কেরানীগঞ্জের অগ্নিকাণ্ডে নিহত বেড়ে ১৩

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:০৬, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:১১, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

 

কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় আগুনকেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়ার ‘প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক কারখানায়’অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলো- মেহেদী (২০) ও ওমর ফারুক (৩২)। বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) বিকালে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা  মারা যান। এই নিয়ে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জনে দাঁড়িয়েছে। এদেরমধ্যে ১০ জনের লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শঙ্কর পাল বাংলা ট্রিবিউনকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘৩১ জন দগ্ধ রোগী হাসপাতলে ভর্তি হয়েছিল। এদের মধ্যে ১০ জন শেখ হাসিনা বার্নের আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রয়েছে। আর বাকি ৮ জন ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের এইচডিইউ’তে ভর্তি রয়েছে।’

নিহতরা হলো- কারখানার ইলেক্ট্রিশিয়ান বাবলু হোসেন (২৬), মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (৫৫), মেশিন মেনটেইন্যান্স সালাউদ্দিন (৩৫), মেশিন অপারেটর আব্দুল খালেক খলিফা (৩৫), সিনিয়র অপারেটর জিনারুল ইসলাম মোল্লা (৩২), শ্রমিক ইমরান (১৮), মো. সুজন (১৯),  মো. আলম (২৫), ওমর ফারুক (৩২), রায়হান বিশ্বাস (১৬), ফয়সাল (২৯), মেহেদী হোসেন (২০) ও মাহাবুব হোসেন  (২৫)।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আশিকুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এ পর্যন্ত শাহবাগ থানা পুলিশের মাধ্যমে ১০টি মরদেহ নিহতদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।’

হস্তান্তর করা মরদেহগুলো হলো- সালাউদ্দিন (৩২), বাবলু (২৬), খালেক(৩৫), রায়হান (১৬), ইমরান (১৮), জিনারুল (৩২), আলম (৩৫), সুজন(১৯),  জাহাঙ্গীর (৫৫) ও ফয়সাল (২৯)।

কারখানাটিতে বুধবার (১১ ডিসেম্বর) বিকালে আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।


আরও খবর...

মালিকের গাফিলতিতে কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড, ক্ষতিপূরণ তারাই দেবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 

গ্যাস পাইপের লিকেজ থেকে আগুনের সূত্রপাত

/এআইবি/এসজেএ/এনআই/

সম্পর্কিত

লাইভ

টপ