‘মানুষ পুড়িয়ে হত্যার ঘটনা বাংলাদেশ সম্পর্কে খারাপ বার্তা দেবে’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২১:১২, অক্টোবর ৩০, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:১৪, অক্টোবর ৩০, ২০২০

গণসংহতি আন্দোলন

ধর্ম অবমাননার অজুহাত তুলে লালমনিরহাটে একজন ব্যক্তিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার বিষয়টি বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের মানুষ সম্পর্কে খারাপ বার্তা দেবে বলে মনে করে জোনায়েদ সাকির নেতৃত্বাধীন গণসংহতি আন্দোলন। দলটির দুই শীর্ষ নেতা বলছেন, ‘বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের বিরুদ্ধে যে উগ্রতা ও অসহিষ্ণুতার ভাবমূর্তি কোনও কোন মহল গড়ে তোলার চেষ্টা করছে, এই নৃশংস ঘটনা তাকে আরও শক্তিশালী করবার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ ও বাংলাদেশের মানুষ সম্পর্কে আরও খারাপ বার্তা দেবে।’
শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে গণসংহতির প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি ও ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী সমন্বয়ক আবুল হাসান রুবেল এসব কথা বলেন।

যে কোনও ঘৃণা-বিদ্বেষ-উগ্রতার ফাঁদে পা না দিতে ও ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থেকে সম্মিলিত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে গণসংহতি আন্দোলন।

বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) লালমনিরহাটে কোরআন শরীফ অবমাননার কথিত অভিযোগে একজন ব্যক্তিকে গণপিটুনিতে হত্যা ও লাশ পুড়িয়ে দেয় স্থানীয় উত্তেজিত জনতা। এই ঘটনার তদন্ত দাবি করেন জোনায়েদ সাকি ও আবুল হাসান। তারা নিহত ব্যক্তির পরিবারের প্রতিও গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেছেন।

তারা আরও বলেন, 'ঘটনা প্রতিরোধে প্রশাসনের ব্যর্থতারও যথাযথ তদন্ত হওয়া প্রয়োজন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এবং আক্রান্ত ব্যক্তিকে উদ্ধার করতে পুলিশ সময়মত কেন উপস্থিত হতে পারলো না, সেই জবাবদিহিতাও অত্যন্ত জরুরি। কারা এই হত্যাকাণ্ড সংগঠিত করেছে, তাদের উদ্দেশ্য কী ছিল, তারও যথাযথ তদন্ত ও বিচার নিশ্চিত করা প্রয়োজন।'

 

/এএইচআর/এএইচ/

লাইভ

টপ