‘মূল পাঠ্যবইকে সহজ করলে সমস্যা কোথায়?’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:০৬, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৭, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২০

 

মোস্তফা মল্লিকঅনুশীলন বই থাকলে তা শিক্ষার্থীদের জন্য সহায়ক হবে বলে মন্তব্য করেছেন চ্যানেল আইয়ের বিশেষ প্রতিনিধি মোস্তফা মল্লিক। তিনি বলেন, ‘প্রস্তাবিত শিক্ষা আইন-২০১৯ এর বিতর্কটা হলো– সেখানে গাইড বই ও নোট বইয়ের সংজ্ঞা দেওয়া হয়েছে এবং বলা হয়েছে এগুলো বাণিজ্যিকভাবে করা যাবে না। করলে এটা অপরাধ এবং কী শাস্তি হবে তাও আইনে বলা হয়েছে। এনসিটিবির অনুমতি নিয়ে কোনও বিষয়ে কেউ বই লিখলেও বর্তমান সংজ্ঞা অনুযায়ী সেটা সম্ভব হবে না। তবে যদি মৌলিক অধিকারের কথা বলি, আমি হয়তো মূল পাঠ্যবইকে বিকৃত করতে পারবো না, কিন্তু মূল পাঠ্যবইকে যদি সহজ করি তাহলে সমস্যা কোথায়?’

বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকালে দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনের আয়োজনে ‘শিক্ষা আইনের খসড়া বনাম অনুশীলন বই’ শীর্ষক বৈঠকিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘নোট বা গাইড বইকে আমি সমর্থন করছি না। আমি বলছি অনুশীলন বইয়ের কথা। বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সদস্যদের জিজ্ঞেস করেছিলাম– আপনাদের গাইড বইয়ের লেখক কারা? তারা জানিয়েছেন, আমরা গাইড বই প্রকাশ করি না। তাদের দাবি তারা অনুশীলন বই বের করেন।’

মোস্তফা মল্লিক আরও বলেন, ‘আমি ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যারের একটি বই পেয়েছি। বইটির নাম পদার্থ বিজ্ঞানের প্রথম পাঠ। তিনি বইটির সূচনায় স্পষ্ট করে লিখেছেন যে- পদার্থ বিজ্ঞানের মূল যে পাঠ্যবই সেটার থেকে আরও সহজ করে লিখতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তিনি তার চিন্তা ভাবনাকে বাক্সবন্দি করে রেখেছেন, শুধু পাঠ্যবইয়ে যা আছে সেটাকেই সহজ করে লিখেছেন। বর্তমান সংজ্ঞা অনুযায়ী এটা কিন্তু সম্ভব না। কিন্তু স্যারতো এই কাজ শিক্ষার্থীদের জন্য সহজগম্য হওয়ার জন্যই করেছেন। তার মানে আমরা যদি অনুশীলন বই করি সেটা মনে হয় করা যেতে পারে।’

নোট ও গাইড বই বন্ধ করার দাবি জানিয়ে তিনি আর বলেন, ‘অনুশীলন বই থাকা উচিত।’ তবে এক্ষেত্রে সরকারকে নজরদারি বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

মাহমুদুল হকের সঞ্চালনায় বাংলা ট্রিবিউনের পাক্ষিক এ আয়োজনে আরও অংশ নেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও শিক্ষাবিদ মোহাম্মদ কায়কোবাদ, তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রেবেকা সুলতানা এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সহ-সভাপতি কামরুল হাসান শায়ক।

রাজধানীর পান্থপথের বাংলা ট্রিবিউন স্টুডিও থেকে এ বৈঠকি অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজ। পাশাপাশি বাংলা ট্রিবিউনের ফেসবুক ও হোমপেজে তা লাইভ দেখানো হয়।

আরও পড়ুন:
‘বাইরের দেশে শিক্ষার্থীরাই প্রশ্ন তৈরি করে’



‘মূল সমস্যা পরীক্ষা এবং প্রশ্ন পদ্ধতি’

/এসও/টিটি/

লাইভ

টপ