শেষ হলো ‘আর্ট ফ্রম হোম’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:১৭, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:২১, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০

করোনাকালে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষদের মানসিক স্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে চাইল্ড ফাউন্ডেশন আয়োজন করেছিল ‘আর্ট ফ্রম হোম’ শীর্ষক অনলাইন ভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। বিচারকদের দেওয়া নম্বর এবং সর্বোচ্চ লাইক, কমেন্ট, শেয়ারের  সমন্বয়ে তিনটি বিভাগ থেকে নির্বাচন করা হয় তিন জন বিজয়ীকে। মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির গণযোগাযোগ বিভাগের প্রধান তানভীর এস. সিদ্দিকী।

বিজ্ঞপ্তিতে  চাইল্ড ফাউন্ডেশন জানায়, ‘এ’  বিভাগে বগুড়া থেকে ৯ বছর বয়সী মুশরাত মাহজাবিন মাহী, ‘বি’ বিভাগে ঢাকা থেকে ১২ বছর বয়সী আবু হুরায়রা সাদ এবং ‘সি’ বিভাগে ঢাকা থেকে ২০ বছর বয়সী উম্মে হানি নদী সেরা আঁকিয়ে নির্বাচিত হন। ১৪ সেপ্টেম্বর রাতে চাইল্ড ফাউন্ডেশনের  ফেসবুক পেজে বিশেষ ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। লাইভে অংশগ্রহণ করেন এই প্রতিযোগিতার বিচারক চিত্রশিল্পী মনিরুল ইসলাম, চিত্রশিল্পী কনক চাঁপা চাকমা এবং চাইল্ড ফাউন্ডেশনের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারপারসন তাহরিন আমান, সেক্রেটারি আনোয়ারা আনা আমান এবং গণসংযোগ বিভাগের প্রধান তানভীর এস. সিদ্দিকী।

তানভীর এস. সিদ্দিকী জানান, অনলাইনভিত্তিক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় সারাদেশ থেকে এত সাড়া পেয়ে আমরা অভিভূত, যা আমাদের পরবর্তী আয়োজন করতে উৎসাহিত করবে।  এই উদ্যোগের কারণে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন মানুষেরা করোনা মহামারির সময়ে যদি একটি দিনও ভিন্নভাবে আনন্দের সঙ্গে কাটিয়ে থাকেন, তাহলেই আমাদের আয়োজন স্বার্থক।

চাইল্ড ফাউন্ডেশন আরও জানায়, কোভিড-১৯ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকানোর উদ্দেশ্যে যখন গোটা বাংলাদেশ থমকে যায়, তখন বন্ধ হয়ে যায় বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষদের পড়াশুনা, চিকিৎসাসহ যাবতীয় দৈনন্দিন কার্যক্রম— যা তাদের জন্য অপরিহার্য বিষয়। আর দীর্ঘ সময় ঘরবন্দি থাকার কারণে তাদের নানাবিধ শারীরিক সমস্যার পাশাপাশি দেখা দেয় মানসিক সমস্যাও। তাই বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষদের ঘরবন্দি সময়টাকে আনন্দময়, সৃজনশীল এবং সক্রিয় করতে ‘ঘরে থেকে লড়াই, রঙ তুলিতে বড়াই’ শ্লোগানে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষেরা বয়সভিত্তিক তিনটি বিভাগে নিজেদের অঙ্কনশৈলী প্রদর্শন করেছেন এই প্রতিযোগিতায়। করোনা পরবর্তী পৃথিবী তারা কীভাবে চিন্তা করেন, তা উঠে এসেছে তাদের চিত্রাঙ্কনে। বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চিত্রশিল্পী মনিরুল ইসলাম, চিত্রশিল্পী আব্দুস শাকুর এবং চিত্রশিল্পী কনক চাঁপা চাকমা। ১৪ দিন ব্যাপী চলা এই প্রতিযোগিতায় সারা দেশ থেকে প্রায় দেড় শতাধিক প্রতিযোগী ৩১ আগস্টের মধ্যে চিত্র অঙ্কন করে, ছবি তুলে তা জমা দিয়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছেন। সাধারণ রঙ, পেন্সিল স্কেচ, জল রঙ, ডিজিটাল পেইন্টিংসহ সর্বমোট ৮৭টি চিত্রকর্ম চূড়ান্ত বাছাইয়ের পর অনলাইন পাবলিক ভোটিংয়ের জন্য চাইল্ড ফাউন্ডেশনের ফেসবুক পেজে প্রদর্শন করা হয়। 

 

/এসও/এপিএইচ/

লাইভ

টপ
X