শাজাহান সিরাজের মৃত্যুতে শোকাহত রাজনীতিকরা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০০:০৩, জুলাই ১৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:২২, জুলাই ১৫, ২০২০

শাহজাহান সিরাজ, ছবি- সংগৃহীত

বর্ষীয়ান রাজনীতিক, সাবেক মন্ত্রী ও মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান সিরাজের মৃত্যুতে শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন দেশের বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নেতারা। শোকবার্তায় তারা বলেছেন, শাজাহান সিরাজ ছিলেন বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে এক অনন্য নাম। মুক্তিযুদ্ধের পর স্বাধীন দেশের রাজনীতিতে তার একটি বিশেষ ভূমিকা ছিল।

মঙ্গলবার (১৪ জুলাই) শাজাহান সিরাজের মৃত্যুর পর পাঠানো শোক বিবৃতিতে  গণফোরাম, জেএসডি, নাগরিক ঐক্য ও কৃষক শ্রমিক জনতা লীগসহ অন্যান্য দলের রাজনীতিকরা এসব কথা বলেন।

শোক বিবৃতিতে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধকালীন ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের অন্যতম নেতা, মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ শাজাহান সিরাজের মৃত্যুতে শোক ও তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করছি। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তীকালের রাজনীতিতে তার একটি বিশেষ ভূমিকা ছিল।’

সহযোদ্ধা শাজাহান সিরাজের মৃত্যু জাতির অন্তরাত্মায় ক্ষতের সৃষ্টি করে গেলো বলে উল্লেখ করে জেএসডির সভাপতি আসম আব্দুর রব বলেন, ‘জাতিরাষ্ট্র বিনির্মাণের অন্যতম কারিগর, স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠকারী, বীর সিপাহসালার শাজাহান সিরাজ আমাদের জাতির অস্তিত্বের অংশ। ছাত্রলীগের রাজনীতিতে অসম সাহসিকতা ও সংগ্রামী  হিসেবে ছাত্র-যুবসমাজকে সংগঠিত ও তাদের মাঝে স্বাধীনতার মন্ত্র ছড়িয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে যুগান্তকারী ভূমিকা রাখেন তিনি।’

কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী ও সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান বলেন, ‘পাকিস্তানি সামরিক শাসকদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে ১৯৭১ সালের ৩ মার্চ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শাজাহান সিরাজ স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠ করার মাধ্যমে যে ঐতিহাসিক ভূমিকা রেখেছিলেন, তা এই দেশ, মানচিত্র আর পতাকা যতদিন থাকবে, ততদিন স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এক বিবৃতিতে বলেন, 'ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের নেতা, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শাজাহান সিরাজের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছে ওয়ার্কার্স পার্টি।' এতে আরও বলা হয়, তিনি মুক্তিযুদ্ধ থেকে শুরু করে দেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনসমূহে মুখ্য ভূমিকা পালন করেছিলেন। এতে তার স্ত্রী রাবেয়া সিরাজসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি ও সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি এক শোকবার্তায় বলেন, 'স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের অগ্রণী সংগঠক, স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের অন্যতম শীর্ষ নেতা, স্বাধীনতা ইশতেহারের পাঠক, সাবেক জাসদ নেতা, সাবেক এমপি, সাবেক মন্ত্রী বিশিষ্ট রাজনীতিক শাজাহান সিরাজের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হচ্ছে।'

এক শোকবর্তায় বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন, 'মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠক এবং মুক্তিযোদ্ধা শাজাহান সিরাজের মৃত্যুতে আমরা গভীর শোক প্রকাশ এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।’

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘শাজাহান সিরাজ বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাসে এক অনন্য নাম। স্বাধীনতার পর গণতান্ত্রিক লড়াই-সংগ্রামে তার ভূমিকা অপরিসীম। মানুষের অধিকার আদায় এবং দুঃশাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তিনি বারবার কারাবরণ করেছেন। সেই লড়াইয়ে আমি নিজেও তার একজন সহযোদ্ধা ছিলাম।’

আরও পড়ুন:

সাবেক মন্ত্রী শাহজাহান সিরাজ মারা গেছেন

 

/এএইচআর/এসটিএস/আইএ/এপিএইচ/

লাইভ

টপ