কেরানীগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৭

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১২:০১, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৭, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯

ঢামেকে চিকিৎসাধীন কেরানীগঞ্জের অগ্নিদগ্ধরা (ফাইল ছবি)কেরানীগঞ্জের চুনকুটিয়ার ‘প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক কারখানায়’ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন মুন্তাকিম, রাজ্জাক ও আবু সাঈদ। এ নিয়ে মোট নিহতের সংখ্যা ১৭। রবিবার (১৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ছয়টায় মুস্তাকিম, সাড়ে ১০টায় রাজ্জাক এবং সাড়ে ১১টায় আবু সাঈদ মারা যান। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. পার্থ শঙ্কর পাল জানান, ‘আবু সাঈদের বয়স ছিল ১৮ বছর। মুস্তাকিমের বয়স ২২ বছর, তার শরীরের ২০ শতাংশ পোড়া ছিল। আর রাজ্জাকের শরীরের ১০০ ভাগ পুড়ে গিয়েছিল। রাজ্জাকের আরেক ভাই আলম মারা যান প্রথমদিন রাতে বার্ন ইউনিটে।’

এখন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন ছয় জন, আর ঢামেক বার্ন ইউনিটে আছেন আট জন। তবে ঢামেক হাসপাতালে যারা আছেন তাদের অবস্থা তুলনামূলক ভালো বলে জানিয়েছেন ডা. সামন্ত লাল সেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে ১১ ডিসেম্বর সন্ধ্যার দিকে কেরানীগঞ্জের ওই প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। এসময় তাৎক্ষণিকভাবে একজন নিহত এবং অন্তত ৩০ জন আহত হয়।

আরও পড়ুন:

আগুন লাগা কারখানাটির অনুমোদন ছিল না: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

প্লাস্টিক কারখানায় দগ্ধ ৩৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

গ্যাস পাইপের লিকেজ থেকে আগুনের সূত্রপাত

৪০ বছরে এত ভয়াবহ বার্ন দেখিনি: সামন্ত লাল সেন

/জেএ/এআইবি/এনএস/

লাইভ

টপ