাশুড়ির বিরুদ্ধে সেই জল্লাদ শাহজাহানের মামলা

মুক্ত বাতাসে এসে যা বললেন জল্লাদদের সর্দার শাজাহান

/এএজে/আরকে/
সম্পর্কিত
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
৪৪৮ হজযাত্রীর ভিসা হয়নি, এজেন্সির মালিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চিঠি
‘কমলা ভাসিন অ্যাওয়ার্ডের’ জন্য আবেদকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ
সর্বশেষ খবর
টিভিতে আজকের খেলা (১৯ মে, ২০২৪)
টিভিতে আজকের খেলা (১৯ মে, ২০২৪)
উত্তরা ইউনিভার্সিটিতে রিসার্চ অ্যান্ড পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত
উত্তরা ইউনিভার্সিটিতে রিসার্চ অ্যান্ড পাবলিকেশন অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠিত
চট্টগ্রামে লরি চাপায় মৃত্যু বেড়ে তিন
চট্টগ্রামে লরি চাপায় মৃত্যু বেড়ে তিন
রাজধানীতে রিকশাচালকের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার
রাজধানীতে রিকশাচালকের হাত-পা বাঁধা লাশ উদ্ধার
সর্বাধিক পঠিত
মামুনুল হক ডিবিতে
মামুনুল হক ডিবিতে
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
আমেরিকা যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি
আমেরিকা যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি
নির্মাণের উদ্দেশ্যে ভালো সড়ক কেটে ২ বছর ধরে খাল বানিয়ে রেখেছে
নির্মাণের উদ্দেশ্যে ভালো সড়ক কেটে ২ বছর ধরে খাল বানিয়ে রেখেছে
মোবাইল আনতে ডিবি কার্যালয়ে মামুনুল হক
মোবাইল আনতে ডিবি কার্যালয়ে মামুনুল হক