X
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২
১২ আষাঢ় ১৪২৯

মুশফিকের সুইপ ও তার হাসি

আপডেট : ১৮ মে ২০২২, ২২:২৭

মুশফিকুর রহিম ভীষণ আবেগী মানুষ। ১৭ বছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেললেও মানসিক শক্তি খুব বেশি নয়! ফলে বাংলাদেশকে বহু ম্যাচ জেতানোর নায়ক নানা সময় নানা কারণে সমালোচনার স্বীকার হয়েছেন। তাতে নিজেরও কিছু ‘ভূমিকা’ আছে।

এই যেমন ‘স্বেচ্ছাচারিতা’। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বহুবার ভালো খেলতে থাকা মুশফিক ‘খেয়ালী’ সিদ্ধান্ত নিয়ে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন। অথচ সেই সব ম্যাচে কঠিন লড়াই করা এই ব্যাটার আর সামান্য কিছু ভূমিকা রাখলেই হয়তো জিততে পারতো বাংলাদেশ। ব্যর্থ হয়েও বোঝেননি নিজের ব্যর্থতা। উল্টো সমালোচকদের আয়নায় মুখ দেখতে বলেছেন! তাকে নিয়ে সবেচেয়ে বেশি সমালোচনা রিভার্স সুইপ নিয়ে। আজ (বুধবার) শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টের চতুর্থ দিনে সেঞ্চুরি করে কীর্তি গড়া মুশফিক আউটও হলেন সেই সুইপ শটেই। যে রিভার্স সুইপ নিয়ে এতো আলোচনা, সংবাদ সম্মেলনে জানিয়ে গেলেন সেটি খেলা বন্ধ করবেন না তিনি।

এক সেঞ্চুরিতে চট্টগ্রামে অনেক কীর্তি গড়েন মুশফিক। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ৫ হাজার রান, চট্টগ্রামের মাটিতে বাংলাদেশের জার্সিতে সবচেয়ে বেশি রান, এমনকি ঘরের মাঠে সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ডও তার দখলে। এমন সব কীর্তি গড়ে দীর্ঘদিন পর হাসিমুখে সংবাদ সম্মেলনে আসেন তিনি। তবে প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে মাঝে মাঝে আবেগী হয়ে উঠলেন। তারপরও চেষ্টা করেছেন আবেগ নিয়ন্ত্রণ করার। কখনও পেরেছেন, কখনও পারেননি।

সুইপ, স্লগ সুইপ, রিভার্স সুইপ, প্যাডেল সুইপ, স্কুপ- এসব খেলতে পারা যেকোনও ব্যাটারের জন্যই দারুণ স্কিলের পরিচয়। মুশফিক এই শটগুলোতে অনেক রান করেছেন। তবে অনেকবার আবার দলকে বিপদেও ফেলেছেন। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে রিভার্স সুইপে সর্বশেষ দলকে বিপদে ফেলেছিলেন। তারপর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন। চট্টগ্রাম টেস্ট শুরুর আগেও তার সেই প্রসঙ্গে প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও অধিনায়ক মুমিনুল হককে উত্তর দিতে হয়েছে। এত আলোচনা-সমালোচনাতেই কিনা চট্টগ্রাম টেস্টের পুরো ইনিংসে একটিও স্লগ সুইপ, রিভার্স সুইপ কিংবা স্কুপের মতো ঝুঁকিপূর্ণ শট খেলেননি মুশফিক। প্রয়োজনের মুহূর্তে কিছু সুইপ খেলেছেন। তাতে বেশিরভাগই সফল ছিলেন। যদিও সেঞ্চুরি পূর্ণ করা মুশফিক লাসিথ এম্বুলদেনিয়ার নিচু হওয়া বল সুইপ করতে গিয়েই আউট হন!

মুশফিকের সেঞ্চুরির আনন্দ মুশফিক ভেবেছিলেন, সংবাদ সম্মেলনে তাকে প্রথমেই উত্তর দিতে হবে সুইপ শট নিয়ে! বেশ কিছু প্রশ্নের পর তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, পরিকল্পনা করেই কি রিভার্স সুইপ বাদ দিয়েছেন? প্রশ্নটা শুনে সংবাদ সম্মেলন কক্ষে হাসিতে ফেটে পড়েন দেশসেরা এই ব্যাটার। হাসতে হাসতেই তিনি বলতে শুরু করেন, ‘আমি তো ভেবেছিলাম প্রথম প্রশ্নই এটা হবে যে, সুইপ শট খেলে আউট হলেন (হাসি)?’

একটু গুছিয়ে উঠে এই ব্যাটার যোগ করেন, ‘এটা নির্ভর করে উইকেট কেমন, তার ওপর। যেসব উইকেটে ডিফেন্স করে টিকতে পারবেন, সেখানে তো আর অন্য শট খেলার কোনও প্রশ্নই ওঠে না। এটা খুব ভালো উইকেট এবং ব্যাটিং বান্ধব উইকেট। এখানে যদি ডিফেন্স ভালো করেন, তাহলে স্ট্রেইট ব্যাটে ভালো খেলা যায়, অন্যান্য শট দরকার হয় না।’

এরপরই মুশফিক মনে করিয়ে দিলেন, তিনটি ডাবল সেঞ্চুরির দুটিই রিভার্স সুইপ খেলে করেছেন। ভবিষ্যতে রিভার্স সুইপ খেলা বন্ধ করবেন না তিনি, ‘আমি দুটি ডাবল সেঞ্চুরির ইনিংসে রিভার্স সুইপ খেলে সফল হয়েছি। ওই দুটো ডাবল সেঞ্চুরির ভিডিও যদি কারও কাছে থাকে দেখবেন, ওই দুটো দুইশোতে তিন-চারটা রিভার্স সুইপ করা আছে। নিশ্চিতভাবে এটা আমার খুব পছন্দের শট, একই সঙ্গে হাই রিস্ক শটও। তবু আমি ভবিষ্যতে এই শট খেলা থেকে বিরত থাকবো না।’

মুশফিক ঠিক যতটা আবেগী, তার চেয়ে বহুগুণে পরিশ্রমী ক্রিকেটার। পরিশ্রমই তাকে এতদূর নিয়ে এসেছে। পরিশ্রমের কারণে তরুণ ক্রিকেটারদের আইডলও তিনি। বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ডাবল সেঞ্চুরি এই ব্যাটারের। প্রথম ডাবল সেঞ্চুরিয়ানও তিনি। তবে তার আগে এই কীর্তি গড়তে পারতেন মোহাম্মদ আশরাফুল। কিন্তু আশরাফুল ১৯০ রানে আউট হলে মুশফিক পেয়ে যান প্রথম ‘ডাবল’।

চট্টগ্রাম টেস্টেও ৫ হাজার রানের মাইলফলক ছুঁতে এগিয়ে ছিলেন তামিম ইকবাল। কিন্তু মঙ্গলবার রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে সাজঘরে ফেরায় ১৯ রান পেছনে ছিলেন এই ওপেনার। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে মুশফিক সবার আগে ৫ হাজার রানের ক্লাবে ঢুকলেন। সবকিছু যে তার ভাগ্যের ছোঁয়ায় সেটি নয়, আছে কঠোর পরিশ্রম ও অধ্যবসায়। নিজের কপাল দেখিয়ে মুশফিক ফের আবেগী হয়ে উঠলেন, ‘এই যে কপালটা দেখছেন... হাসবুনাল্লাহু ওয়া নে'মাল ওয়াকিল; নে'মাল মাওলা ওয়া নে'মান নাছির (আল্লাহ তাআলাই আমাদের জন্য যথেষ্ট, তিনিই হলেন উত্তম কর্মবিধায়ক; আল্লাহ তাআলাই হচ্ছেন উত্তম অভিভাবক এবং উত্তম সাহায্যকারী)। আমি যখন উঠে অনুশীলন করি, তখন আপনাদের অনেকেই ঘুমিয়ে থাকেন। তো আল্লাহর রহমতে কিছুটা হলেও তো আল্লাহ দেখেন।’

মুশফিকের মাইলফলক কেক কেটে উদযাপন করা হয় এর আগে অবশ্য তামিমের আগে মাইলফলক ছুঁয়ে অভিনন্দন পাওয়ার কথা জানান মুশফিক, ‘হ্যাঁ হয়েছে, ও (তামিম) আমাকে অভিনন্দন জানিয়েছে। আর তামিম তো আমার ২০০ রানের রেকর্ড ভেঙেছিল। এরপর তামিম বলছিল, যে দুই-তিন বছরে তুই আবার ২০০ করবি। আমি মনে করি, এটা খুব ভালো প্রতিযোগিতা। যা দলের জন্য ভালো।’

প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এই কীর্তি গড়ে মুশফিক বললেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ খুবই ভালো লাগছে যে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৫ হাজার রান করেছি এবং আমি আশা করছি, এটাই প্রথম নয়, অনেক খেলোয়াড় আছে, যারা অনেক ক্যাপাবল। শুধু সিনিয়র আমরা যারা আছি তারা নই, যারা জুনিয়র আছে, ভবিষ্যতে ৮ হাজার কিংবা ১০ হাজার রান করবে।’

দিনের খেলা শেষে মুশফিকের মাইলফলক উদযাপন করতে কেক কেটেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট। সেই উদযাপনে পাশে থাকা মাহমুদুল হাসান জয়কে কেক খাইয়ে নিজের প্রত্যাশার কথা জানান মুশফিক। সংবাদ সম্মেলনে সেই কথা শুনিয়েছেন ৩৫ বছর বয়সী ডানহাতি ব্যাটার, “৫ হাজার রানের জন্য কেক কেটে ড্রেসিং রুমে যখন উদযাপন করছিলাম, তখন জয়কে প্রথম কেক খাইয়ে বলেছিলাম যে, ‘তুই এখানে সবচেয়ে কনিষ্ঠ ব্যাটসম্যান। তোর সম্ভাবনা আছে ১০ হাজার রান করার। আমি আশা করি, তুই সেদিন অন্য নতুন কাউকে এরকম কেক খাইয়ে দিবি। আর এই লিগ্যাসিটা সামনে এগিয়ে যাবে।”

/কেআর/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা
ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা
সেতু চালুর প্রথম দিনেই কমে গেছে লঞ্চযাত্রী
সেতু চালুর প্রথম দিনেই কমে গেছে লঞ্চযাত্রী
বাংলাদেশকে অনেক ভুগিয়ে থামলেন মায়ার্স
বাংলাদেশকে অনেক ভুগিয়ে থামলেন মায়ার্স
হ্যাকিংয়ের শিকার অ্যাপল ও অ্যান্ড্রয়েড ফোন
হ্যাকিংয়ের শিকার অ্যাপল ও অ্যান্ড্রয়েড ফোন
এ বিভাগের সর্বশেষ
বন্যাদুর্গতদের পাশে থাকতে এক মাসের বেতন দিলেন মুশফিক
বন্যাদুর্গতদের পাশে থাকতে এক মাসের বেতন দিলেন মুশফিক
অবশেষে সুখবর, টিভিতে দেখা যাবে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ ম্যাচ
অবশেষে সুখবর, টিভিতে দেখা যাবে বাংলাদেশ-উইন্ডিজ ম্যাচ
তাসকিনকে নিয়ে সুখবর
তাসকিনকে নিয়ে সুখবর
আমি যদি কোচিংও করি, অধিনায়কত্বও করি তাহলে তো সমস্যা: সাকিব
আমি যদি কোচিংও করি, অধিনায়কত্বও করি তাহলে তো সমস্যা: সাকিব
খালেদের দারুণ বোলিংয়েও হতাশায় মোড়ানো আরেকটি দিন
খালেদের দারুণ বোলিংয়েও হতাশায় মোড়ানো আরেকটি দিন