আবরারের বাবা অসুস্থ, সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১২:৫৯, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৯, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০

আবরারের বাবাবাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ অসুস্থতায় থাকায় সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি। পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ৫-২৭ অক্টোবর পর্যন্ত সরকারি ছুটি ছাড়া সাক্ষ্যগ্রহণ চলবে।

রবিবার (২০ সেপ্টেম্বর) ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর  কামরুজ্জামানের আদালত এ আদেশ দেন। 

আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের পাবলিক প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, আবরারের বাবা আদালতে হাজির ছিলেন। কিছু তিনি  অসুস্থ (জন্ডিসে আক্রান্ত) হওয়ার আজ সাক্ষ্যগ্রহণ হয়নি। পরবতী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ৫-২৭ অক্টোবর পর্যন্ত থেকে সরকারি ছুটি ছাড়া সাক্ষ্যগ্রহণ চলবে।

এর আগে ১৫ সেপ্টেম্বর সব আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এরআগে ১৩ জানুয়ারি মামলাটি ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বিচারের জন্য ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দেন। এরপর মহানগর দায়রা জজ আদালত দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ পাঠানোর আদেশ দেন। 

প্রসঙ্গত, গত ১৩ নভেম্বর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওয়াহিদুজ্জামান ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

অভিযোগপত্রের ২৫ জনের মধ্যে এজাহারভুক্ত ১৯ জন এবং এর বাইরে তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে আরও ৬ জনের জড়িত থাকার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়া গেছে বলে অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়। এজাহারভুক্ত ১৯ জনের মধ্যে ১৭ জন এবং এজাহারের বাইরে থাকা ৬ জনের মধ্যে ৫ জনসহ মোট ২২ আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পলাতক রয়েছেন ৩ জন। অভিযোগপত্রে ৬০ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে এবং ২১টি আলামত ও ৮টি জব্দ তালিকা আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৬ অক্টোবর রাতে আবরারকে তার কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। তারা ২০১১ নম্বর কক্ষে নিয়ে গিয়ে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে রাত ৩টার দিকে শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

 

 

 

/টিএইচ/এসটি/

লাইভ

টপ
X