X
শনিবার, ১৮ মে ২০২৪
৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

আকাশ কালি দাসকে ‘পাখিবন্ধু’ পদক দিলো অ্যাপস

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১৫ মে ২০২৪, ২০:৫৬আপডেট : ১৫ মে ২০২৪, ২৩:২৭

বনের পাখি ও পরিবেশ-প্রকৃতি সংরক্ষণে বিশেষ অবদানের জন্য ‘পাখিবন্ধু’ পদক পেয়েছেন পাবনার বেড়া উপজেলার কইটোলা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক আকাশ কালি দাস। অ্যাসোসিয়েশন অব প্যারোট অ্যান্ড প্যারাকিট স্টকব্রিডার্সের (অ্যাপস) প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আকাশ কালি দাসের হাতে এ পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়। এখন থেকে প্রতিবছর এ পুরষ্কার দেওয়া হবে বলে জানানো হয় সংগঠনটির পক্ষ থেকে। প্রাথমিকভাবে পুরষ্কারের অর্থমূল্য ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গত ১ মে সংগঠনের সদস্যরা ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় একটি রিসোর্টে মিলিত হন। সেখানে সংগঠনটির সভাপতি ডা. এম এ মান্নান, আইন সম্পাদক সাদিয়া ইসলাম, ফটোসাংবাদিক বুলবুল আহমেদ এবং সাধারণ সম্পাদক খান জেহাদ আনুষ্ঠানিকভাবে উপস্থিত থেকে আকাশ কালি দাসের হাতে এ পদক তুলে দেন।

পদক পেয়ে ৮৮ বছর বয়সী আকাশ কালি দাস আপ্লুতকণ্ঠে জানান, ‘পাখিদের ভালোবেসে আমি তৃপ্তি পাই। মানুষ নানাভাবে পাখি শিকার করে। পাখিরা আমার এখানে এসে নিরাপদ স্থানে বসবাস করছে। পশুপাখি ভালোবাসি। গাছগাছালি কাটি না; যাতে করে ওরা থাকতে পারে। আমি ওদের পাহারা দিয়ে রাখি। যাতে পাখিদের ওপর অত্যাচার না হয়, সে জন্য আমি ধীরে ধীরে আমার বাড়িতে জঙ্গল গড়ে তুলেছি। আমার একমাত্র চিন্তা পাখিদের নিরাপত্তা। পাখিদের ভালোবেসে যা কিছু পাই তা আমাকে আনন্দ দেয়। এই পদক পেয়েও খুব ভালো লাগছে। যারা আমাকে সম্মানিত করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা।’

অনুষ্ঠানে সংগঠনের আয়োজিত নানান প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। ক্রেস্ট দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয় ৯ জন আজীবন সদস্যকে। এসময় ঢাকার বিভিন্ন হাটে বিক্রি করার সময় উদ্ধার করা এক ঝাঁক বন্য টিয়া সেখানে অবমুক্ত করা হয়। পরে গাছের চারা রোপণ করা করেন সংগঠনের সদস্যরা।

আকাশ কালি দাস পার্কিনসন্সের মতো দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত। পাখির প্রতি তার আশৈশব ভালোবাসা। পৈতৃক সম্পত্তির মালিকানা নিজের হাতে আসার পরই সেই প্রেম থেকে পাখিদের অভয়ারণ্য তৈরির ভাবনা বাস্তবায়ন শুরু করেন। দীর্ঘ ৬০ বছর ধরে দুই একর জমির মধ্যে হাজার হাজার বৃক্ষ রোপণ, পরিচর্যা ও সংরক্ষণের পাশাপাশি সেসব গাছে বিভিন্ন ঋতুতে উড়ে আসা, বসা বা বাসা বানানো দেশি-বিদেশি হাজারো প্রজাতির পাখিকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে যাচ্ছেন তিনি।

/এমএস/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
আফগানিস্তানে অস্বাভাবিক বৃষ্টিপাত, বন্যায় নিহত ৬৮
আফগানিস্তানে অস্বাভাবিক বৃষ্টিপাত, বন্যায় নিহত ৬৮
অনুরাগ কাশ্যপের সিনেমায় ঋদ্ধি!
অনুরাগ কাশ্যপের সিনেমায় ঋদ্ধি!
এবার বাজেটের আকার কত হচ্ছে, জানালেন ডেপুটি গভর্নর
এবার বাজেটের আকার কত হচ্ছে, জানালেন ডেপুটি গভর্নর
নরসিংদীতে বজ্রাঘাতে মা-ছেলেসহ ৪ জনের মৃত্যু
নরসিংদীতে বজ্রাঘাতে মা-ছেলেসহ ৪ জনের মৃত্যু
সর্বাধিক পঠিত
যাত্রীর জামাকাপড় পুড়িয়ে পাওয়া গেলো সাড়ে চার কোটি টাকার স্বর্ণ
যাত্রীর জামাকাপড় পুড়িয়ে পাওয়া গেলো সাড়ে চার কোটি টাকার স্বর্ণ
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
৩০ শতাংশ বেতন বৃদ্ধির দাবি তৃতীয় শ্রেণির সরকারি কর্মচারীদের
সুপ্রিম কোর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের স্থান পরিদর্শন প্রধান বিচারপতির
সুপ্রিম কোর্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের স্থান পরিদর্শন প্রধান বিচারপতির
আমেরিকা যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি
আমেরিকা যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি
কোথায় কীভাবে কেএনএফ সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেয়, জানালেন নারী শাখার প্রধান
কোথায় কীভাবে কেএনএফ সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেয়, জানালেন নারী শাখার প্রধান