কুয়েত দূতাবাসে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উদযাপন

Send
আ হ জুবেদ, কুয়েত থেকে
প্রকাশিত : ১৯:৪৩, মার্চ ০৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৪৩, মার্চ ০৮, ২০২০

কুয়েত বাংলাদেশ দূতাবাসে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আয়োজন১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার এই ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কোর মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টারে অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি পেয়েছে। কুয়েতের বাংলাদেশ দূতাবাস যথাযোগ্য মর্যাদায় দিবসটি উদযাপন করেছে।


শনিবার (৭ মার্চ) স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় কুয়েতের মানসুরিয়ায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের গুরুত্ব ও তাৎপর্য নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালাম।
কাউন্সিলর ও দূতালয় প্রধান মোহাম্মদ আনিসুজ্জামানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাণী পাঠ করেন ডিফেন্স অ্যাটাশে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ আবু নাসের ও কাউন্সিলর (ভিসা ও পাসপোর্ট) জহিরুল ইসলাম খান।


কুয়েত বাংলাদেশ দূতাবাসে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের আয়োজনকুয়েত দূতাবাস জানায়, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কুয়েত সরকারের নেওয়া পদক্ষেপ বাধাগ্রস্ত হয় বা দেশটির সরকারের নির্দেশাবলী অমান্য হয় এমন কর্মসূচি পালনে বাংলাদেশ দূতাবাস বিরত ছিল। ঐতিহাসিক ৭ মার্চ একটি রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান, ফলে ছোট পরিসরে দিবসটি পালন করা হয়েছে।

/এনসি/জেএইচ/

লাইভ

টপ