কাউন্সিল আয়োজনে তাড়াহুড়া দেখছে জাপার একাংশ

Send
সালমান তারেক শাকিল
প্রকাশিত : ১৯:৫৫, ডিসেম্বর ০১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৮, ডিসেম্বর ০১, ২০১৯

প্রেসিডিয়ামের বৈঠকে জিএম কাদেরসহ অন্যরাজাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ ডিসেম্বর। এ কাউন্সিল আয়োজনে তাড়াহুড়া করা হচ্ছে বলে মনে করেন দলটির কয়েকজন প্রেসিডিয়াম সদস্য। রবিবার (১ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর বনানীতে দলের চেয়ারম্যান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রেসিডিয়ামের বৈঠকের আলোচনায় বিষয়টি উঠে আসে।

জাপার একাধিক প্রেসিডিয়াম সদস্য বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, কাউন্সিল আয়োজনে দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের দিনক্ষণ নির্ধারণ করেছেন। দলের মধ্যে বিরুদ্ধ মত শক্তিশালী হওয়ার আগেই তিনি নতুন করে কাউন্সিলের মাধ্যমে নির্বাচিত নেতৃত্ব নিশ্চিত করতে চাইছেন। তাদের মতে, এক্ষেত্রে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নেতৃত্ব গ্রহণের পর তার অবস্থান আরও বেশি পোক্ত হবে।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবুল হক চুন্নু, এস এম ফয়সাল চিশতীসহ কয়েকজন কাউন্সিল পেছানোর পক্ষে নিজেদের অবস্থান তুলে ধরেন। তাদের যুক্তি ছিল, ডিসেম্বরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কাউন্সিল আছে। বড় এই আয়োজনের মধ্যে জাপার কাউন্সিল খুব একটা আলোচনা তৈরি করবে পারবে না।
বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সদস্য বলেন, ডিসেম্বরে জাতীয় কয়েকটি দিবস আছে। ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস। আছে বড়দিন। এছাড়া ১ জানুয়ারি জাপার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। সেক্ষেত্রে ২৮ ডিসেম্বরে কাউন্সিলের আয়োজনে তাড়াহুড়া হয়ে যাচ্ছে।
জাপা মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘অনেকে কাউন্সিল পেছানোর জন্য বলেছিলেন। কিন্তু দলের চেয়ারম্যান যেহেতু একটি তারিখ ঠিক করেছেন, তাই আমরা কাউন্সিল করছি।’
তিনি অবশ্য এ-ও বলেন, ‘আমি কোনও তাড়াহুড়া দেখছি না। এর কোনও কারণ নেই। আমি মনে করি না তাড়াহুড়া করে কেউ বেনিফিটেড হবে। গঠনতান্ত্রিকভাবে আমাদের বাধ্যবাধকতা আছে, সে কারণেই কাউন্সিল করবো।’ বেশিরভাগ প্রেসিডিয়াম সদস্য যথাসময়ে কাউন্সিল চাইছেন বলেও দাবি করেন তিনি।
জাপার রওশনপন্থী একাধিক নেতার অভিযোগ, জিএম কাদের চাইছেন দ্রুততার সঙ্গে সম্মেলনের মাধ্যমে নেতৃত্ব নিশ্চিত করা, যেন দলে বিরোধী কোনও পক্ষ সক্রিয় না হয়, শক্তিশালী না হয়।
প্রেসিডিয়ামের একজন সদস্য বলেন, দলের অভ্যন্তরে জিএম কাদেরের পদের কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী নেই এখন। যারা সম্মেলন পেছাতে চাইছেন, তাদের মধ্যে বিকল্প তৈরির চিন্তা থাকতে পারে বলে মনে করেন তিনি।
জানতে চাইলে প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘প্রেসিডিয়ামে দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। আমাদের কাউন্সিল নিয়েই বৈঠকে মূল আলোচনা হয়েছে। রাজনৈতিক কোনও বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়নি।’
তিনি বলেন, ‘কাউন্সিল পেছানোর কোনও কারণ আছে বলে মনে করি না। অনেকে হয়তো মতামত দিয়েছেন। কিন্তু সিদ্ধান্ত চেয়ারম্যান নিয়েছেন।’
কাউন্সিল পেছানোর কোনও সম্ভাবনা আছে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে জাপার মধ্যমপন্থী এক নেতা বলেন, ‘সেটা হবে না, এমন কোনও আলোচনা এখনও হয়নি।’
জাপার প্রেসিডিয়ামের একাধিক সদস্য জানান, প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের জীবদ্দশায় যেসব বৈঠক হয়েছে, তাতে অন্য সদস্যরা আলোচনায় সতর্ক থাকতেন। বর্তমান চেয়ারম্যান জিএম কাদেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকগুলোতে প্রেসিডিয়ামের কেউ কেউ বাড়াবাড়ি করছেন বলে অভিযোগ রওশনপন্থী একাধিক নেতার।
জাপার বৈঠকে দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কোনও আলোচনা হয়নি। বৈঠক সূত্র জানায়, সভাপতির বক্তব্যে জিএম কাদের স্বীকার করেন, সরকারের ভালো যেমন আছে, তেমনি খারাপও আছে। তবে তিনি এ-ও বলেন, দেশের মানুষ দীর্ঘদিন ধরে একই সরকার দেখতে চায় না। মানুষের আগ্রহ এখন জাতীয় পার্টির প্রতি বলেও দাবি করেন তিনি।

আরও পড়ুন...
বাদলের শূন্য আসনে জাপার প্রার্থী বাবলু

/এইচআই/এমওএফ/

লাইভ

টপ