শাজাহান খানের মেয়ের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে: স্বাস্থ্যের ডিজি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:২১, জুলাই ২৭, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২২, জুলাই ২৭, ২০২০

অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমসাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খানের মেয়ের অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম। তিনি বলেন, ‘পিসিআর টেস্ট একটি সায়েন্টিঢিক টেস্ট, এর ফলস নেগেটিভ বা ফলস পজিটিভ আসতে পারে। এ অভিযোগ (সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খানের মেয়ের অভিযোগ) আমাদের কাছে এসছে। সাবেক মন্ত্রী আজ সকালে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। আমরা এটা তড়িৎ গতিতে খতিয়ে দেখছি যে কোথায় ত্রুটিটা হয়েছে। সেটা দেখে আমরা ব্যবস্থা নেবো।’

আজ সোমবার ( ২৭ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদফতরের সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে অনলাইন সাংবাদিক সম্মেলন করেন। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অধিদফতরের দুই অতিরিক্ত মহাপরিচাক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা এবং অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা।

সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খানের মেয়ের রিপোর্ট নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটা লুকানোর কিছু নাই, যদি আমাদের ভুল হয়ে থাকে, সেটা বলবো। আর যদি এটা মেশিনারিজ ভুল হয়ে থাকে সেটাও বলবো। আর কেউ যদি ব্যক্তিগতভাবে জড়িত হয়ে থাকে তাহলে অবশ্য, অবশ্যই সেটা নিশ্চয়ই সুষ্ঠু সমাধান হবে। আর এজন্য তিনজকে অ্যাসাইন করে দিয়েছি, তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন, রিপোর্ট দেব। এরপর আমরা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করবো।’

আস্থাহীনতার কারণে মহামারির ব্যবস্থাপনায় আশানুরূপ ফলাফল পাওয়া যায়নি- চিকিৎসক হিসেবে এ বিষয়ে তার মতামত জানতে চাইলে খুরশীদ আলম বলেন, ‘এই করোনাতে আমার বাবা মারা গেছেন গত মাসে। মা মরণাপন্ন হয়ে হাসপাতালে ছিলেন, ভাই হাসপাতালে ছিলেন। চিকিৎসকরা চিকিৎসা দেওয়ার ক্ষেত্রে শতভাগ চেষ্টা করেছেন। আর করোনাভাইরাস সর্ম্পকে কারোরই কোনও সুষ্ঠু ধারণা ছিল না। এ সর্ম্পকে সবারই ভয় ছিল। তবে সেটা ধীরে ধীরে কমে এসেছে। এখন আর সেরকমভাবে ভীত না। এখন যেভাবে রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে সেটা অনেক বেশি অ্যাক্টিভ এবং অনেক বেশি সংবেদনশীল।’

উল্লেখ্য, রবিবার (২৬ জুলাই) করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে লন্ডনে যাওয়ার জন্য বিমানবন্দরে যান সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শাজাহান খানের মেয়ে ঐশী খান। তবে অনলাইনের রেজাল্টের সঙ্গে তার হাতে থাকা করোনার রিপোর্টে মিল না পাওয়ায় ইমিগ্রেশন কর্মকর্তারা তাকে ফেরত পাঠান।

রবিবার স্বাস্থ্য অধিদফতর এবং সংশ্লিষ্ট ল্যাবরেটরির একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ঐশীর রেজাল্ট পজিটিভ এবং তাকে পজিটিভ রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। বাংলা ট্রিবিউনের কাছে তার পিসিআর পরীক্ষার মূল (অরিজিনাল) পজিটিভ রিপোর্টটি এসেছে।

সোমবার (২৭ জুলাই) দুপুরে নিজের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট সম্পর্কে অভিযোগ দায়ের করেছেন ঐশী খান। দুপুর ১২টার দিকে শাজাহান খান ও ঐশী খান স্বাস্থ্য অধিদফতরে উপস্থিত হয়ে মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমের কাছে তাদের অভিযোগের চিঠি জমা দেন।

এদিকে দুপুরে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টারের পরিচালক প্রফেসর ডা. আবুল খায়ের মোহাম্মদ শামসুজ্জামান  এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, ‘ভুল করে’ ঐশী খানকে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট দেওয়া হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘ডাটা এন্ট্রি অপারেটরের ভুলের কারণে এই সমস্যা তৈরি হয়েছিল।’

আরও পড়ুন- 

শাজাহান খানের মেয়ের ভুল রিপোর্টের দায় নিলো ল্যাব

স্বাস্থ্য অধিদফতরে শাজাহান খানের মেয়ের অভিযোগ


অভিযোগ করবেন শাজাহান খান: হার্ডকপি নেগেটিভ অনলাইনে করোনা পজিটিভ!

/জেএ/এফএস/

লাইভ

টপ