র‌্যাব কর্মকর্তার স্ত্রীর মামলা তদন্তের নির্দেশ

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫০, জুন ০৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:৫২, জুন ০৫, ২০২০

র‌্যাব কর্মকর্তা নাজমুস সাকিব। (ছবি: ফেসবুক পেজ থেকে সংগৃহীত)র‌্যাব কর্মকর্তা নাজমুস সাকিবের বিরুদ্ধে তার স্ত্রী ইসরাত রহমানের দায়ের করা মামলাটি তদন্ত করে আগামী ৭ জুলাই প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

শুক্রবার (৫ জুন) ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এজাহারটি গ্রহণ করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য এই তারিখ নির্ধারণ করেন।

আদালতে রমনা থানার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (নারী ও শিশু) শরীফ আহমেদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

যৌতুক দিতে অস্বীকৃতি জানালে দফায় দফায় শারীরিক নির্যাতন ও জোর করে গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ এনে র‌্যাবের সদর দফতরের কমিউনিকেশন্স অ্যান্ড এসআইএস  উইংয়ের সিনিয়র সহকারী পরিচালক নাজমুস সাকিবের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন তার স্ত্রী ইসরাত রহমান।

মামলায় সাকিবের বাবা সফিউল্লাহ তালুকদার ও মা খালেদা সুলতানাকেও আসামি করা হয়।

ইসরাত রহমান প্রথমে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) রমনা থানায় ইমেইলের মাধ্যমে অভিযোগ পাঠান। তবে ই-মেইলে দায়ের করা অভিযোগ এজাহার হিসেবে গ্রহণ করার ক্ষেত্রে আইনগত সীমাবদ্ধতা থাকায় থানা কর্তৃপক্ষ ভুক্তভোগীর সঙ্গে যোগাযোগ করে। পরে তিনি থানায় এসে মামলাটি দায়ের করেন।

রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, ইমেইলের মাধ্যমে নারী নির্যাতনের অভিযোগ এনে নাজমুস সাকিবের স্ত্রীর পাঠানো অভিযোগটি পেয়েছেন। তবে ইমেইলে পাঠানো অভিযোগ মামলা হিসেবে গ্রহণের প্রক্রিয়া এখনও চালু না হওয়ায় তাকে থানায় এসে অভিযোগ দাখিল করার অনুরোধ করা হয়। পরে বাদী সশরীরে এসে এজাহার দাখিল করেন। ওসি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (৪ মে) রাত ৯টার দিকে মামলা গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

আরও পড়ুন:

র‌্যাব কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতন ও গর্ভপাতের অভিযোগে স্ত্রীর মামলা

/টিএইচ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ